ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বাজার বহুমুখীকরণে সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:২৯, ২১ মে ২০২৪

বাজার বহুমুখীকরণে সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

বিজিএমইএর একটি প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি এস এম মান্নানের (কচি) নেতৃত্বে বিজিএমইএর একটি প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

বিজিএমইএর প্রতিনিধি দলে ছিলেন সিনিয়র সহ-সভাপতি খন্দকার রফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি আরশাদ জামাল (দীপু), সহ-সভাপতি মিরান আলী, সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ হিল রাকিব, পরিচালক মো. ইমরানুর রহমান, পরিচালক মোহাম্মদ সোহেল সাদাত, পরিচালক শামস মাহমুদ, পরিচালক রাজীব চৌধুরী, পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল, পরিচালক শেহরিন সালাম ঐশী, পরিচালক মো. নুরুল ইসলাম ও পরিচালক সাইফুদ্দিন সিদ্দিকী সাগর।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে পণ্য বহুমুখীকরণ ও নতুন নতুন বাজারে পোশাক রপ্তানি কিভাবে বৃদ্ধি করা যায় সেই বিষয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে বিজিএমইএ সভাপতি ২০৩০ সাল নাগাদ তৈরি পোশাক খাত থেকে ১০০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয়ের লক্ষ্য অর্জনে বাজার বহুমুখীকরণ ও নতুন নতুন পন্যে রপ্তানি সম্প্রসারণের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

বিগত ১৫ বছরে সরকারের নীতি সহায়তার ফলে নতুন বাজারে পোশাক রপ্তানি ৮৪৭ মিলিয়ন ডলার থেকে ৮,৩৭০ মিলিয়ন ডলার হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। নতুন বাজারে রপ্তানি প্রবৃদ্ধির ধারা আরও বেগবান করতে বিজিএমইএ তিনি বেশকিছু বাজার, বিশেষ করে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ত ও আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোতে রপ্তানি বাড়াতে সেখানে আয়োজিত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মেলায় অংশগ্রহণ, ক্রেতাদের সঙ্গে নেটওয়ারিকং, রোড-শো আয়োজনে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট দূতাবাসগুলোর সহযোগিতা কামনা করেন।

সেই সঙ্গে তিনি এসকল সম্ভাবনাময় বাজারগুলোর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় ও আঞ্চলিক মুক্তবাণিজ্য চুক্তির বিষয়টি তুলে ধরেন। বৈঠকে দেশের রপ্তানি বাণিজ্যে এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের সম্ভাব্য প্রভাব এবং পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমাদের প্রধান রপ্তানি বাজারগুলোতে শুল্কমুক্ত সুবিধাগুলো অব্যাহত রাখতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা কামনা করেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী, দেশের আর্থা-সামাজিক উন্নয়ন ও নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে পোশাক খাতের অব্যাহত প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে নতুন নতুন বাজার তৈরি ও পণ্য বহুমুখীকরণের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। বিশেষকরে আফ্রিকা, দক্ষিণ আমেরিকা ও আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোতে বাজার সম্প্রসারণের জন্য তাগিদ দেন এবং এই বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। সেই সঙ্গে তিনি এসব সম্ভাবনাময় বাজারে শুল্ক বাধা দূর করার জন্য বিভিন্ন দেশের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে অবহিত করেন। 
মন্ত্রী বিজিএমইএ প্রতিনিধি দলকে তার মন্ত্রণালয় থেকে পোশাক শিল্পকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

×