মঙ্গলবার ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

পিসিবিকে পাশে পাচ্ছে বিসিবি

  • অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া না আসায় ক্ষোভ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশে ২৭ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলবে না অস্ট্রেলিয়া অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট দল। নিরাপত্তার অযুহাত দিয়ে এ ঘোষণা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) দেয়ার পর চটেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের ওপর ক্ষোভ ঝেড়েছেন শাহরিয়ার। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) পাশে পাচ্ছে পিসিবিকে। শাহরিয়ার এমনও বলেন, অস্ট্রেলিয়াকে ক্ষতিপূরণ দেয়া উচিত।

শাহরিয়ার খান অস্ট্রেলিয়ার সমালোচনাও করেছেন। বলেছেন, ‘যদি কোন দল কোন নিশ্চিত টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেয়, তাহলে স্বাগতিকদের ক্ষতিপূরণ দেয়া বাবদ তাদের অর্থ জরিমানার আওতায় আনা উচিত। কারণ, স্বাগতিক দেশ অনেক পরিশ্রম ও অর্থ খরচ করে একটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়।’ অস্ট্রেলিয়া আসছে না। তবে প্রতিবেশী দেশ নিউজিল্যান্ড ঠিকই খেলবে যুব বিশ্বকাপ। নিজেরা নাম প্রত্যাহার করার পর স্বাভাবিকভাবেই সঙ্গী খুঁজছে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু কোন দলই এখন পর্যন্ত অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপ না খেলার কথা বলছে না। উল্টো অস্ট্রেলিয়াকে বাদ দিয়ে আয়ারল্যান্ডকে যুক্ত করেছে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি।

সবার চিন্তা ছিল, অস্ট্রেলিয়া না আসাতে তাদের প্রতিবেশী দেশ নিউজিল্যান্ডও হয়ত বেঁকে বসতে পারে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ডের সিইও ডেভিড হোয়াইট সেই সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন। জানিয়ে দিয়েছেন তারা অস্ট্রেলিয়ার পথে হাঁটছে না। সিডনি মর্নিং হেরাল্ডে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ কথা জানা গেছে। ডেভিড হোয়াইট জানিয়েছেন, তারা টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার নয় বরং কিভাবে ঝুঁকি কমানো যায় সেদিকটিতে খেয়াল রাখছেন। আগামী ২৭ জানুয়ারি থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে বরং কিউই তরুণরা এখন প্রস্তুতি নিয়েই ভাবছেন। হোয়াইট বলেন, ‘আমরা প্রতিদিনই আইসিসি ও বাংলাদশের নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর সঙ্গে এ নিয়ে কাজ করছি। প্রতিদিনই তাদের সঙ্গে মিলে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। আমরা এই পর্যায়ে নিরাপত্তা নিয়ে খুব বেশি ভাবছি না। কারণ, সব দল যেসব ভেন্যুতে থাকবে; তার সবই পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরাপত্তা দেবে।’ অবশ্য বাংলাদেশে নিরাপত্তা নিয়ে নতুন করে ভাবছে ইংল্যান্ড অনুর্ধ-১৯ দল। নিরাপত্তার বিষয়টি সামনে এনে টুর্নামেন্ট থেকে অস্ট্রেলিয়া নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে ভাবছে ইংল্যান্ডও। মঙ্গলবার ইংল্যান্ড অনুর্ধ-১৯ দলের ক্রিকেটারদের বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি জানিয়ে ই-মেইল প্রেরণ করেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। এছাড়া বোর্ডের নিরাপত্তা উপদেষ্টা রেগ ডিকাসন নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে বাংলাদেশে আসছেন। ইংল্যান্ডের প্রভাবশালী দৈনিক টেলিগ্রাফে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দলের বাংলাদেশ সফর ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে এক ঝাঁক বিদেশী ক্রিকেটারের নিরাপদে খেলে যাওয়ার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ: