বৃহস্পতিবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

চালাকি করে ফাঁসলেন রামোস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কথায় আছে- অতি চালাকের গলায় দড়ি। বর্তমান ফুটবল বিশ্বের অন্যতম সেরা ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের ক্ষেত্রে এমনই হয়েছে। ইচ্ছাকৃতভাবে হলুদ কার্ড দেখায় উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের পরবর্তী দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ হয়েছেন তিনি।

ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের এই লড়াইয়ের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে ডাচ ক্লাব আয়াক্সের ফরোয়ার্ড ক্যাসপার ডলবার্গকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেছিলেন স্পেন ও রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি আয়াক্সের মাঠ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছে রিয়াল। ওই ম্যাচের ৮৯ মিনিটে হলুদ কার্ড দেখেন রামোস। যে কারণে পরপর দুই ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখায় নিয়মের মধ্যে থেকেই দ্বিতীয় লেগের ম্যাচ থেকে নিষিদ্ধ হন তিনি। যার ফলে রিয়াল শেষ আটের টিকেট পেলে ওই ম্যাচে ফিরতে পারতেন রামোস। কিন্তু ম্যাচ শেষে রামোস নিজেই স্বীকার করেছিলেন ইচ্ছাকৃতভাবে হলুদ কার্ড দেখার কথা। ব্যাস, এতেই ফেঁসে গেছেন তিনি। নিজের ইচ্ছায় হলুদ কার্ড দেখায় কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে রিয়াল অধিনায়ককে নিষিদ্ধ করেছে উয়েফা। খেলায় যেমন পারঙ্গম, তেমনি মাথা গরমেও ওস্তাদ রামোস। একই কা- করে ফের আলোচনায় এসেছেন ৩২ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার। আয়াক্সের বিরুদ্ধে ম্যাচ শেষে রামোস নিজেই জানিয়েছিলেন, ম্যাচের ফলের দিকে তাকালে এটা বলা ভুল হবে যে আমি ইচ্ছে করে কার্ড দেখিনি। এটা প্রতিপক্ষকে খাটো করা নয় কিংবা এও ভাবা নয় যে আমরা ছিটকে গেছি। তবে ফুটবলে মাঝে মাঝে অনেক কঠিন সিদ্ধান্তও নিতে হয়। রামোসের এমন মন্তব্যের পরই ক্ষেপে যায় উয়েফা। ইচ্ছাকৃতভাবে কার্ড দেখার ঘটনাটিকে তারা খেলার জন্য অপমানজনক হিসেবে যথাযথ তদন্ত করে ঘটনার। যেখানে দোষী প্রমাণিত হওয়ায় দুই হলুদ কার্ডের জন্য এক ম্যাচ এবং বাড়তি আরও এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে রিয়াল অধিনায়ককে। এর ফলে রিয়াল মাদ্রিদ কোয়ার্টার ফাইনালে গেলেও প্রথম লেগের ম্যাচে খেলতে পারবেন না রামোস। রামোসকে নিষিদ্ধ করা প্রসঙ্গে বিজ্ঞপ্তিতে উয়েফা জানায়, আমাদের শৃঙ্খলা পর্যালোচনা কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে সার্জিও রামোসকে উয়েফা প্রতিযোগিতার পরবর্তী দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হলো। এর কারণ হলো ইচ্ছাকৃতভাবে হলুদ কার্ড দেখা। এই দুই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞার একটি হলো দুই ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখার কারণে।

সঙ্গত কারণেই উয়েফার এই বিষয়টি একদম পছন্দ হয়নি। তাদের কন্ট্রোল, এথিক্স ও ডিসিপ্লিনারি বডি বিবৃতি দিয়ে রামোসের নামের পাশে ঝুলিয়ে দিয়েছে বাড়তি আরেক ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা। আয়াক্সের বিরুদ্ধে এর আগেও একই কারণে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন রামোস। ২০১০-১১ মৌসুমে সাবেক কোচ জোশে মরিনহোর নির্দেশে ইচ্ছাকৃত হলুদ কার্ড দেখেছিলেন রামোস ও রিয়ালের সাবেক মিডফিল্ডার জাবি এ্যালানসো।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু