ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

জাতীয়
সুশান্ত পালের ফেসবুক পেজ কি আসলেই গায়েব, নাকি নতুন নাটক?

সুশান্ত পালের ফেসবুক পেজ কি আসলেই গায়েব, নাকি নতুন নাটক?

কোটা সংস্কার আন্দোলন ইস্যুতে মন্তব্য করে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ হারানর অভিযোগ করলেন জনপ্রিয় ক্যারিয়ার বিষয়ক বক্তা সুশান্ত পাল। অন্য একটি পেইজে পোস্ট করে তিনি নিজেই এটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি লিখেছেন, আমার ভেরিফাইড পেইজটি সম্ভবত হ্যাকাররা রিমুভ করে দিয়েছেন। কিছুই বলার নেই। সব কিছুর ভার ঈশ্বরের হাতে ছেড়ে দিলাম। আপনারা ভালো থাকবেন। হারিয়ে যাওয়া সেই পেজে শুক্রবার রাতে এক পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘কোটা এবং প্রশ্নফাঁস বিষয়ে কিছু না লিখলে যদি আপনাদের খারাপ লাগে, তাহলে এত কথা না বলে আমাকে আনফলো করে দিন। (আরও ভালো হয় ব্লক করে দিলে।)’ তার সেই কথাই রেখেছেন ফ্যান-ফলোয়াররা। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ফলোয়ার কমতে থাকে তার। সুশান্ত পালের আলোচিত সেই পোস্টের নিচে তিনি নিজেই কমেন্ট করে জানিয়েছেন সব আপডেট। জানিয়েছেন ভালবাসাও। তিনি কমেন্টে লিখেছেন, মাত্র ১২ হাজারের মতো ফলোয়ার কমল! আমি মন থেকেই চাই, সংখ্যাটা ১ লক্ষ ছাড়াক। আনফলো করতে থাকুন অনুগ্রহ করে। আগাছা কমুক। আই লাভ ইউ। কোটা আন্দোলনকারীদের নিয়ে সুশান্ত যখন পোস্ট দেন সেসময় পেজে ফলোয়ার ছিল ১.৮ মিলিয়ন (১৮ লাখ)। পোস্টের কমেন্টে তিনি আরও লিখেছছিলেন, বিভিন্ন জায়গায় আমাকে নিয়ে দেখলাম খুব ম্যাসিভ আকারে চর্চা শুরু হয়ে গেছে। আমার হাসি পাচ্ছে, কেননা যে-বিষয় নিয়ে কথা হচ্ছে, তার সাথে আমার বিন্দুমাত্র সংযোগ নেই। আপনারা কী কারণে এভাবে একজন লোককে ক্রমাগত বিরক্ত করে যাচ্ছেন, আমার কাছে তা অস্পষ্ট। নিশ্চয়ই আপনারা ক্যান্ডিডেট নন, আপনারা কেবলই ফ্যাসাদ সৃষ্টি করার ব্যাপারে আগ্রহী। ভুল তো আপনাদের নয়, আমার। কখনও বিনা পয়সায় বাঙালির উপকার করতে নেই। আপনাদের বোধোদয় হোক। তিনি আরও লিখেছেন, এত বেশি বিরক্ত করবেন না। আমি আপনার ফরমায়েশের চাকর নই। এভাবে সহজ করে বুঝিয়ে বলার পরও যদি বিরক্ত করে যান, তাহলে বুঝব, আপনার কোনো লজ্জাশরম ও কাণ্ডজ্ঞান নেই। আপনি আমাকে ব্লক না করলে আমি আপনাকে ব্লক করব এবং অবশ্যই করব। এতে আপনার সম্মান বাড়বে না, কমবে। আমি আপনাকে সম্মান করি, আপনি নিজেও নিজের সম্মান বজায় রাখুন। আপনার হাতে কাজ নেই, আর আমার হাতে সময় নেই। এ কারণেই আমি চাইছি না যে, আপনি মনে এত কষ্ট নিয়েও আমাকে ফলো করুন। সৃষ্টিকর্তা আমাদের সহায় হোন। তবে এ বিষয়ে স্ট্যাটাস দিয়েও ক্ষান্ত হননি তিনি। কমেন্টে দিয়েছেন অনেকের রিপ্লাইও। তবে ফেসবুক পেজ হ্যাকের বিষয়টি অনেকেই নাটক বলে মন্তব্য করছেন। এর আগে ২০১৬ সালে ফেসবুকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে অশোভন মন্তব্য ও কটূক্তি করার অভিযোগ ওঠার পর ৩০তম বিসিএসের মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া এই কাস্টমস কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছিল। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) এক প্রজ্ঞাপনে সেই সময় বলা হয়েছিল, সুশান্ত পাল নামের ওই কর্মকর্তাকে তাৎক্ষনিকভাবে অবমুক্ত করা বা স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার মানসিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করারও আদেশ দেওয়া হয়েছিল। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে যে, তিনি ও তার সহযোগী ছয় কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা কক্সবাজারের নামিদামি হোটেল-রেস্টুরেন্টকে রাজস্ব ফাঁকি দিতে সহায়তা করে ঘুষ নিয়ে শত কোটি টাকা লোপাট করেছেন।

