ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

স্বাক্ষাতকার

দর্শক আলাদাভাবে আমাকে  চেনেন

দর্শক আলাদাভাবে আমাকে  চেনেন

এ প্রজন্মের মডেল ও অভিনেত্রী শাহনাজ সুমি। গেল বছরের ২১ ডিসেম্বর  হৈচৈ প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পায় তার অভিনীত গোলাম সোহরাব দোদুল পরিচালিত ওয়েব সিরিজ ‘মোবারকনামা’। এ ওয়েব সিরিজে প্রশংসিত হয়েছে তার অভিনয়। একই বছর মুক্তি পায় তার আরও একটি ওয়েব সিরিজ তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ‘বুকের মধ্যে আগুন’। সে কাজটির জন্যও আলোচিত হয়েছিলেন এ গ্ল্যামারকন্যা। নিজের সাম্প্রতিক কাজ ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা বলেছেন তিনি... ‘মোবারকনামা’ ওয়েব সিরিজ দারুণ প্রশংসিত হয়েছে। পাশাপাশি আপনার চরিত্রটিও বেশ আলোচনায় এসেছে। সিরিজটি নিয়ে আপনার অভিব্যক্তি শুনতে চাই... স্রোতের মতো দর্শকের প্রতিক্রিয়া এসেছে। এখনো তা অব্যাহত আছে। কাজ ভালো হলে দর্শকও ভালো প্রতিক্রিয়া জানায়। যদিও শুরুতে ট্রেলার দেখে অনেকে নেতিবাচক মন্তব্য করেছিল। পরবর্তীতে তা আর হয়নি। সুরাইয়া চরিত্র তুলে ধরা কেমন চ্যালেঞ্জিং ছিল? সুরাইয়াÑ চরিত্রটির কয়েকটি লেয়ার আছে। প্রথমদিকে কাজটি চ্যালেঞ্জিং ছিল। পরবর্তীতে কাজ শুরু করার পর তা আনন্দদায়ক হয়ে যায়। আসলে চরিত্রটিকে ভালোবাসলে চ্যালেঞ্জও আনন্দে পরিণত হয়। কষ্ট হলেও আনন্দ নিয়ে কাজটি শেষ করেছি। কষ্ট গায়ে লাগেনি। যদিও কষ্টের দাগ গায়ে রয়ে গেছে। এ ধরনের চরিত্রে কাজ করতে গিয়ে দ্বিধা কাজ করেনি? শুরুতে দ্বিধা ছিল। দর্শক কিভাবে নেবে তা নিয়ে সংশয় কাজ করেছে। আশপাশের মানুষজন আঙুল তুলবে এটিও মনে হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়েছে কনটেন্ট যে বার্তা দিচ্ছে তা মানুষজনের আঙুল তোলার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ। সে ভাবনা থেকে কাজটি করা। ‘মোবারকনামা’য় কাজের অভিজ্ঞতা কেমন? অভিজ্ঞতা অবিশ্বাস্য রকমের ভালো ছিল। সাধারণত মোশাররফ করিম পর্দায় থাকলে অন্য চরিত্রগুলো ঝাপসা হয়ে যায়। আমার ক্ষেত্রে তা হয়নি। এজন্য মোশাররফ করিম বেশ সহযোগিতাপরায়ণ ছিলেন। আমার পরিচালক ও টিম তো দারুণভাবে সহযোগিতা করেছে। গত বছর আপনাকে ওটিটিতেই দেখা গেছে। চলচ্চিত্র কিংবা নাটকে দেখা যায়নি। কাজের ক্ষেত্রে মাধ্যম কোনো ভূমিকা রাখছে? সে রকম কোনো হিসাব আমি করি না। আমি ভালো কাজ করতে চাই। মানসম্মত কাজের সংখ্যা বাড়াতে চাই। মাধ্যম কোনো বাধা নয়। আমার কাছে ভালো কাজ কম আসছে। আমাদের দেশে বছরজুড়ে ভালো কাজই হয় হাতেগোনা কয়েকটি। তাই এমনটিই স্বাভাবিক। তাছাড়া গল্প হাতে এলে দুটো বিষয় খেয়াল করি। প্রথমত, গল্পটির প্রতি কোনো টান অনুভব করছি কি-না। দ্বিতীয়ত, আমার চরিত্রটি গল্পে কোনো প্রভাব ফেলতে পারছে কি-না। অর্থাৎ, চরিত্রটির গুরুত্ব কেমন সেটি। গেল বছর এমন দুটো কাজ করতে পেরেছি বলেই দর্শক আলাদাভাবে আমাকে চেনেন। চলতি বছরের কাজের ছক এঁকেছেন? নতুন বছরে কাজের সংখ্যা বাড়ানো অন্যতম ইচ্ছে। গেল বছরের শুরুর দিকে মার্চে মুক্তি পায় ওয়েব সিরিজ ‘বুকের মধ্যে আগুন’। এরপর বছরের একদম শেষে মুক্তি পেল ‘মোবারকনামা’। এ দুটো কাজই বছরটিকে রাঙিয়ে দিয়েছে। তার আগের বছর মুক্তি পায় দুটো ছবি - দামাল ও পাপ-পূণ্য। দুই বছরে দুটো সিনেমা ও দুটো ওয়েব সিরিজ মুক্তি পেল। তাই এবার ভালো কিছু কাজের সঙ্গে যুক্ত থেকে এটির সংখ্যা বাড়াতে চাই।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়