ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

অন্ধকার থেকে আলোয় আদেমোলা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪৯, ২৪ মে ২০২৪

অন্ধকার থেকে আলোয় আদেমোলা

ইউরোপা লিগের ফাইনালে হ্যাটট্রিকের পর আটালান্টার আদেমোলা লুকমানের (জার্সি-১১) উচ্ছ্বাস

জন্ম হয়েছে ইংল্যান্ডে। ইংলিশদের অনূর্ধ্ব-১৯, ২০ ও ২১ দলে খেলেছেন এইতো ২০১৯ সাল পর্যন্তও। কিন্তু বাবা-মা নাইজিরিয়ান। এই সুবাদে তিনি আফ্রিকান দেশটিতে পাড়ি জমান। এরপর ২০২২ সালে দেশটির জাতীয় দলেও অভিষেক হয়ে যায়। এতদিন ক্লাব ফুটবলেও খুব একটা ভালো করতে পারছিলেন না। কিন্তু বুধবার রাতে ডাবলিনে ইউরোপা লিগের ফাইনালে অনন্য হ্যাটট্রিক করে রাতারাতি তারকা বনে গেছেন ২৬ বছর বয়সী লুকমান। 
মা-বাবাকে গ্যালারিতে সাক্ষী রেখে আটালান্টার ১১৬ বছরের ক্লাব ইতিহাসে দ্বিতীয় ট্রফি এনে দিয়েছেন লুকমান। এর আগে ১৯৬৩ সালে কোপা ইতালিয়া জিতেছিল আল্পপ পর্বতমালার নিকটবর্তী বেরগামো শহরের ক্লাবটি। আর ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার ফাইনালে ইতালিয়ান কোনো ক্লাবের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসাবেও হ্যাটট্রিক করেছেন।

এর আগে ১৯৬৯ ইউরোপিয়ান কাপ ফাইনালে আয়াক্সের বিরুদ্ধে এসি মিলানের হয়ে হ্যাটট্রিক করেছিলেন পিয়েরিনে। প্রতিশ্রুতিশীল এই ফুটবলার ওয়াটারলুর বয়সভিত্তিক ক্লাব থেকে উঠে এসেছেন। কোচ ফেলিক্স ইমানুসকে পরামর্শক হিসাবে পেয়েছেন তিনি এ ক্লাবেই। প্রিয় শিষ্যের দুর্দান্ত পারফরমেন্সের পর ইমানুস বলেন, নিজের আবেগ বলে বোঝাতে পারব না।

দীর্ঘদিন ধরে এমন কিছুর স্বপ্ন দেখছি। ওয়াটারলুতে লুকমান যখন ছোট্ট ছেলে ছিল তখন থেকে। সেই স্বপ্নপূরণ হয়েছে। তৃতীয় গোলটির পর কেঁদেছি। ওর জন্য খুব আনন্দ হচ্ছে। ২০২২ সালের আগস্টে আটালান্টায় যোগ দেওয়ার পর গতবার ও এবারের মৌসুমে দুই অঙ্কে নিতে পেরেছেন গোলসংখ্যা। লুকমান বলেন, এটা আমার জীবনের অন্যতম সেরা রাত।

উৎসব করতে হবে আমাদের। আমরা ইতিহাস গড়েছি। নিজের সামর্থ্যরে ওপর সবসময় আমার বিশ্বাস ছিল। গত দুই বছরে নিজের খেলা নতুন মাত্রায় নিতে পেরেছি। ধারাবাহিকতা অর্জন করেছি। এমন আরও অনেক রাতের দেখা পাওয়ার আশা করি। লুকমানের জন্ম ইংল্যান্ডের দক্ষিণ লন্ডনের জেলা ওয়ান্ডসওয়ার্থে। ইংল্যান্ডের বয়সভিত্তিক দলে (অনূর্ধ্ব-১৯, অনূর্ধ্ব-২০ ও অনূর্ধ্ব-২১) খেলে বেড়ে উঠেছেন।

কিন্তু বাবা-মা নাইজিরিয়ান। গত জানুয়ারিতে আফ্রিকান নেশন্স কাপের ফাইনালে আইভরিকোস্টের কাছে নাইজিরিয়ার হারের পর ভীষণ হতাশ হয়েছিলেন তিনি। এমন আরও হতাশা আছে তার ক্যারিয়ারে। ২০২০ সালে তার দল ফুলহাম একটি ম্যাচে ৯৮ মিনিটে ৩-২ গোলে পিছিয়ে থাকা অবস্থায় পেনাল্টি পেয়েছিল। লুকমান পেনাল্টিতে পানেনকা শট নিতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছিলেন। কিন্তু সেসব পেছনে ফেলে তিনি এবার অমরত্ব পেয়েছেন আটালান্টার ইতিহাসে।
অন্যদিকে ৩৬১ দিন ধরে টানা ৫১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর ইউরোপা লিগের ফাইনালে হেরেছে লেভারকুসেন। তাতে মৌসুমে অপরাজিত থেকে ‘ট্রেবল’ জয়ের স্বাদ আর পূর্ণ হয়নি তাদের। এ প্রসঙ্গে দলটির কোচ জাভি অ্যালানসো বলেন,  আটালান্টা আমাদের চেয়ে ভালো খেলেছে। ট্রফিটা তাদেরই প্রাপ্য। দিনটা আমাদের ছিল না। খারাপ লাগছে এটা ভেবে যে এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই কি না এটা (হার) হলো! এরপরও অসাধারণ মৌসুমে দারুণ সব অর্জন নিয়ে আমি গর্বিত।

×