ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ফরিদপুর-১ ॥ এমপি আবদুর রহমানের মনোনয়ন বিরোধী ৪ নেতা

প্রকাশিত: ০৭:১৮, ২৩ অক্টোবর ২০১৮

ফরিদপুর-১ ॥  এমপি আবদুর রহমানের মনোনয়ন বিরোধী ৪ নেতা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ২২ অক্টোবর ॥ ফরিদপুর-১ (বোয়ালমারী, আলফাডাঙ্গা ও মধুখালী ) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবদুর রহমান। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় তিনি দলীয় মনোনয়ন চাইবেন। আওয়ামী লীগের নিশ্চিত জয় এই আসনে তিনি ছাড়া আরও কমপক্ষে ১০ জন মনোনয়ন চাইছেন। বিভিন্ন জরিপে, এই আসনের নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন এবং এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নসহ সার্বিক বিচারের বর্তমান এমপির পুনরায় মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। এই সম্ভাবনা দেখে এবং মাঠে এককভাবে টিকতে না পেরে বর্তমান সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে একজোট বেঁধেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশী অপর চার নেতা। তারা বোয়ালমারী অডিটোরিয়াম হলরুমে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভার নামে বর্তমান এমপি আবদুর রহমানের মনোনয়নের বিরোধিতা করেছেন। সম্মিলিতভাবে এই চার নেতা আবদুর রহমানকে মনোনয়ন না দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। আবদুর রহমান অনুসারীরা দাবি করেন, দীর্ঘদিন ধরে আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাওয়া গেছে তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে এই বর্ধিত সভায়। শনিবার বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়ার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের একাংশের বিশেষ বর্ধিত সভায় আবদুর রহমান হঠাৎ জড়ো হন সাবেক সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য কাজী সিরাজুল ইসলাম, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদার, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি আরিফুর রহমান দোলন। এরা সবাই আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। বোয়ালমারী উপজেলা যুবলীগের সদস্য ওবায়দুর রহমান মৃধা বলেন, ফরিদপুর-১ নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য আবদুর রহমান। এখনও সংসদ বহাল, রবিবার বিকেলে এ সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু হয়েছে। নির্বাচনের তফসিল এখনও ঘোষিত হয়নি। এমন একটি মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রীকে জানান দিতে মুশা মিয়ার নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের দ্বার উন্মোচন করতে একত্রে মিলিত হয়েছিল। তাদের ওই ষড়যন্ত্র কোন কাজে আসবে না। বোয়ালমারী পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক আহাদুল করিম বলেন, দল বদলকারী ষড়যন্ত্রকারীদের ওই পদক্ষেপ সরকারের উন্নয়ন এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকেই আঘাত করেছে। মুশা মিয়ার ডাকা আওয়ামী লীগের এক অংশের বর্ধিত সভায় যারা যোগ দিয়েছিলেন তাদের অনেকেই বোয়ালমারী উপজেলার বাইরে থেকে আসা। যা দলের গঠনতন্ত্র পরিপন্থি। পক্ষান্তরে উপজেলা আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ-পদবীধারী নেতাকর্মীদের বর্ধিত সভার দাওয়াত পর্যন্ত দেয়া হয়নি। সেখানে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় সহযোগী সংগঠনের কতিপয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কিভাবে? বোয়ালমারী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ দাঊদুজ্জামান বলেন, স্বাধীনতার ৪১ বছরে যে উন্নয়ন হয়নি আবদুর রহমান এমপি হয়ে ১০ বছরে তার দ্বিগুণ উন্নয়ন করেছেন। বর্তমান এমপি আবার মনোনয়ন পাবেন এই সম্ভাবনা দেখেই অন্যদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। বোয়ালমারী উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শরীফ সেলিমুজ্জামান লিটু জানান, ওনারা দীর্ঘদিন নিজেদের মনোনয়ন কনফার্ম বলে কর্মীদের ভুল বুঝিয়ে জনজোয়ারকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার ব্যর্থ চেষ্টা করেছেন। যখন মনোনয়ন পাচ্ছেন না, বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন, তখন সকলে এক হয়ে মাঠে নেমেছেন। বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মৃধা পিকুল বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএম মোশাররফ হোসেন বর্ধিত সভা ডেকেছেন, অথচ আমি সাধারণ সম্পাদক হয়েও কিছু জানি না। বর্ধিত সভা সাধারণ সম্পাদক ডাকে। উপজেলা আওয়ামী লীগের ৬৯ জন সদস্যের মধ্যে ৪০ জনকেই দাওয়াত দেয়া হয়নি। আসলে এইসব মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বুঝে গেছেন আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন পাচ্ছেন আবদুর রহমান। এজন্য তারা আবদুর রহমানের মনোনয়ন ঠেকাতে এক জোট হয়ে বর্ধিত সভার নামে একটি নাটক মঞ্চস্থ করেছেন। এদিকে বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের বিশেষ বর্ধিত সভায় ফরিদপুর-১ আসনের এমপি আবদুর রহমানকে নিয়ে ষড়যন্ত্র এবং ষড়যন্ত্রকারীরা যে বক্তব্য দিয়েছেন তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন মধুখালী উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ। রবিবার বিকেলে মধুখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মির্জা মনিরুজ্জামান বাচ্চুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত যৌথ বর্ধিত সভায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়।
monarchmart
monarchmart