ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

আরাকান আর্মির দাবি

পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে জান্তা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৫৬, ৩ মার্চ ২০২৪

পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে জান্তা

মিয়ানমারের জান্তা সরকার পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে

মিয়ানমারের জান্তা সরকার পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে বলে দাবি করেছে রাখাইনের জান্তাবিরোধী সশন্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মি। গোষ্ঠীটি রবিবার পোন্নাগাউন শহরে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটি দখলেরও দাবি করেছে। আরাকান আর্মির দখল করা ঘাঁটিটি জান্তা সরকারের লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়ন (এলআইবি) ৫৫০-এর প্রধান ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। এটি রাখাইনের রাজধানী সিত্তে থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। খবর ইরাবতীর।
এদিকে মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকফিউ শহরের আশ্রয় শিবির থেকে অন্তত ১১৭ জন মুসলিমকে তুলে নিয়ে গেছে জান্তা সেনারা। রাখাইনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নারিনজারা জানিয়েছে, কিয়াউকফিউ শহরের কিয়াউক তা লোন আশ্রয় শিবির থেকে ১১৭ জন মুসলিমকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে গেছে জান্তার ৫৪২ লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়নের (এলআইবি) সদস্যরা। শহরের একজন বাসিন্দা বলেন, ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী পুরুষদের গত ২৮ ও ২৯ ফেব্রুয়ারি তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কিয়াউকফিউ শহরের কিয়াউক তা লোন শিবিরটি বাস্তুচ্যুত মুসলিমদের জন্য তৈরি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, অভ্যন্তরীণ সংঘাতে বাস্তুচ্যুত ১০৭ জনের তালিকা সংগ্রহ করেছিল জান্তা সৈন্যরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ১১৭ জনকে ধরে নিয়ে গেছে তারা।
গত ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে পোন্নাগাউন শহরে হামলা জোরদার করে আরাকান আর্মি। একই সময়ে এলআইবি ঘাঁটি লক্ষ্য করেও জোরালো হামলা চালিয়েছে।

শহরটির আমিইন্ট কিয়ুন গ্রামের কাছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দুটি সাঁজোয়া যান ধ্বংস করারও দাবি করেছে আরাকান আর্মি। এ ছাড়া আরাকান আর্মি গত বৃহস্পতিবার পোন্নাগাউনের এলআইবি সদর দপ্তরের কাঠে একটি থানা দখল করে নিয়েছে। 
আরাকান আর্মি দাবি করেছে, থানাটি দখলের পর অন্তত ২৩ পুলিশ সদস্য তাদের বাহিনীতে যোগ দিয়েছে। এক পুলিশ সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, থানায় পর্যাপ্ত গোলাবারুদ নেই। এ ছাড়া আমাদের বদলিতেও বাধা দেওয়া হচ্ছে।

এ জন্য আমরা বিদ্রোহী বাহিনীতে যোগ দিয়েছি। গত বছরের অক্টোবরে মিয়ানমারের জান্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি রাজ্যে সমন্বিত আক্রমণ শুরু করে জান্তাবিরোধী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর জোট পিপলস ডেমোক্রেটিক ফোর্স (পিডিএফ)।

×