waltonbd
waltonbd
Sopno
Sopno
সুশান্ত পালের ফেসবুক পেজ কি আসলেই গায়েব, নাকি নতুন নাটক?

সুশান্ত পালের ফেসবুক পেজ কি আসলেই গায়েব, নাকি নতুন নাটক?

কোটা সংস্কার আন্দোলন ইস্যুতে মন্তব্য করে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ হারানর অভিযোগ করলেন জনপ্রিয় ক্যারিয়ার বিষয়ক বক্তা সুশান্ত পাল। অন্য একটি পেইজে পোস্ট করে তিনি নিজেই এটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি লিখেছেন, আমার ভেরিফাইড পেইজটি সম্ভবত হ্যাকাররা রিমুভ করে দিয়েছেন। কিছুই বলার নেই। সব কিছুর ভার ঈশ্বরের হাতে ছেড়ে দিলাম। আপনারা ভালো থাকবেন। হারিয়ে যাওয়া সেই পেজে শুক্রবার রাতে এক পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘কোটা এবং প্রশ্নফাঁস বিষয়ে কিছু না লিখলে যদি আপনাদের খারাপ লাগে, তাহলে এত কথা না বলে আমাকে আনফলো করে দিন। (আরও ভালো হয় ব্লক করে দিলে।)’ তার সেই কথাই রেখেছেন ফ্যান-ফলোয়াররা। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ফলোয়ার কমতে থাকে তার। সুশান্ত পালের আলোচিত সেই পোস্টের নিচে তিনি নিজেই কমেন্ট করে জানিয়েছেন সব আপডেট। জানিয়েছেন ভালবাসাও। তিনি কমেন্টে লিখেছেন, মাত্র ১২ হাজারের মতো ফলোয়ার কমল! আমি মন থেকেই চাই, সংখ্যাটা ১ লক্ষ ছাড়াক। আনফলো করতে থাকুন অনুগ্রহ করে। আগাছা কমুক। আই লাভ ইউ। কোটা আন্দোলনকারীদের নিয়ে সুশান্ত যখন পোস্ট দেন সেসময় পেজে ফলোয়ার ছিল ১.৮ মিলিয়ন (১৮ লাখ)। পোস্টের কমেন্টে তিনি আরও লিখেছছিলেন, বিভিন্ন জায়গায় আমাকে নিয়ে দেখলাম খুব ম্যাসিভ আকারে চর্চা শুরু হয়ে গেছে। আমার হাসি পাচ্ছে, কেননা যে-বিষয় নিয়ে কথা হচ্ছে, তার সাথে আমার বিন্দুমাত্র সংযোগ নেই। আপনারা কী কারণে এভাবে একজন লোককে ক্রমাগত বিরক্ত করে যাচ্ছেন, আমার কাছে তা অস্পষ্ট। নিশ্চয়ই আপনারা ক্যান্ডিডেট নন, আপনারা কেবলই ফ্যাসাদ সৃষ্টি করার ব্যাপারে আগ্রহী। ভুল তো আপনাদের নয়, আমার। কখনও বিনা পয়সায় বাঙালির উপকার করতে নেই। আপনাদের বোধোদয় হোক। তিনি আরও লিখেছেন, এত বেশি বিরক্ত করবেন না। আমি আপনার ফরমায়েশের চাকর নই। এভাবে সহজ করে বুঝিয়ে বলার পরও যদি বিরক্ত করে যান, তাহলে বুঝব, আপনার কোনো লজ্জাশরম ও কাণ্ডজ্ঞান নেই। আপনি আমাকে ব্লক না করলে আমি আপনাকে ব্লক করব এবং অবশ্যই করব। এতে আপনার সম্মান বাড়বে না, কমবে। আমি আপনাকে সম্মান করি, আপনি নিজেও নিজের সম্মান বজায় রাখুন। আপনার হাতে কাজ নেই, আর আমার হাতে সময় নেই। এ কারণেই আমি চাইছি না যে, আপনি মনে এত কষ্ট নিয়েও আমাকে ফলো করুন। সৃষ্টিকর্তা আমাদের সহায় হোন। তবে এ বিষয়ে স্ট্যাটাস দিয়েও ক্ষান্ত হননি তিনি। কমেন্টে দিয়েছেন অনেকের রিপ্লাইও। তবে ফেসবুক পেজ হ্যাকের বিষয়টি অনেকেই নাটক বলে মন্তব্য করছেন। এর আগে ২০১৬ সালে ফেসবুকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে অশোভন মন্তব্য ও কটূক্তি করার অভিযোগ ওঠার পর ৩০তম বিসিএসের মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া এই কাস্টমস কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছিল। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) এক প্রজ্ঞাপনে সেই সময় বলা হয়েছিল, সুশান্ত পাল নামের ওই কর্মকর্তাকে তাৎক্ষনিকভাবে অবমুক্ত করা বা স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার মানসিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করারও আদেশ দেওয়া হয়েছিল। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে যে, তিনি ও তার সহযোগী ছয় কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা কক্সবাজারের নামিদামি হোটেল-রেস্টুরেন্টকে রাজস্ব ফাঁকি দিতে সহায়তা করে ঘুষ নিয়ে শত কোটি টাকা লোপাট করেছেন।

