৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

করোনা রুখতে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান॥ গাঙ্গুলি

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০২০, ১২:০৯ পি. এম.
করোনা রুখতে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান॥  গাঙ্গুলি

অনলাইন ডেস্ক ॥ কেউ কেউ অসচেতনতার কারণে, আবার কেউ কেউ অতি আত্মবিশ্বাস দেখিয়ে বলছেন, করোনাভাইরাসে কিছুই হবে না তাদের। এমন ধারণা পোষণ করা মানুষদের রীতিমতো এক হাত নিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি।

তার মতে, করোনাভাইরাস থেকে নিরাপদ নয় কেউই। কারণ কেউই জানে না, এ ভাইরাস কীভাবে প্রবেশ করে মানুষের শরীরে কিংবা এর চিকিৎসাই বা কী?- তবে এটি রুখতে একটি সমাধান ঠিক জানা রয়েছে গাঙ্গুলির। সেটিই তিনি জানিয়েছেন এক ভিডিওবার্তার মাধ্যমে।

সবাইকে সচেতনতার সঙ্গে ঘরে অবস্থান করার আহ্বান জানিয়ে গাঙ্গুলি বলেছেন, ‘সারাবিশ্বের সবার উদ্দেশ্যে আমি বলতে চাই, বর্তমান সময়টা কঠিন এক পরীক্ষার সময়। তবে আমরা এর বিরুদ্ধে লড়াই করে যাব। কেন্দ্রীয় সরকার, প্রাদেশিক সরকার, স্বাস্থ্যসংস্থার নির্দেশনাগুলো মেনে চলুন। তারা যেমনটা বলছে, ঘরে থাকা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ, আইসোলেশন অনেক বেশি জরুরি। নিরাপদ থাকুক, সুস্থ্য থাকুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আর সবচেয়ে বড় কথা হলো, সচেতন হন, কোনোকিছু নিয়ে বেশি চিন্তা করবেন না। ভাববেন না যে, আপনি করোনায় আক্রান্ত হবেন না। কারণ এটা যখন আসবে তখন আপনার কোথাও যাওয়ার উপায় থাকবে না।’

এসময় করোনা রুখতে একমাত্র সমাধানের কথা জানিয়ে গাঙ্গুলি আরও বলেন, ‘আইসোলেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং গৃহবন্দি অবস্থায়ই থাকুন। আমি জানি এটা খুবই কঠিন, মোটেও সহজ নয়। কিন্তু করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের এটাই একমাত্র সমাধান। কারণ কেউ জানে না, এটা কীভাবে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে এবং কেউই জানে না এটা চিকিৎসা কী! তাই সচেতন হন, ঘরের ভেতরেই থাকুন। ভালো দিন আসবে, আমরা লড়াই করে যাব।’

এদিকে সবাইকে ঘরের মধ্যে রাখার জন্য ২১ দিনের জন্য লকডাউন করে দেয়া হয়েছে পুরো ভারত। ফলে খালি হয়ে গেছে ব্যস্ত শহরের চেনা পথ-ঘাট। দুরদুরান্তেও দেখা মেলে না কোনো মানুষের। নিজ শহরের এই চিত্র মেনে নিতে বেশ কষ্টই হচ্ছে গাঙ্গুলির।

তবে সবার ভালোর জন্য এটিকেও স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। টুইটারে জনমানবহীন কলকাতা শহরের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে গাঙ্গুলি লিখেছেন, ‘কখনও ভাবিনি, আমার শহরকে এই অবস্থায় দেখব। সবাই নিরাপদ থাকুন। পরিস্থিত শীঘ্রই বদলে যাবে। সবার জন্য ভালোবাসা।’

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০২০, ১২:০৯ পি. এম.

২৫/০৩/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: