ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

মাশরাফীর ভালোবাসায় বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিলেন নেতা

প্রকাশিত: ১৭:৫০, ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩

মাশরাফীর ভালোবাসায় বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিলেন নেতা

গাজী ইমান। ছবি: সংগৃহীত

'আমার বয়স অনেক, বুঝতে শেখার পর থেকে বিএনপির রাজনীতি করেছি। ইউপি (ইউনিয়ন পরিষদ) সদস্য হয়ে দীর্ঘদিন ওয়ার্ডবাসীর সেবা করছি। আওয়ামী লীগ বলেন আর বিএনপি বলেন, আমি কোনদিন দেখিনি কোন এমপি (সংসদ সদস্য) আমার এই এলাকায় আসছে। 

আমার ডাকে সাড়া দিয়ে হাঁটু সমান কাদা ভেঙে মাশরাফী আমার এলাকায় এসেছিল, নিয়মিত খোঁজখবর রেখেছে। রাস্তা ঠিক করতে টাকা দিয়েছে। এলাকার বা রাজনৈতিক কোন চাপে নয়, মাশরাফীর ভালবাসা এবং কাজে সন্তুষ্ট হয়ে শুধু মাত্র তার কারণেই আমি বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছি।'

বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুরে কথাগুলো বলছিলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী বিন মুর্তজার ভালোবাসায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সদ্য বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়া গাজী ইমান।

গাজী ইমান লোহাগড়া উপজেলার কোটাকোল ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড বিএনপি'র সভাপতি ছিলেন। তিনি ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য (মেম্বার)।

বুধবার বিকেলে ওই উপজেলার কোটাকোল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে গাজী ইমান বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। এ সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও তাকে সাদরে গ্রহণ করেন।

গাজী ইমান আরও জানান, মাশরাফী প্রথমবার যখন ভোট চাইছিল মুখের ওপর বলেছিলাম, ভাতিজা শরীরে রক্ত থাকতে আমি আওয়ামী লীগে ভোট দিতে পারবো না। সেই ভাতিজার (মাশরাফী) ভালবাসা, নমনীয় ব্যবহার আর তার কাজে খুশি হয়ে পাঁচ বছর আগের বলা কথা আর রাখতে পারলাম না। আমার মনে হয়েছে রাজনীতি করলে যতদিন বাঁচবো মাশরাফীর পেছনে থাকবো। সে জানে কিভাবে শত্রুকেও আপন করে নিতে হয়।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায়। বাংলাদেশের এমপিদের মধ্যে একজন ক্ষমতাবান এমপি মাশরাফী। সে যদি চাইতো আমাদের এলাকা ছাড়া করতে পারতো। কিন্তু মাশরাফী এসব নোংরামি করা তো দূরের কথা, সবসময় শ্রদ্ধার সঙ্গে বলেছে, 'চাচা মরার সময় কিছু সঙ্গে নিতে পারবেন না, যতদিন বেঁচে আছেন সুযোগ থাকতে মানুষের সেবা করেন। দোয়া আপনার সঙ্গে যাবে।
 
সাবেক এই বিএনপি নেতা বলেন, অনেকে মুখে অনেক আশার বাণী শোনায়, কিন্তু কাজ করে না। কিন্তু মাশরাফী মুখে নয়, কাজে প্রমাণ করেছে সে মানুষকে ভালবাসতে জানে, মানুষের জন্য কাজ করে। নড়াইলের উন্নয়নে মাশরাফীর বিকল্প নেই।

 

এসআর

সম্পর্কিত বিষয়:

×