রবিবার ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

এবার রাজধানীর ওয়ারী লকডাউন

এবার রাজধানীর ওয়ারী লকডাউন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে আজ শনিবার সকাল ছয়টা থেকে রাজধানী ঢাকার ওয়ারীতে লকডাউন কার্যকর করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। প্রবেশ ও বের হওয়ার রাস্তাগুলোতে ব্যারিকেড বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। তবে লকডাউন কতটা কার্যকর হবে তা নির্ভর করছে এলাকাবাসীর সহযোগিতার ওপর।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন সূত্র বলছে, জনসংখ্যার দিক থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ওয়ারীতে তুলনামূলক বেশি। এজন্য ওয়ারীতে লকডাউন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশিত ম্যাপেরভিত্তিতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় লকডাউন বাস্তবায়নের মূল দায়িত্ব পালন করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)।

ঘোষণা মোতাবেক আজ শনিবার সকাল ছয়টা থেকে ওয়ারীর আটটি এলাকায় লকডাউন কার্যকর হবে। তা কার্যকর থাকবে পরবর্তী ২১ দিন পর্যন্ত। লকডাউন বাস্তবায়নে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, স্বাস্থ্য অধিদফতর, পুলিশ প্রশাসনসহ স্থানীয় বিভিন্ন পর্যায়ের সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কাজ করবে। এজন্য সকল প্রস্তুতিও শেষ হয়েছে। যদিও লকডাউন কতটা কার্যকর হবে, তা নির্ভর করছে সেখানকার বাসিন্দাদের সহযোগিতার ওপর। আয়তনের দিক থেকে সেখানকার জনসংখ্যা অনেক বেশি। এছাড়া সেখানে প্রচুর ব্যবসায়ীদের বসবাস।

যদিও স্থানীয় প্রশাসনের দাবি, লকডাউন বাস্তবায়নে তারা কঠোর হবেন। তবে জনসংখ্যার কারণে রাস্তাঘাট জনশূন্য রাখা কঠিন হতে পারে। এছাড়া ব্যবসায়ীদের আটকে রাখাও কঠিন হতে পারে। কারণ সামনে ঈদ। এজন্য তাদের বিষয়ে সহনীয় হওয়ার প্রয়োজন পড়তে পারে।

ওয়ারীতে লকডাউন বাস্তবায়নের প্রস্তুতির বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার শাহ ইফতেখার আহমেদ জনকণ্ঠকে বলেন, লকডাউন বাস্তবায়নে তারা শতভাগ প্রস্তুত। শনিবার সকাল ছয়টা থেকে লকডাউন কার্যকর করা হবে। ইতোমধ্যেই ওয়ারীর লকডাউন এলাকার রাস্তায় বেরিকেড বসানো হয়েছে। দুই দুটি রাস্তা খোলা রাখা হয়েছে।

তিনি বলছিলেন, যদিও শঙ্কা আছে। কারণ পূর্ব রাজাবাজারের তুলনায় এখানে জনসংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ। এলাকার প্রবেশ পথ ১৭টি। দুটি পথ খোলা রেখে বাকিগুলো সিলগালা করে রাখা হবে। তারপরও এত বেশি জনগণকে ঘরে আটকে রাখতে হলে জনবল প্রয়োজন। ঈদের আগে ব্যবসায়ীদের আটকে রাখাও ঝামেলার। শুধু আইন প্রয়োগের মাধ্যমে লকডাউন বাস্তবায়ন করা কঠিন হতে পারে। বাসিন্দাদের সব ধরনের প্রয়োজন ও সমস্যা সমাধানেরও সমন্বয় করা হবে। এলাকাবাসী সহায়তা করলে লকডাউন বাস্তবায়ন করা কঠিন হবে না। ইতোমধ্যেই সেনাবাহিনীর একটি দলও এলাকায় টহল দিয়েছে। তবে আশা করছি লকডাউন শতভাগ সফল করা সম্ভব হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে কল কারখানা নয়         তিন বন্দর দিয়ে ভারতে আটকে থাকা পেঁয়াজ আসা শুরু         দুর্নীতির বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ॥ কাদের         কওমি বড় হুজুর আল্লামা শফীকে চিরবিদায়         ওষুধ খাতের ব্যবসা রমরমা         করোনার নমুনা পরীক্ষা ১৮ লাখ ছাড়িয়েছে         করোনা সংক্রমণ বাড়ছে ॥ ফের লকডাউনে যাচ্ছে ইউরোপ         বিশেষ মহলের ইন্ধন-ভাসানচরে যাবে না রোহিঙ্গারা         তুলা উৎপাদনে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার         দগ্ধ আরও দুজনের মৃত্যু, তিতাসের গ্রেফতার ৮ জন দুদিনের রিমান্ডে         শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প আগামী মাস থেকেই ॥ করোনায় সব লণ্ডভণ্ড         আর কোন জিকে শামীম নয় ॥ গণপূর্তের দৃশ্যপট পাল্টেছে         ব্যক্তিগত ও পারিবারিক দ্বন্দ্বই অধিকাংশ খুনের কারণ         এ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার উন্নতি         বর্তমান সরকারের আমলে রেলপথে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে : রেলপথমন্ত্রী         ইউএনও ওয়াহিদা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলী, স্বামী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে         সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল পরিচালকের রুম ঘেরাও         চিরনিদ্রায় শায়িত হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী         সবচেয়ে কঠিন সময় পার করছি ॥ মির্জা ফখরুল         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে একদিনে ১২৪৭ জনের মৃত্যু