ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

১২০ বছরের অপেক্ষার পর সাফল্য

বেয়ার লেভারকুসেনের প্রথম শিরোপা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৩২, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

বেয়ার লেভারকুসেনের প্রথম শিরোপা

শিরোপা হাতে ফুটবলারদের মাঝে লেভারকুসেনের কোচ জাবি অ্যালানসো

নিজেদের ক্লাব প্রতিষ্ঠার ১২০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো জার্মান বুন্দেসলিগার শিরোপা জয় করেছে বেয়ার লেভারকুসেন। রবিবার রাতে ওয়েডার ব্রেমেনকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে পাঁচ ম্যাচ হাতে রেখেই এ কৃতিত্ব দেখিয়েছে দলটি। এর ফলে বুন্দেসলিগার ইতিহাসের সবচেয়ে সফল দল বায়ার্ন মিউনিখের টানা ১১ বছরের শিরোপা জয়ের আধিপত্য ভাঙতে সক্ষম হয়েছে লেভারকুসেন। 
পুরো মৌসুমে দারুণ ফর্মে থাকা লেভারকুসেন এখন পর্যন্ত লিগে অপরাজিত আছে। শিরোপা নিশ্চিত হওয়ার রাতে নিজেদের মাঠ বে অ্যারানায় ফ্লোরিয়ান রিটজ হ্যাটট্রিক করেন। একটি করে গোল করেন ভিক্টর বোনিফেস ও গ্রানিট জাকা। মূলত সাবেক স্প্যানিশ মিডফিল্ডার জাবি অ্যালানসো কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই আমূলে পাল্টে গেছে দলটি।

চোখ ধাঁধানো সাফল্য এনে দেয়ায় জাবির প্রশংসায় পঞ্চমুখ এখন ফুটবল দুনিয়া। এই জয়ে ২৯ ম্যাচে ২৫ জয় ও চার ড্রয়ে ৭৯ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিশ্চিত করেছে লেভারকুসেন। জার্মান লিগ ইতিহাসে ২৯ ম্যাচ পর এটাই সর্বোচ্চ পয়েন্ট। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে থাকা বায়ার্ন ও স্টুটগার্টের থেকে লেভারকুসেন ১৬ পয়েন্টে এগিয়ে আছে। 
১২০ বছরের পুরনো ক্লাবটি জার্মানির শীর্ষ লিগে এর আগে পাঁচবার রানার্সআপ হয়েছে।

কিন্তু কখনো শিরোপা উঁচিয়ে ধরতে পারেনি। অবশেষে শত বছরেরও বেশি সময় পর সর্বোচ্চ সাফল্য পেয়েছে লেভারকুসেন। আগের ম্যাচে ইউরোপা লিগে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডকে হারিয়ে এক মৌসুমে টানা ৪২ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ছুঁয়েছিল তারা। বুন্দেসলিগার শিরোপা জয়ের ম্যাচে সেই কীর্তিও ছাপিয়ে গেছে তারা। অর্থাৎ টানা ৪৩ ম্যাচ অপরাজিত এখন লেভারকুসেন। ২০১১-১২ মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ৪২ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডটি প্রথম গড়েছিল ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাস।

বুন্দেসলিগায় টানা ২৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডও এখন লেভারকুসেনের। কোচ পেপ গার্ডিওলার হাত ধরে ২০১৫-১৬ মৌসুমে টানা ২৮ ম্যাচ অপরাজিত থাকার আগের রেকর্ডটি গড়েছিল বাভারিয়ানরা।
এই শিরোপার মাধ্যমে লেভারকুসেন তাদের কুখ্যাত ‘লেভারকুসেন’ তকমা থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছে। শিরোপা জয়ের আনন্দে ম্যাচ শেষের ১০ মিনিট আগেই উচ্ছ্বসিত সমর্থকরা উদযাপন শুরু করে দেন। একে একে তারা সাইডলাইনে জড়ো হতে শুরু করে। যদিও ম্যাচ তখনো চলছিল। লেভারকুসেনের খেলোয়াড়রা এক পর্যায়ে তাদের অনুরোধ জানায় গ্যালারিতে ফিরে যেতে। ৯০ মিনিটে পর পুরো স্ট্যান্ডই খালি হয়ে যায়; তখন সবাই ছিল মাঠের ভেতর।

আবেগ আপ্লুত সমর্থকরা এ সময় খেলোয়াড়দের সঙ্গে তাদের বিজয় উৎসব উপভোগ করতে থাকেন। ম্যাচের হ্যাটট্রিকম্যান রিটজ বলেন, এটা ভাষায় প্রকাশ করা অসম্ভব। আমি বলতে পারব না আমরা কি করেছি। আমার এখন ড্রেসিংরুমে ফিরে গিয়ে শান্ত হয়ে বসতে হবে। ইতোমধ্যেই আমরা সমর্থকদের সঙ্গে পার্টি শুরু করে দিয়েছি।
ম্যাচ শুরুর ৯০ মিনিট আগে স্টেডিয়ামে এসে উপস্থিত হয় লেভারকুসেনের বাস। ৩০ হাজার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ঘরের মাঠ বে অ্যারানাতে পুরোটাই ছিল কালো-লাল জার্সিধারীদের আধিপত্য। ক্লাব কোচ জাবি অ্যালানসোর সম্মানে শহরের বিমসার্ক স্ট্রিটটি সমর্থকরা সাময়িকভাবে ‘জাবি অ্যালানসো স্ট্রিট’ নামে আখ্যায়িত করেছে। শিরোপা জয় নিশ্চিত হওয়ার পর অ্যালানসোর এখন মূল লক্ষ্য বৃহস্পতিবার ইউরোপা লিগে লন্ডনে ওয়েস্টহ্যামের বিরুদ্ধে ম্যাচটি।

ওই ম্যাচকে সামনে রেখে এ ম্যাচে মূল একাদশে সাতটি পরিবর্তন এনেছিলেন লেভারকুসেন কোচ। ইতিহাস গড়ার পর জাবি অ্যালানসো বলেন, জানি এই ক্লাবটির জন্য এটা অবিশ্বাস্য অর্জন। তবে আমরা এখানেই থেমে থাকতে চাই না। আমাদের লক্ষ্য আরও সুদূরে।

×