adbilive
adbilive
আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সরকারকে পরাজিত করা হবে

আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সরকারকে পরাজিত করা হবে

রাজপথে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বর্তমান সরকারকে পরাজিত করা হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার বিকেলে নয়াপল্টন ভাসানী ভবনের ঢাকা মহানগর বিএনপি কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি এ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।  ফখরুল বলেন, আমাদের এখন যেটা দরকার তা হচ্ছে সকলের মধ্যে ঐক্য গড়ে তোলা। সেই ঐক্যের মধ্য দিয়ে আন্দোলনকে বেগবান করা, আরও শক্তিশালী করা। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তিকে আলাদা করে দেখার কোনো কারণ নেই। খালেদা জিয়ার মুক্তি, দেশের মুক্তি, গণতন্ত্রের মুক্তি সবকিছুর জন্য আওয়ামী লীগ সরকারকে যদি আমরা সরাতে পারি তাহলে সব বিষয়গুলো আমরা ফিরিয়ে আনতে পারব। তাই আসুন সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করি। ইনশাআল্লাহ আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে কেউ আমাদেরকে পরাজিত করতে পারবে না।

SomajVabna
আর্জেন্টিনার ঐতিহাসিক হ্যাটট্রিক শিরোপার হাতছানি

আর্জেন্টিনার ঐতিহাসিক হ্যাটট্রিক শিরোপার হাতছানি

সোমবার পর্দা নামতে যাচ্ছে আমেরিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় ফুটবল আসর ‘কোপা আমেরিকা’র। ৪৮তম আসরের এই ফাইনালে সকাল ৬টায় মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া। জমজমাট এই ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার মিয়ামি গার্ডেন্সের হার্ডরক স্টেডিয়ামে।  ১ নম্বর ফিফা র‌্যাঙ্কিংধারী আর্জেন্টিনা হচ্ছে এই আসরের বর্তমান এবং উরুগুয়ের সঙ্গে যৌথভাবে সর্বোচ্চ ১৫ বারের চ্যাম্পিয়ন। আজ তারা জিততে পারলে ১৯৯১ ও ১৯৯৩ সালের মতো আবারও টানা দু’বার কোপার চ্যাম্পিয়ন হবে। শুধু তাই নয়, স্পেনের পর দ্বিতীয় কোন দল হিসেবে টানা দুটি মহাদেশীয় ও একটি বিশ্বকাপ জেতার কীর্তি গড়ারও সুযোগ হাতছানি দিচ্ছে ‘লা আলবিসেলেস্তে’দের।  পক্ষান্তরে একবারের (২০০১) কোপা চ্যাম্পিয়ন কলম্বিয়া। ১২ নম্বর র‌্যাঙ্কিংধারী দলটি দীর্ঘ ২৩ বছর পর আবার এই আসরের ফাইনালে উঠে এসেছে। কোপার ইতিহাসে আর্জেন্টিনার এটি যেখানে ৩০তম ফাইনাল, সেখানে ‘লা ট্রাইকালার’ খ্যাত কলম্বিয়ার এটি তৃতীয় ফাইনাল। ১৯৭৫ সালে পেরুর কাছে হেরে রানার্সআপ হয়েছিল তারা। ফলে আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে কোপায় এই প্রথম ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে কলম্বিয়া।

সাজা বাতিল, মুক্তি পাচ্ছেন ইমরান খান

সাজা বাতিল, মুক্তি পাচ্ছেন ইমরান খান

জেল থেকে শীঘ্রই মুক্তি পাচ্ছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ইদ্দত মামলায় তার বিরুদ্ধে সাজা বাতিল করা হয়েছে। এটিই ছিল শেষ মামলা, যার কারণে তিনি জেলে আছেন। অন্য মামলাগুলোতে ইমরান খান জামিন অথবা খালাস পেয়েছেন। ইসলামাবাদের একটি জেলা ও দায়রা আদালত শনিবার ইমরান খান এবং বুশরা বিবির দায়ের করা আপিল গ্রহণ করেছেন। বুশরা বিবির সাবেক স্বামী ফরিদ মানেকার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ ফেব্রুয়ারি ইদ্দত মামলায় এই দম্পতিকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ইমরান খান ও তার স্ত্রীকে সাত বছরের কারাদ- এবং প্রত্যেককে পাঁচ লাখ রুপি করে জরিমানা করেন জ্যেষ্ঠ সিভিল জজ কুদরতুল্লাহ। ইমরান দম্পতির আপিল গ্রহণ করার পর বিচারক বলেন, যদি অন্য কোনো মামলায় তাদের খোঁজা না হয়, তাহলে পিটিআই প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খান ও বুশরা বিবিকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে।  এদিন মানেকা একজোড়া আবেদন দাখিল করেন- একটিতে তার প্রাক্তন স্ত্রী বুশরা বিবির মেডিক্যাল চেকআপ করানো হয়, যাতে তার ঋতুস্রাব পরীক্ষা করা হয়, অন্য আবেদনে ধর্মীয় প-িত ও ওলেমাদের কাছে ইদ্দতের মেয়াদ নিয়ে আরও আলোচনার জন্য পরামর্শ চাওয়া হয়। বিচারক তার আদেশে দুটি আবেদনই খারিজ করে দিয়ে বলেন, পিটিআই প্রতিষ্ঠাতা ও তার স্ত্রীর মুক্তির আদেশ জারি করা হয়েছে।

