বুধবার ৬ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গানে কবিতায় রবীন্দ্রস্মরণ

গানে কবিতায় রবীন্দ্রস্মরণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘শ্রাবণ তুমি বাতাসে কার আভাস পেলে পথে তারি সকল বারি দিলে ঢেলে’ কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই অমিয় চরণ যেন প্রকৃতির ভালোলাগাকে স্মরণ করিয়ে দেয় বার বার। এই শ্রাবণেই জীবনাবসান হয় কবি রবীন্দ্রনাথের। শনিবার তারই বর্ষার গান আর কবিতা নিবেদনে স্মরিত কবিগুরু। রাজধানীর এ্যালিফ্যান্ট রোডের দীপনপুরে এ শ্রাবণ রবীন্দ্রসন্ধ্যার আয়োজন করে সংস্কৃতি। ‘এমন দিনে তারে বলা যায়, এমন ঘনঘোর বরিষায়’ শিরোনামের এ অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন দেশের বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী ড. মকবুল হোসেন। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথের বর্ষা বিষয়ক কবিতা আবৃত্তি করেন স্বনামধন্য বাচিকশিল্পী নাজমুল আহসান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন কাজী বুশরা আহমেদ তিথি। অনুষ্ঠানের শুরুতে শিল্পী মকবুল হোসেন বলেন, সমাজ, রাজনীতি ও সংস্কৃতির এক সংকটময় সময় পার করছি আমরা। একদল মানুষ গুজব ছড়াচ্ছে। আরেকদল উন্মত্ত হয়ে গণপিটুনি দিয়ে মানুষ মেরে ফেলছে।

এই সময় রবীন্দ্রনাথের সহমর্মিতা, ভালোবাসা, সম্প্রিতীর বাণী খুবই প্রাসঙ্গিক। প্রতিটি মানুষের মাঝে প্রেম, ভালোবাসা, মমতা আছে। মানুষের মনের সেই ভালোবাসাকে জাগিয়ে তুলতে হবে। মমতার হাত বুলাতে হবে তবেই না ভালোবাসার বৃক্ষ পল্লবিত হবে, ফুলে ফলে ভরে উঠবে। তবেই না আমরা এই জীর্ণ সময় উত্তীর্ণ হব। এই ভূমিকা দিয়ে শিল্পী গান ধরেন ‘যে শাখায় ফুল ফোটে না ফল ধরে না একেবারে, তোমার ওই বাদল বায়ে দিক জাগায়ে সেই শাখারে’।

এরপর তিনি একে একে পরিবেশন করেন রবীন্দ্রনাথের গান। তার পরিবেশনায় ছিল-‘শ্রাবণের ধারার মত’, ‘আবার এসেছে আষাঢ়’, ‘বাদল দিনের প্রথম কদম ফুল’, ‘ছায়া ঘনাইছে বনে বনে’, ‘মন মোর মেঘের সঙ্গী’, ‘এসো নীপ বনে’, ‘বর্ষণ মন্দ্রিত অন্ধকারে’, ‘আজি ঝড়ের রাতে’, ‘যেতে দাও গেল যারা’, ‘আমার দিন ফুরালো’, ‘কৃষ্ণকলি আমি তারেই বলি’, ‘আজ শ্রাবণের আমন্ত্রণে’, ‘ভেবেছিলেম আসবে ফিরে’, ‘আমার যে দিন ভেসে গেছে’, ‘আমি তখন ছিলেম মগন’ ও ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’। শিল্পী কাজী বুশরা আহমেদ তিথি আবৃত্তি করেন রবীন্দ্রনাথের বর্ষার কবিতা ‘বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর’। শিল্পী নাজমুল আহসান আবৃত্তি করেন ‘সোনার তরী’, ‘নববর্ষা’, ‘হৃদয় আমার নাচেরে’। ‘কৃষ্ণকলি’ কবিতা গান যুগল পরিবেশন করেন নাজমুল ও মকবুল। ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’ যুগল আবৃত্তি করেন নাজমুল ও তিথি। আবৃত্তি শেষে পরিবেশিত হয় ‘এমন দিনে তারে বলা যায়’ গানটি।

শীর্ষ সংবাদ:
একদিনে করোনায় ১২ মৃত্যু, শনাক্ত ৯৫০০         আগামীকাল থেকে উপজেলাতেও ওএমএসে চাল-আটা বিক্রি         বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে তলব         করোনার সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা         আপাতত বাড়ছে না ভোজ্যতেলের দাম         শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট         ঢাকায় সেফুদার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু         ‘বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না’         দখলদারদের উচ্ছেদ ও অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ডিসিদের নির্দেশ         পরিবহন শ্রমিকদের টিকা দেওয়া শুরু         শিমুকে হত্যার পর নিখোঁজের জিডি করেন স্বামী         বিশ্বজুড়ে করোনায় আরও ৯৬৬৯ মৃত্যু         ফুটপাতে নির্মাণসামগ্রী ॥ মেয়র আতিকের ক্ষোভ প্রকাশ         আমিরাতে হুতিদের ড্রোন হামলায় বাংলাদেশের নিন্দা         সুপ্রিম কোর্টে ভার্চ্যুয়াল বিচার কাজ শুরু         কেউ যেন হয়রানি না হয় ॥ সেবামুখী জনপ্রশাসন গড়তে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         দাম্পত্য কলহেই চিত্রনায়িকা শিমু খুন         ইসি সার্চ কমিটিতেই         করোনা শনাক্তের হার আশঙ্কাজনক বাড়ছে         ব্যাপক তুষারপাত ॥ শীতে নাকাল আমেরিকা ইউরোপ