ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ইরানের হামলার পরেই বিশ্ববাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি

প্রকাশিত: ১০:৪৪, ১৫ এপ্রিল ২০২৪; আপডেট: ১০:৪৮, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

ইরানের হামলার পরেই বিশ্ববাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি

তেলের দাম কোথায় গিয়ে ঠেকে তা নির্ভর করছে দুদেশের পরবর্তী পদক্ষেপের ওপর।

সিরিয়ায় অবস্থিত ইরানের কনস্যুলেটে ইসরায়েলের হামলার পর বৈশ্বিক বেঞ্চমার্কে প্রতি ব্যারেল ক্রুড তেলের দামে উঠেছিল ৯২.১৮ ডলার, যা অক্টোবরের পর থেকে সর্বোচ্চ। এবার ইসরায়েলে ইরানের হামলার পরেই বিশ্ববাজারে তেলের দাম আরো বেড়ে গেছে।

এখন এই দাম কোথায় গিয়ে ঠেকে তা নির্ভর করছে দুদেশের পরবর্তী পদক্ষেপের ওপর। ইসরায়েল যদি ইরানে পাল্টা হামলা চালায় এবং ইরানও যদি তার জবাব দিতে থাকে তাহলে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করবে। সেক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী জ্বালানি তেলের সরবরাহ ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত হবে।

বিশ্বে প্রতিদিন যে জ্বালানি তেলের চাহিদা রয়েছে তার বেশিরভাগ সরবরাহ হয় মধ্যপ্রাচ্য থেকে। ইরান নিজেও একটি বৃহৎ জ্বালানি তেল সরবরাহকারী দেশ। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে থেকে বিশ্ববাজারে যে জ্বালানি তেল সরবরাহ হয়ে থাকে, তার একটি বিরাট অংশ যায় ইরানের নিয়ন্ত্রণাধীন এবং এর পার্শ্ববর্তী জলপথ দিয়ে।

ইরান ইসরায়েল সংঘাত হলে এসব সরবরাহ চ্যানেল বন্ধ করে দেবে ইরান। ফলে বিশ্বব্যাপী জ্বালানি তেলের সরবরাহ ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার রাতে ইসরায়েলে সরাসরি হামলায় চালায় ইরান। 

শহিদ

×