স্মার্ট ভিলেজ গ্রামোন্নয়নের নতুন মডেল

স্মার্ট ভিলেজ গ্রামোন্নয়নের নতুন মডেল

‘স্মার্ট ভিলেজ’। দেশের প্রথম ‘স্মার্ট ভিলেজ’ হিজলী গ্রাম। জেলা শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে গ্রামটি। ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকু-ু উপজেলার কাপাশহাটিয়া ইউনিয়নের বাঁওড় পাড়ে এই হিজলী গ্রামের অবস্থান। গ্রামের প্রবেশপথে লাগানো হয়েছে সুন্দর একটি বোর্ড যেখানে লেখা আছে- স্বাগতম, স্মার্ট ভিলেজ হিজলী। ৩৩৪টি পরিবার রয়েছে হিজলী গ্রামে যার মধ্যে ৪৯৩ জন পুরুষ ও ৫১৯ জন নারীর বসবাস। এই গ্রামের ২৩৯জন পুরুষ এবং ২৬৮ জন নারী লিখতে পড়তে পারে। যে গ্রামের মাত্র ২ জন নারী ও ২ জন পুরুষ চাকরি করে। কৃষিকাজই গ্রামের মানুষের মূল পেশা। সব মিলিয়ে বলতে গেলে পিছিয়ে পড়া একটি গ্রাম হিজলী।  উন্নয়নের কৌশল হিসেবে ধরা হয়েছে সংগঠন যেখানে উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে গ্রামে গড়ে উঠেছে স্মার্ট মহিলা ক্লাব। সেখানে গ্রামের নারীরা তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হয়ে ওঠার গল্প শুনে উৎসাহিত হয়। করা হয়েছে নির্যাতিত নারীদের প্রতিকারের ব্যবস্থা। ফলে এখন  গ্রামে নারী নির্যাতন ও বাল্যবিয়ে কমেছে। হিজলী গ্রাম এখন বাল্যবিয়েমুক্ত, অপরাধমুক্ত, আত্মহত্যামুক্ত, স্বনির্ভর, ডিজিটাল এবং পরিবেশবান্ধব। এখানে করা হয়েছে একটি স্মার্ট বৈঠকখানা। যেখানে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে প্রতি সপ্তাহে ১দিন করে গ্রামবাসীদের সমস্যা শোনা হয় এবং তার সমাধান দেওয়া হয়।  নিকট অতীতের তথ্য থেকে জানা যায়, হিজলী গ্রাম এক সময় ছিল সন্ত্রাসীদের আখড়া, বসবাসরত মানুষের সঙ্গে উন্নয়নের স্রোতধারার সম্পৃক্ততা ছিল না। বর্তমান সরকারের ব্যাপক অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশের ছোঁয়ায় এই ভীতি, কুসংস্কার এবং অন্ধকারাচ্ছন্ন জনপদ আলোর মুখ দেখলেও এখানকার মানুষ  অপরাধপ্রবণ, শিক্ষাগ্রহণে অনাগ্রহী এবং প্রচলিত কৃষিনির্ভর সমাজ ব্যবস্থার যাপিত জীবনে অভ্যস্ত।

যে কোনো দেশ থেকেই আমদানি করা যাবে আলু ও পেঁয়াজ

যে কোনো দেশ থেকেই আমদানি করা যাবে আলু ও পেঁয়াজ

