ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

প্রিমিয়ার বিভাগ হকি লীগ শুরু শনিবার

প্রকাশিত: ০৫:৪৫, ২৭ এপ্রিল ২০১৮

প্রিমিয়ার বিভাগ হকি লীগ শুরু শনিবার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামীকাল শনিবার থেকে মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাচ্ছে ‘গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স প্রিমিয়ার বিভাগ হকি লীগ।’ লীগের বাজেট ২৫ লাখ টাকা। বিকেল সাড়ে ৪টায় মেরিনার ইয়াংস ক্লাব-ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ম্যাচ দিয়ে নীল টার্ফে গড়াবে খেলা। প্রধান অতিথি হিসেবে লীগের উদ্বোধন করবেন যুব ও ক্রীড়া সচিব আসাদুল ইসলাম। এই লীগে সব দল করলেও একমাত্র ঊষাই দলবদলে অংশগ্রহণ করেনি। এমনকি লীগেও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নিজেদের নাম নিবন্ধন করেনি। জানা গেছে, ঊষা নাকি মৌখিকভাবেই বাহফেকে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, তারা এই লীগে খেলবে না। তারপরও তারা ফেডারেশনের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে (এতে উপস্থিত ছিলেন বাহফের লীগ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মইনুজ্জামান পিলা, বাহফের সমন্বয় কর্মকর্তা মাহবুব এহসান রান, মতিঝিল থানার সহকারী কমিশনার মিশু বিশ্বাস, গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের উর্ধতন কর্মকর্তা নুরুজ্জামান খান প্রমুখ) সাংবাদিকদের কাছে যে প্রেস রিলিজ সরবরাহ করে তাতে দেখা যায় অংশগ্রহণকারী দলের মধ্যে ঊষার নামটিও রয়েছে। নিশ্চিত না হয়ে ঊষার নাম রাখার কারণ কী? ঊষা নাম নিবন্ধন না করলে (শেষ সময় আজ শুক্রবার রাত ৮টা পর্যন্ত) কী হবে? বাকি দলগুলো কী ওয়াকওভার পাবে? বাহফে জানায়Ñ গত লীগের রানার্সআপ দল এবং বড় দল হওয়াতে তারা ঊষাকে একটি সুযোগ দিয়েছেন লীগে খেলার। তারা শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন। যদি ঊষা না খেলে তাহলে বাইলজ অনুযায়ী তারা লীগ থেকে অবনমিত হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে নতুন করে খেলার সূচী তৈরি করা হবে। কাজেই ঊষার প্রতিপক্ষদের ওয়াকওভার পাবার প্রশ্ন আসবে না। যেখানে ঊষা নামই নিবন্ধন করেনি, সেখানে বাহফে কেন নিজের গরজে নাম অন্তর্ভুক্ত করেছে? এ প্রশ্নের কোন সদুত্তর দিতে পারেনি বাহফে। দলগুলো প্রথমপর্বে সরাসরি লীগ পদ্ধতিতে খেলবে। ঊষা বাদে বাকি দলগুলো হলো : ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাব, আবাহনী লিমিটেড, মোহামেডান এসসি, ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব, বাংলাদেশ এসসি, সোনালী ব্যাংক এসআরসি, ওয়ারী ক্লাব, সাধারণ বীমা ক্রীড়া সংস্থা, এ্যাজাক্স এসসি, আজাদ এসসি, পুলিশ এসসি এবং ভিক্টোরিয়া এসসি)। প্রথমপর্ব শেষে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়া পাঁচ দল খেলবে সুপার ফাইভ পর্বে। প্রথমপর্বে অর্জিত পয়েন্ট যোগ করে সুপার ফাইভ লীগের স্থান নির্ধারণ করা হবে। প্রথমপর্বের গোলসংখ্যা সুপার ফাইভে যোগ হবে না। শুধু সুপার ফাইভের পক্ষে এবং বিপক্ষে গোল পার্থক্য স্থান নির্ধারণের জন্য ধরা হবে (চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দল ব্যতীত)। প্রথমপর্ব ও সুপার ফাইভ খেলা শেষে দুই লীগের সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দলকে লীগ চ্যাম্পিয়ন এবং দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দলকে রানার্সআপ হিসেবে ঘোষণা করা হবে। তবে কেবল চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দলের ক্ষেত্রে পয়েন্ট সমান হলে গোল পার্থক্য ধরা হবে না। সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দলের সংখ্যা অধিক হলে প্লে অফ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। প্লে অব ম্যাচ ড্র হলে শূট আউটের মাধ্যমে খেলার ফল নিষ্পত্তি করা হবে। চ্যাম্পিয়ন দল পুরস্কার হিসেবে পাবে এক লাখ টাকা। রানার্সআপ দল পাবে ৫০ হাজার টাকা। পরিচ্ছন্ন খেলার জন্য নির্বাচিত দল পাবে ফেয়ার প্লে ট্রফি। এছাড়া লীগের খেলোয়াড় এবং সর্বোচ্চ গোলদাতা পাবেন ১০ হাজার টাকা করে পুরস্কার। তবে শেষের দুটি পুরস্কারের অর্থমূল্য বাহফে বাড়ানোর চিন্তা-ভাবনা করছে। ১৯৯৮ সাল থেকে শুরু হওয়া প্রিমিয়ার বিভাগ হকি লীগে এ পর্যন্ত আবাহনী লিমিটেড সর্বোচ্চ ৫ বার শিরোপা জিতেছে। মোহামেডান এবং ঊষা জিতেছে সমান চারবার করে। মেরিনার জিতেছে ১ বার।
monarchmart
monarchmart