ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০১ এপ্রিল ২০২৩, ১৮ চৈত্র ১৪২৯

স্প্যানিশ লা লিগায় আবারও হোঁচট গ্যালাক্টিকোদের, ক্রমশই ধূসর হচ্ছে শিরোপা ধরে রাখার স্বপ্ন

কাসেমিরোর অভাবে ধুঁকছে রিয়াল মাদ্রিদ!

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৩২, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

কাসেমিরোর অভাবে ধুঁকছে রিয়াল মাদ্রিদ!

রিয়ালের ব্রাজিলিয়ান তারকা কাসেমিরো

কাসেমিরোর অভাব হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। ব্রাজিলের তারকা ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডারকে বিশ্বকাপের আগে ছেড়ে দেয় গ্যালাক্টিকোরা। দারুণ কার্যকরী এই ফুটবলারকে দলে ভিড়িয়েছে ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এরপর থেকেই রেড ডেভিলসরা ভঙ্গুর অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ইংলিশ এফএ কাপের সবশেষ ম্যাচেও ম্যানইউর জয়ের নায়ক কাসেমিরো। দলের রক্ষণভাগ সামলিয়ে ও মাঝমাঠ নিয়ন্ত্রণ করে দুই গোল করে দলকে জিতিয়েছেন।
রিয়ালে দীর্ঘদিন এমন ভূমিকায় ছিলেন কাসেমিরো। কিন্তু তাকে ছেড়ে দেয়ার পর এই পজিশনে কাসেমিরোর মতো ফুটবলার আনতে পারেনি গ্যালাক্টিকোরা। যার মাশুল তারা দিচ্ছে চলমান মৌসুমে। ইতোমধ্যে স্প্যানিশ লা লিগায় শিরোপা ধরে রাখার মিশনে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সিলোনার চেয়ে বেশ খানিকটা পিছিয়ে পড়েছে কোচ কার্লো আনচেলোত্তির দল। রবিবার রাতেও ঘরের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে জিততে পারেনি রিয়াল।

সফরকারী রিয়াল সোসিয়েডাডের সাথে গোলশূন্য ড্র করেছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এর ফলে ১৮টি করে ম্যাচ শেষে বার্সার চেয়ে পাঁচ পয়েন্ট পিছিয়ে পড়েছে রিয়াল। বর্তমানে বার্সার ৪৭ পয়েন্টের বিপরীতে রিয়ালের ভান্ডারে জমা ৪২ পয়েন্ট। 
মূলত রিয়াল সোসিয়েডাডের গোলরক্ষক অ্যালেক্স রেমিরোর অসাধারণ দক্ষতায় জিততে পারেনি স্বাগতিক রিয়াল। জিরোনাকে বার্সিলোনা হারানোর পর পয়েন্টের ব্যবধান কমানোর জন্য রিয়ালের জয়ের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু রেমিরোর কাছে শেষ পর্যন্ত নতি স্বীকার করতে হয়েছে লস ব্লাঙ্কোসদের। ম্যাচে ব্রাজিলের উঠতি তারকা ভিনিসিয়াস জুনিয়রের তিনটি দারুণ সুযোগ রুখে দিয়ে নায়ক বনে যান রেমিরো। শুরু থেকেই কার্লো আনচেলোত্তির দল উজ্জীবিত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করতে থাকে। কিন্তু কোনভাবেই গোল আদায় করতে পারেনি। ইতোমধ্যেই বার্সিলোনার কাছে স্প্যানিশ সুপার কাপে হেরেছে রিয়াল। এরপর অবশ্য অতিরিক্ত সময়ের গোলে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে কোপা ডেল রের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে। 
ম্যাচের প্রথমার্ধে রিয়াল বেশ কিছু ভালো সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি। ব্রাজিলের দুই উইঙ্গার ভিনিসিয়াস ও রডরিগো বারবার প্রতিপক্ষের জন্য হুমকি হয়ে উঠেন। ভিনির কার্লিং শট অল্পের জন্য পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়। রডরিগোর ব্যাক হিল থেকে করিম বেঞ্জামার শট সহজেই রুখে দনে রেমিরো। এডুয়ার্ডো কামাভিনগাকে নিজের অবস্থান থেকে সরিয়ে লেফট-ব্যাক পজিশনে খেলান রিয়াল কোচ। ফরাসি ক্লাব রেনের সাবেক এই মিডফিল্ডার নিজেকে নতুন পজিশনে প্রমাণ করেছেন। বিরতির ঠিক আগে ভিনিসিয়াসের আরেকটি শট রুখে দিয়ে সোসিয়েডাডকে রক্ষা করেন রেমিরো।

বিরতির পর শুরুতেই ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের আরও একটি শট পা দিয়ে কোনমতে আটকে দেন রেমিরো। ফেডে ভালোভার্ডের শটও গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি। রিয়াল মাদ্রিদ গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া প্রথমবারের মতো পরীক্ষা দেন ম্যাচের ৬০ মিনিটে। জাপানিজ মিডফিল্ডার টাকেফুসা কুবো ডানদিক থেকে শট নিলে কোর্তোয়া সেটা সফলতার সঙ্গে ফিরিয়ে দেন। ম্যাচের শেষ দিকে ভিনিসিয়াসের আরেকটি প্রচেষ্টা ফের দক্ষতার সঙ্গে প্রতিহত করেন রেমিরো। শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্র নিয়ে রিয়াল সফর শেষ করে সোসিয়েডাড। 
ম্যাচ শেষে রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলোত্তি বলেন, এবারের মৌসুমে অন্যতম সেরা ম্যাচ আমরা খেলেছি। এটা সত্যি যে বার্সিলোনা দারুণ ছন্দে আছে। কিন্তু মৌসুমটা অনেক দীর্ঘ। জানুয়ারির সময়টা বেশ জটিল। কিন্তু প্রতিটি বিভাগেই রিয়ালের দারুণ উন্নতি হয়েছে। রক্ষণভাগ, আক্রমণভাগসহ শারীরিকভাবে নিজেদের দক্ষতা প্রমাণ করে চলেছে। খেলোয়াড়রা উন্নতি করতে শুরু করেছে। ইনজুরিতে থাকা খেলোয়াড়রা ফিরতে শুরু করেছে। এ কারণেই আগামী মাসগুলো নিয়ে আমি আত্মবিশ্বাসী। মৌসুমের দ্বিতীয় ভাগে ফিরে আসার অতীত ইতিহাস আছে আমাদের। এর আগে আরেক ম্যাচে ৭৪ মিনিটে বদলি খেলোয়াড় সাউল নিগুয়েজের একমাত্র গোলে ওসাসুনার বিরুদ্ধে ১-০ ব্যবধানে জিতেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।