আলু ও পেঁয়াজের আমদানিতে আইপি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে জানিয়ে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, যে কোনো আমদানিকারক এখন যে কোনো দেশ থেকে চাইলেই পেঁয়াজ ও আলু আমদানি করতে পারবেন। শনিবার রাজধানীর কাওরানবাজারে টিসিবি অডিটরিয়ামে জাতীয় রপ্তানি ট্রফি ২০২১-২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। গত ৬ মাসে মজুতদারি করে কোনো পণ্যে কেউ কারসাজি করতে পারেনি দাবি করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারি বৃষ্টির কারণে দেশের ১৮ জেলা তলিয়ে গেছে। এতে পণ্য আসতে সমস্যা হচ্ছে, যা সাময়িক। তবে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা সমাধানের জন্য কাজ করা হবে। এ ছাড়া চাইলেই এখন যে কোনো দেশ থেকে পেঁয়াজ ও আলু আমদানি করা যাবে। বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, দেশের ১৮ জেলায় এ সময়ে বন্যা হচ্ছে। এ ছাড়া সারাদেশে বৃষ্টির কারণে ফসলের খেত তলিয়ে গেছে। বাজারে এর প্রভাব পড়েছে। পণ্যের দাম বেড়েছে। তবে আমি মনে করি এটি সাময়িক। তিনি বলেন, কৃষি মন্ত্রণালয় কী করছে, বন্যা-পরবর্তী কী ব্যবস্থা ও পদক্ষেপ নিয়েছে, আমরা খোঁজ নিচ্ছি। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আমাদের একটি কমিটি রয়েছে। আমরা খাদ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলব। দ্রুত এসব পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে কী করা যায়, সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, বৃষ্টি বা বন্যা পরিস্থিতিকে পুঁজি করে কোনো ব্যবসায়ীকে অসাধুভাবে সিন্ডিকেট করতে দেওয়া হবে না। আপনারা জানেন, বর্তমান সরকারের চলতি মেয়াদে গত ছয় মাসে কোনো ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট করতে পারেননি। তিনি বলেন, এখন দ্রব্যমূল্য নিয়ে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তা কোনো সিন্ডিকেটের জন্য নয়। আপনারা দেখেছেন, কাঁচাবাজারে বসে পণ্য বিক্রি করার মতো পরিস্থিতি নেই। সারাদেশের মাঠ-ঘাটে পানি, পণ্যের সরবরাহ ঠিকঠাক মতো হচ্ছে না। টিটু বলেন, ‘তার পরও আমাদের নজরদারি থাকবে। আমরা যে কোনো কঠিন ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সর্বদা প্রস্তুত রয়েছি।’ দেশের গার্মেন্টস খাতের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে কৃষি ও চামড়া খাতে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, রপ্তানি বাণিজ্যসহ সরকারের সব কর্মকা-ের লক্ষ্য দেশের বেকারত্ব দূর করা। এ জন্য শুধু গার্মেন্টস খাতের ওপর নির্ভর করলে চলবে না। তাই দেশের গার্মেন্টস খাতে নির্ভরশীলতা কমিয়ে কৃষি ও চামড়া খাতে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এ সময়ে রপ্তানি বাড়ানো ছাড়া আর কোনো বিকল্প রাস্তা নেই। তাই সব রপ্তানিকারকের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে তথ্যভা-ার তৈরির কথাও জানান তিনি।

