ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১

নির্বাচনের ডামাডোলে প্রিমিয়ার হকির খবর নেই!

প্রকাশিত: ০৬:৪৪, ২৩ জুন ২০১৭

নির্বাচনের ডামাডোলে প্রিমিয়ার হকির খবর নেই!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের হকি অঙ্গনে এখন সবচেয়ে বেশি আলেচিত এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে এশিয়া কাপ হকির আসর। দীর্ঘ প্রায় ৩২ বছর পর আগামী ১২ অক্টোবর থেকে ঢাকায় আবারও অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এশিয়ার হকির সবচেয়ে আকর্ষণীয় এই আসরটি। উল্লেখ্য, আসরটি অনুষ্ঠিত হবে ফ্লাডলাইটে। মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে ফ্লাডলাইট স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে দ্রুতগতিতে। এশিয়া কাপ ছাড়াও বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের (বাহফে) সামনে আরও একটি ইস্যু আছে। সেটি হকির নির্বাচন। এশিয়া কাপ এবং নির্বাচনÑ এই দুটি নিয়েই তাদের যত মাথাব্যথা এবং দৌড়ঝাঁপ। তবে দুঃখজনক হলেও সত্যÑ এগুলো নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকার দরুন তারা যেন ভুলেই গেছেন ঘরোয়া হকির সবচেয়ে বড় আসর হকি প্রিমিয়ার লীগের বিষয়টি। অপ্রিয় হলেও সত্যিÑ প্রায় বছরখানেক পেরিয়ে গেলেও নীল টার্ফে এখনও গড়ায়নি প্রিমিয়ার হকি লীগের আসর। তবে বাহফের ক্যালেন্ডার মোতাবেক এশিয়া কাপ শেষ করেই লীগ খেলতে নামার কথা হকি খেলোয়াড়দের। বর্তমান কমিটি দায়িত্ব গ্রহণ করে ২০১৩ সালের ২১ আগস্ট প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে। যাদের মেয়াদ এখন শেষের পথে। আবারও ক্ষমতায় যেতে মরিয়া বাহফের বিদায়ী কমিটি। কর্তাব্যক্তিরা মহাব্যস্ত নির্বাচন নিয়ে। সব প্রার্থীই ভোটারদের কাছে তুলে ধরছেন নিজেদের পরিকল্পনা। প্রার্থীদের প্রচারণায় মুখর এখন ফেডারেশন। আগামী ৩০ জুলাই শেষ হচ্ছে বর্তমান কমিটির মেয়াদ। এর ৯০ দিনের মধ্যেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় যে পদটি হলো সাধারণ সম্পাদকের। এই পদ নিয়ে লড়াইটা হতে পারে ত্রিমুখী। বর্তমান সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত আবদুর রশিদ শিকদার ও সাজেদ এ আদেল। তবে হকিবোদ্ধাদের মতেÑ লড়াইটা ত্রিমুখী না হয়ে দ্বিমুখী হবার সম্ভাবনাই বেশি। এক্ষেত্রে লড়াইটা হবে খাজা রহমতউল্লাহ বনাম আব্দুর রশিদ শিকদারের মধ্যে। বাহফের মোট কাউন্সিলর ৮৬, যাদের ভোটেই নির্বাচিত হবে আগামীর সাধারণ সম্পাদক। প্রতিদ্বন্দ্বিতা নয় হকির উন্নয়নে সবাইকে নিয়ে কাজ করার কথাই জানান খাজা। প্রিমিয়ার লীগের প্রসঙ্গ আনতেই পূর্বের মতোই জানালেন, এশিয়া কাপের পরই আয়োজন করা হবে প্রিমিয়ার লীগ। অথচ এশিয়া কাপের প্রস্তুতি নিতেই প্রায় চার মাসের মতো সময় নিচ্ছে বাহফে। এ সময়ে এশিয়া কাপের আগে নিশ্চিন্তে প্রিমিয়ার লীগ আয়োজন করা যেত। গত বছর ১ জুলাই শেষ হয়েছিল লীগ। আরেক জুলাই এসে যাচ্ছে অথচ এখনও লীগ শুরুর খবর নেই। খেলোয়াড়দের রুটি-রুজির প্রধান উৎস এই লীগের দলবদলই এখনও হয়নি। এক্ষেত্রে বাহফের যুক্তিÑ ক্লাবগুলোই নাকি চাইছে না এশিয়া কাপের আগে প্রিমিয়ার লীগে খেলতে। আসলেই কি তাই?
×