ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

ফিঞ্চের কণ্ঠে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়

প্রকাশিত: ১১:৫৭, ২৪ মার্চ ২০১৯

ফিঞ্চের কণ্ঠে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভারতে ২-০ ব্যবধানে টি২০ সিরিজ জয়ের পর ওয়ানডেতে পিছিয়ে পড়েও ৩-২এ সাফল্যের ধারা আমিরাতেও অব্যাহত রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। শারজায় প্রথম ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে এ্যারন ফিঞ্চের দল। সামনে বিশ্বকাপ। স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নারদের বহুল আলোচিত সেই বল ‘টেম্পারিং’ কা-ের পর চ্যাম্পিয়নদের এমন পারফর্মেন্স আশা জাগানিয়া। দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানো অসিরা এ নিয়ে টানা চার ওয়ানডে জিতল। ফর্মে ফেরা সেঞ্চুরিতে ম্যাচসেরা হয়েছেন অধিনায়ক ফিঞ্চ (১১৬)। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে আজই। জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে অস্ট্রেলীয় সেনাপতি এগিয়ে যেতে বেশ আত্মবিশ্বাসী। অন্যদিকে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া শোয়েব মালিকের পাকিস্তান। একই ভেন্যু শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় বিকেল পাঁচটায়। ১৩৫ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় ১১৬ রানের অনবদ্য ইনিংস উপহার দিয়ে ম্যাচসেরার পুরস্কার পাওয়া ফিঞ্চ বলেন, ‘এভাবে রান চেজ করা আনন্দদায়ক। শুরুতে একটু সমস্যা হলেও পরের দিকে আমরা ভাল ব্যাটিং করেছি। বিশ্বকাপ সামনে রেখে টানা জয় আমাদের জন্য বিশেষ কিছু। এ ধারা অব্যাহত রেখে সিরিজে আরও এগিয়ে যেতে চাই।’ শারজায় পরশু হারিস সোহেলের সেঞ্চুরি (১১৫ বলে ১০১*) এবং শান মাসুদ (৪০) ও উমর আকমলের (৪৮) কার্যকর দুটি ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ২৮০ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। জবাবে ২ উইকেট হারিয়ে এক ওভার হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চের সেঞ্চুরি ছাড়া ৯১ রানে অপরাজিত থাকেন শন মার্শ। ওপেনিংয়ে উসমান খাজা আউট হন ২৪ রান করে। ভারতের মাটিতে ভারতকে হারানোর নায়ক খাজা রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। আর এদিন ফর্মে ফিরেছেন ফিঞ্চ। আইপিএল খেলে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিচ্ছেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে প্রত্যাবর্তনের অপেক্ষায় থাকা তুখোড় ওয়ার্নারও। স্বভাবতই মধুর সমস্যায় পড়তে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়নদের ওপেনিংয়ে কে কার সঙ্গী হবেন? ফিঞ্চ অবশ্য সমাধান দিয়েছেন, ‘যদি আমাকে ছয়ে ব্যাটিং করতে হয়, আমি খুবই স্বচ্ছন্দভাবে সেটা করতে রাজি আছি। যদি এটা টপঅর্ডারে তিন-চারেও হয় কোন সমস্যা নেই। ব্যক্তিগত পারফর্ম দিয়ে আমাদের এই দলকে বোঝা যাবে না। সবকিছুই আপনাকে দলের জন্য করতে হবে।’ ফিঞ্চের মতে, দলের ভাল হবে এমন সবকিছুই করতে রাজি। তিনি আরও যোগ করেন, ‘যদি কেউ মনে করে, পাঁচে নামলে আমি সেঞ্চুরি পাব না। আমি ভাল করার সুযোগ পাব না। তবে সেরাটা দিতে পারবে না। আমি দল নিয়ে খুবই খুশি। মাঝে মাঝে ব্যাটিং করতে গেলে নিজের টেকনিক নিয়ে ধন্দ লেগে যায়। অতীতে আমি যেভাবে ভাল করেছি সেটা আবার খুঁজে বের করতে হবে।’ উল্লেখ্য, ২০১৫ বিশ্বকাপে ওয়ার্নারের সঙ্গে জুটি বেঁধে দারুণ পারফর্মেন্স করেছিলেন ফিঞ্চ। গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিংয়ে জড়িয়ে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন স্মিথ-ওয়ার্নার এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফট। মাঠ ও মাঠের বাইরে বেসামাল অস্ট্রেলিয়া হারতে থাকে ম্যাচের পর ম্যাচ, সিরিজের পর সিরিজ। এমনকি নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ঘরের মাটিতে ভারতের কাছে টেস্ট-ওয়ানডে দুটি সিরিজ খোয়ায় তারা। অদম্য অসিরা ধৈর্যের রেজাল্ট পায় সদ্য সমাপ্ত ভারত সফরে। সেখানে টি২০তে বিরাট কোহলিদের ‘হোয়াইটওয়াশ’ করার পর টানা দুই হারের পর তিনজয়ে সিরিজ পকেটে পোরে ফিঞ্চের দল। বিশ্বকাপের আগে আমিরাতের পাকিস্তানের সঙ্গে এটাই তাদের শেষ আন্তর্জাতিক সিরিজ। অন্যদিকে এখানেই এশিয়া কাপে চরম ভরাডুবি হওয়া আনপ্রেডিক্টেবল দলটি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও ছিল ব্যর্থ। বর্ণবাদী মন্তব্য করে সমালোচিত সরফরাজ আহমেদের স্থলে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শোয়েব মালিক। পয়মন্ত আমিরাতে পাকিস্তান যে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।