ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

উপভোগ ও উন্মাদনা

বাবুল কান্তি দাশ

প্রকাশিত: ২০:৪৪, ৩০ নভেম্বর ২০২২

উপভোগ ও উন্মাদনা

শিল্পিত ফুটবল এবং সৌন্দর্য যেন একে অপরের পরিপূরক

শিল্পিত ফুটবল এবং সৌন্দর্য যেন একে অপরের পরিপূরক। আর শিল্পকলার সারকথাই তো সৌন্দর্য। যা দেখে মানুষ আনন্দিত হয়, যে সৌন্দর্য মুগ্ধ করে, বুকের মধ্যে হয় অন্যরকম অনুভূতি, নিরন্তর খোরাক যোগায় ভাবনার, সেটাই তো শিল্পকলার সারকথা। এ বিবেচনা থেকে বলা যায়, ফুটবল খেলা তো শিল্পকলারই নামান্তর। বরং এটি অন্য যে কোনো পারফরমিং আর্ট থেকে অনেক বেশি আকর্ষণীয়, অনেক বেশি উজ্জ্বল, অনেক বেশি আনন্দদায়ক। ফুটবল খেলা জীবন্ত ও প্রাণশক্তিতে ভরপুর তো বটেই, বিনোদন হিসেবেও অতুলনীয়। ফুটবলে সৌন্দর্য ও সৃজনশীলতা প্রকাশের ক্ষমতা ও দক্ষতা প্রশ্নাতীত।

চোখের পলকে তাৎক্ষণিকভাবে ফুটবল মাঠে শৈল্পিক সৌন্দর্য দিয়ে উপস্থিত দর্শকদের মুগ্ধ করা জাতশিল্পী ছাড়া সম্ভব নয়। তবে ফুটবলের আবেদন ও শিল্পকুশলতা ব্যতিক্রমধর্মী। ফুটবল খেলা এমন একটি শিল্পকলা, যার মাধ্যমে দর্শকদের সঙ্গে সরাসরি যোগসূত্র স্থাপিত হয়। খেলা চলার সময় প্রতিটি ক্ষণেই অনুভব করা যায় দর্শকদের আবেগ-উচ্ছ্বাস, আনন্দ-বেদনা, আশা-নিরাশা, ক্ষোভ-যন্ত্রণা, পাওয়া-না পাওয়ার আহাজারি। ২২ জন খেলোয়াড় ফুটবল মাঠের সবুজ গালিচায় যৌথ শিল্পকর্ম গড়ে তুলতে পারেন। পাশাপাশি যে কেউই আলাদা আলাদাভাবে নিজস্ব মুন্সিয়ানা ও সৃজনশীলতা দিয়ে দর্শক হৃদয়ে দাগ কাটতে পারেন। সেই নান্দনিক সৌন্দর্যের বিশ্ব মঞ্চ হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল।

প্রতি চার বছর অন্তর ফুটবলের এই মহাআসর বসে। তার জন্য অধীর আগ্রহে বসে থাকেন বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমী। ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ অস্থির বিশ্বে সমন্বয়-সম্প্রীতি, সৌহার্দ-সৌভ্রাতৃত্বের বার্তা নিয়ে শুরু হয়ে গেল ফুটবল বিশ্বকাপ। জাঁকজমকের মাধ্যমে দোহার আল বায়াত স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পর্দা উঠল বিশ্ব ফুটবলের মহাআসরের।  কাতারে বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে প্রচুর বিতর্ক থাকলেও, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাতিয়ে দিল তারা। দেওয়া হলো ঐক্যের বার্তা, দেওয়া হলো সাম্যের বার্তা। ফুটবলই যে দুনিয়াকে এক করতে পারে সেই বার্তা বারে বারে উঠে এলো।

কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে বিশ্ব এখন মাতোয়ারা। ফুটবলের যে অনুরণন প্রতি শিরায় শিরায় তা থাকুক আনন্দের চেতনায়। উন্মাদনা থাকুক উপভোগে, তা যেন জড়িয়ে না পড়ে বিবাদে। খেলা থাকুক মাঠে, হৃদয়ে থাকুক আনন্দের সুখানুভূতি। ফুটবলের প্রতিটি শট মনকে আলোড়িত করুক নান্দনিক সৌন্দর্যে। প্রত্যেক ফুটবলপ্রেমী আবেশিত হোক সৌহার্দ সম্প্রীতির বন্ধনে। বিশ্ব ফুটবলের আবেশ ছড়িয়ে পড়ুক আমাদের ক্রীড়াঙ্গনে আগামীর প্রত্যাশায়। জয় হোক ফুটবলের।

বোয়ালখালী, চট্টগ্রাম থেকে

monarchmart
monarchmart