বন্যায় দুর্ভোগ

বন্যায় দুর্ভোগ

১০দিনের বেশি সময় ধরে কুড়িগ্রামসহ সারাদেশের নানা অঞ্চলে চলছে বন্যা। বন্যার এ দিনগুলোতে মানুষ চরম দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছে। বিশেষ করে পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের কষ্ট আরও বেশি। প্রাকৃতিক এই দুর্যোগের দিনগুলোতে এক প্রকার জীবন সংগ্রামের লড়াইয়ে টিকে থাকতে হয় তাদের। একদিকে নিজের জীবন, স্বামী, সন্তান ও তাদের গবাদীপশু গুলিকে নিয়ে টিকে থাকতে হয় প্রতিনিয়ত। নারীদের এই সংগ্রাম শুধু আজকের নয় শত শত বছর আগে থেকে চলে আসছে। তারপরও এ নিয়ে কোনো কথা বলেনি প্রাকৃতিক দুর্যোগ জয়ী সংগ্রামী এই নারীরা। প্রাকৃতিক দুর্যোগের দেশ এই বাংলাদেশ। কখনো শীত কখনো গরম আর কখনো বর্ষা যেন লেগেই থাকে এই দেশে।

বন্যায় নারীর সংগ্রাম

বন্যায় নারীর সংগ্রাম

প্রতি বছরের জুন-জুলাই মাস মানেই যেন বন্যা! দেশের বেশ কিছু জেলার মানুষ এ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকেন। বন্যায় প্রাণনাশ থেকে শুরু করে প্রায় সবকিছুর ক্ষতি হয়ে থাকে। অবর্ণনীয় এমন দুর্ভোগের মধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জের বেশ কিছু স্থান শীর্ষে থাকে। প্রতি বছরই এ সকল জায়গার মানুষদের বন্যার সময় সীমাহীন কষ্ট পোহাতে হয়। এর মধ্যে নারী-শিশুদের কষ্টই বেশি।  এবার প্রায় এক মাসে দুই দফা বন্যার রেশ কাটতে না কাটতেই তৃতীয় দফার বন্যার কবলে পড়েছে সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার বাসিন্দারা। এ দফার বন্যায় ইতোমধ্যে ডুবেছে দুই জেলার বিস্তীর্ণ অনেক এলাকা। ঢল অব্যাহত থাকায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে দুই জেলার অনেক এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। সুনামগঞ্জ-তাহিরপুর সড়ক পানিতে ডুবে যাওয়ায় যান চলাচলে বিঘœ হচ্ছে। টানা বৃষ্টিতে সিলেট নগরেরও অনেক এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।