মঙ্গলবার ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গানে কবিতায় রবীন্দ্রস্মরণ

গানে কবিতায় রবীন্দ্রস্মরণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘শ্রাবণ তুমি বাতাসে কার আভাস পেলে পথে তারি সকল বারি দিলে ঢেলে’ কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই অমিয় চরণ যেন প্রকৃতির ভালোলাগাকে স্মরণ করিয়ে দেয় বার বার। এই শ্রাবণেই জীবনাবসান হয় কবি রবীন্দ্রনাথের। শনিবার তারই বর্ষার গান আর কবিতা নিবেদনে স্মরিত কবিগুরু। রাজধানীর এ্যালিফ্যান্ট রোডের দীপনপুরে এ শ্রাবণ রবীন্দ্রসন্ধ্যার আয়োজন করে সংস্কৃতি। ‘এমন দিনে তারে বলা যায়, এমন ঘনঘোর বরিষায়’ শিরোনামের এ অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন দেশের বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী ড. মকবুল হোসেন। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথের বর্ষা বিষয়ক কবিতা আবৃত্তি করেন স্বনামধন্য বাচিকশিল্পী নাজমুল আহসান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন কাজী বুশরা আহমেদ তিথি। অনুষ্ঠানের শুরুতে শিল্পী মকবুল হোসেন বলেন, সমাজ, রাজনীতি ও সংস্কৃতির এক সংকটময় সময় পার করছি আমরা। একদল মানুষ গুজব ছড়াচ্ছে। আরেকদল উন্মত্ত হয়ে গণপিটুনি দিয়ে মানুষ মেরে ফেলছে।

এই সময় রবীন্দ্রনাথের সহমর্মিতা, ভালোবাসা, সম্প্রিতীর বাণী খুবই প্রাসঙ্গিক। প্রতিটি মানুষের মাঝে প্রেম, ভালোবাসা, মমতা আছে। মানুষের মনের সেই ভালোবাসাকে জাগিয়ে তুলতে হবে। মমতার হাত বুলাতে হবে তবেই না ভালোবাসার বৃক্ষ পল্লবিত হবে, ফুলে ফলে ভরে উঠবে। তবেই না আমরা এই জীর্ণ সময় উত্তীর্ণ হব। এই ভূমিকা দিয়ে শিল্পী গান ধরেন ‘যে শাখায় ফুল ফোটে না ফল ধরে না একেবারে, তোমার ওই বাদল বায়ে দিক জাগায়ে সেই শাখারে’।

এরপর তিনি একে একে পরিবেশন করেন রবীন্দ্রনাথের গান। তার পরিবেশনায় ছিল-‘শ্রাবণের ধারার মত’, ‘আবার এসেছে আষাঢ়’, ‘বাদল দিনের প্রথম কদম ফুল’, ‘ছায়া ঘনাইছে বনে বনে’, ‘মন মোর মেঘের সঙ্গী’, ‘এসো নীপ বনে’, ‘বর্ষণ মন্দ্রিত অন্ধকারে’, ‘আজি ঝড়ের রাতে’, ‘যেতে দাও গেল যারা’, ‘আমার দিন ফুরালো’, ‘কৃষ্ণকলি আমি তারেই বলি’, ‘আজ শ্রাবণের আমন্ত্রণে’, ‘ভেবেছিলেম আসবে ফিরে’, ‘আমার যে দিন ভেসে গেছে’, ‘আমি তখন ছিলেম মগন’ ও ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’। শিল্পী কাজী বুশরা আহমেদ তিথি আবৃত্তি করেন রবীন্দ্রনাথের বর্ষার কবিতা ‘বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর’। শিল্পী নাজমুল আহসান আবৃত্তি করেন ‘সোনার তরী’, ‘নববর্ষা’, ‘হৃদয় আমার নাচেরে’। ‘কৃষ্ণকলি’ কবিতা গান যুগল পরিবেশন করেন নাজমুল ও মকবুল। ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’ যুগল আবৃত্তি করেন নাজমুল ও তিথি। আবৃত্তি শেষে পরিবেশিত হয় ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’ গানটি।

শীর্ষ সংবাদ:
এমসি কলেজের ওই ছাত্রাবাসে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি         কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আর নেই         সারাদেশে কলেজগুলোতে বহিরাগত প্রবেশ নিষেধ         করোনা ভ্যাকসিন কিনতে বাংলাদেশকে ৩ মিলিয়ন ডলার অনুদান এডিবির         বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন শেখ হাসিনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         শিল্প এলাকায় শিল্পকারখানা স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর         চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে বিকল্প দেশের পেঁয়াজ আমদানি শুরু         সমন্বিত উন্নয়নের জন্য জনবান্ধব পুলিশিংয়ের কোনো বিকল্প নেই : পুলিশ মহাপরিদর্শক         করোনা ভাইরাসে আরও ২৬ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৪৮৮         দেশ দুঃসময় পার করছে না, বিএনপির চরম দুঃসময় চলছে ॥ কাদের         ভারতে দৈনিক করোনাভাইরাস সংক্রমণে বড়সড় পতন ঘটেছে         এমসি’তে গণধর্ষণ ॥ কলেজ কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা চ্যালেঞ্জ করে রিট         নুর-মামুনদের গ্রেফতারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি         নকল মাস্ক সরবরাহ ॥ জেএমআই চেয়ারম্যান গ্রেফতার         এমসি কলেজে গণধর্ষণ ॥ আরও ৩ জন রিমান্ডে         সুনির্দিষ্ট আশ্বাস না পেলে রাজপথ ছাড়বেন না সৌদি প্রবাসীরা         এইচএসসি পরীক্ষা গ্রহণে বোর্ডের তিন প্রস্তাব         দুই আসামির জামিন বাতিলে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট         জাহালমের ক্ষতিপূরণের রায় পিছিয়ে বুধবার         এমসি কলেজে ধর্ষণ ॥ মামলার এজাহারভুক্ত শেষ আসামি গ্রেফতার