ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

গোলোৎসবে মিশন শুরু জার্মানির

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:০৩, ১৫ জুন ২০২৪

গোলোৎসবে মিশন শুরু জার্মানির

মিউনিখে গোলোৎসব করে শুরুর পর স্বাগতিক জার্মান ফুটবলারদের আনন্দ

দাপুটে জয় দিয়েই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের (ইউরো) অভিযান শুরু করল জার্মানি। শুক্রবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে নিয়ে রীতিমতো ছেলে-খেলাই খেলেছে স্বাগতিক দল। শেষ পর্যন্ত তিনবারের ইউরোজয়ী জার্মানি - গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া স্কটল্যান্ডকে। সেইসঙ্গে ইউরোর ইতিহাসে স্বাগতিক দেশ হিসেবে উদ্বোধনী ম্যাচে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বড় জয়টা তুলে নিয়েছে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

এবারের ইউরোর আয়োজক দেশ জার্মানি। স্বাভাবিকভাবেই ফেভারিটের ট্যাগ গায়ে মাখানো ক্রুস-মুসালিয়াদের গায়ে। শুধু স্বাগতিক দেশ হিসেবেই নয় বরং অভিজ্ঞ এবং তারুণ্যের মিশেলে জার্মানির এই দলটাও দুর্দান্ত। সেই প্রমাণ টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচেই দিয়ে রাখল জুলিয়ান নাগেলসম্যানের শিষ্যরা। শুক্রবার অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচ শুরুর মাত্র ১০ মিনিটেই স্কটল্যান্ডের জালে প্রথমবার বল জড়ায় জার্মানি। ইয়োশুয়া কিমিচের শট থেকে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন ফ্লোরিয়ান রিটজ। তার মিনিট পরই গোল ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিক সমর্থকদের উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসান দুর্দান্ত ফর্মে থাকা জামাল মুসিয়ালা। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে ম্যাচের ফলাফল দাঁড়ায় -০। রায়ান পার্তুস ফাউল বক্সের মধ্যে ফাউল করে বসেন জার্মান অধিনায়কন গুন্দোয়ানকে। ফলে পেনাল্টির পাশাপাশি রায়ান পর্তুসকে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয়। আর ভিএআরের সাহায্যে পাওয়া পেনাল্টিতে গোল করেন কাই হার্ভাটজ। ফলে গোল হজম করেই বিরতিতে যায় স্কটল্যান্ড।

বিরতির পরও নিজেদের দাপট অব্যাহত রাখে জার্মানি। এই সময়ে স্কটল্যান্ডের জালে আরও দুইবার বল জড়ান তারা। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৮ মিনিটে নিকোলাস ফুলক্রুগ আর অতিরিক্ত সময়ে (৯০+) স্কটল্যান্ডের জালে শেষ ফেরেকটি ঠুকে দেন এমরি কান। এর আগে ৮৭ মিনিটে অবশ্য একটি আত্মঘাতী গোল করে বসে জার্মানির অ্যান্টোনিও রুডিগার। ফলে - ব্যবধানের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে নাগালসম্যানের শিষ্যরা। সেইসঙ্গে দীর্ঘ ১৪ বছরের মধ্যে এই প্রথম প্রতিপক্ষের গোল হজম করার লজ্জাজনক রেকর্ড গড়েছে স্কটল্যান্ড।

×