ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

সুরের মূর্ছনায় মিশিগানে দুর্গাপূজা, মুখরিত মন্দির

রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে

প্রকাশিত: ১৯:৪৬, ৩ অক্টোবর ২০২২; আপডেট: ১৯:৪৮, ৩ অক্টোবর ২০২২

সুরের মূর্ছনায় মিশিগানে দুর্গাপূজা, মুখরিত মন্দির

দুর্গাপূজায় মুখরিত মন্দির

নানা রঙ-ডিজাইনের শাড়ি জামা-পাঞ্জাবি-পায়জামা, ধুতি পরিহিত হিন্দু সম্প্রদায়ের শত শত নারী-পুরুষের উলুধ্বনি, শঙ্খ, কাসর, ঢাক-ঢোল ও  নানা বাদ্যযন্ত্রের সুরের মূর্ছনায় নাচ-গান আনন্দ উল্লাস আর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শনিবার রাত থেকে যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য মিশিগানে শুরু হয়েছে ৫ দিনব্যাপী হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব 'শারদীয় দুর্গাপূজা'। 

সুপ্রভাত মিশিগানের সম্পাদক চিন্ময় আচার্যী দেবু জনকণ্ঠকে জানান, আগামী ৫ অক্টোবর এই পূজার বিজয়া দশমী। ওইদিন প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই শারদীয় দুর্গোৎসব। রবিবার (২ অক্টোবর) উৎসবের দ্বিতীয় দিনে নানা আয়োজনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে মহাসপ্তমীর পূজা ।

শারদীয় এই পূজা উপলক্ষে আকর্ষণীয় সাজে সাজানো হয়েছে মিশিগানের বিভিন্ন পুজা মন্ডপ। একাধিক পূজামণ্ডপ ঘুরে দেখা যায়, সংশ্লিষ্ট ধর্মাবলম্বী ছাড়াও অন্যান্য ধর্ম ও শ্রেণী পেশার অসংখ্য নারী-পুরুষ পূজা দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন। নানা বাহারি পোশাক পড়ে আর অপরূপ অঙ্গসজ্জায় নিজেদেরকে রাঙিয়ে তারা আনন্দে মেতে উঠেছে তাদের প্রিয় দুর্গোৎসবে।

লক্ষ্যণীয় দিক হচ্ছে, শিশু,তরুণ-তরুণী এমকি কোন কোন মণ্ডপে আমেরিকান ও বাংলাদেশি কমিউনিটিভুক্ত বিভিন্ন সম্প্রদায়ের লোকজনের উপস্থিতি। সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসতেই এসব পূজামণ্ডপ আলোকসজ্জায় রঙিন হয়ে ওঠে.

এদিকে শনিবার শুরু হওয়া এই শারদীয় উৎসবের প্রথম দিন ওয়ারেন সিটির শিব মন্দির টেম্পল অব জয়ে ছিল উৎসবমুখর পরিবেশ । তরুণ তরুণীরা নাচ-গান,কবিতা আবৃত্তি আর ধামাইলে উৎসবস্থল করে তুলেন মাতোয়ারা. প্রতিভা চৌধুরী ও তন্ময় আচার্য্যের কণ্ঠে কবিতা আবৃত্তি,মৌমিতা  দাশ,নন্দিতা দাশ,পুষ্প পাল, প্রমা পাল, অতশী চৌধুরী,অমিতা মৃধা, নেহালি দেব,রতিশ রায় চৌধুরী, দেবব্রত দেব,অনুরাধা দেব লাকি, অপূর্ব কান্তি চৌধুরী ও নূর চিশতির কণ্ঠে সুমধুর গান সকলকে ব্যাপক আনন্দ উল্লাসে মাতিয়ে তুলে.
এছাড়াও সমবেত সঙ্গীত পরিবেশন করেন, সুপর্না চৌধুরী, চিনু মৃধা,নীলিমা রায়,সঙ্গীতা পাল,জোৎস্না বিশ্বাস,অরুনিমা দেব প্রভা,কাবেরি দে,স্মৃতি কর, রূপাঞ্জলী চৌধুরী, প্রতিভা কপালী, গৌরি আচার্য্য বেবী,  রাজশ্রী রায় শর্মা, সুম্মিতা চৌধুরী, সুমা দাশ ও অজিত দাশ। বাদ্যযন্ত্রে ছিলেন, রতন হাওলাদার ও অতুল দস্তিদার।

 টিম স্ক্রিপ্ট পড়েন সংশ্লিষ্ট সম্প্রদায়ের অন্যতম পুরোধা দানশীল ব্যক্তিত্ব ড. দেবাশীষ মৃধা। 

এদিকে অন্তরা দাশ অন্তির কোরিওগ্রাফিতে বড়দের গ্রুপের  নৃত্যে অংশ নেন, চিনু মৃধা, সুপর্না চৌধুরী, নীলিমা রায়, সঙ্গীতা পাল, জোৎস্না বিশ্বাস, অরুনিমা দেব প্রভা, কাবেরি দে, স্মৃতি কর, রূপাঞ্জলী চৌধুরী, প্রতিভা কপালী, গৌরি আচার্য্য বেবী, চৈতি পাল, অনন্যা বনি, চম্পা পুরকায়স্থ, শিল্পী পাল, রাজশ্রী রায় শর্মা, শম্পা পাল,  সুম্মিতা চৌধুরী, সুমা দাশ ও অন্তরা দাশ অন্তি। 

অন্তরা দাশ অন্তির কোরিওগ্রাফিতে ছোটদের গ্রুপের নৃত্যে অংশ নেন, আরিয়ানা,জেসিকা,অরিত্রি, সোহানি ও পুষ্পিতা। অপর একটি গ্রুপ নৃত্যে রিয়া রায়, কৃষ্টি পাল, রিশিকা পাল এবং অন্তরা দাশ অন্তি অংশ নেন। 

এছাড়া নৃত্য পরিবেশন করেন অরুশি সেন,মাহিকা সরকার, স্বর্নিকা চৌধুরী,নেহালি দেব, অর্পিতা সেন,মৃত্তিকা সরকার।  অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, চিনু মৃধা এবং সুপর্না চৌধুরী । সাউন্ড সিস্টেম পরিচালনা করেন, রাজর্ষি চৌধুরী গৌরব এবং নূর চিশতি। 

এই শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে সৌরভ দত্ত চৌধুরীর সম্পাদনায় প্রকাশিত হয়েছে ‘শারদ উৎসব’ দ্বিতীয় সংখ্যা। ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ অঙ্কন করেছেন, নুর চিশতি। গ্রাফিক্স ডিজাইন করেছেন, নুর চিশতি ও রতন হাওলাদার। 

এই পূজাকে ঘিরে আলাদিন রেস্টরেন্ট এন্ড সুইট মিটসহ বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট, গ্রোসারি,স্ন্যাকবারগুলো বেচাকেনায় বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষরা তাদের পছন্দ মাফিক নানা সুস্বাদু বাহারি খাবার নিয়ে যেতে এসব দোকানগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। এখানে তারা কোন সম্প্রদায়ের প্রতিষ্ঠান তা দেখছেন না,বরং সবাই আপন করে একত্রে মিশে যাচ্ছেন।

এসআর

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart