রবিবার ৯ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

যশোরে আসামি শিরিনের পরিবর্তে আদালতে অন্য নারী

যশোরে আসামি শিরিনের পরিবর্তে আদালতে অন্য নারী

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি শিরিনকে না পেয়ে রেখা নামের এক মহিলাকে ধরে শিরিন পরিচয়ে আদালতে সোপর্দ করার অভিযোগ উঠেছে। রেখা পক্ষের আইনজীবীর দাবি, তাকে হয়রানি করতে পুলিশ এ ধরনের কাজ করেছেন। এছাড়া আদালতে তারা রেখার জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট দাখিল করে এ দায় থেকে অব্যাহতি পেতে আদালতের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। আদালত বিষয়টি আগামী ৪ এপ্রিলের মধ্যে অধিকতর তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ সুপার যশোরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

সুত্র জানায়, ২০০৫ সালের ২৭ এপ্রিল চাঁচড়া রায়পাড়ার ইসমাইল কোলোনিতে অভিযান চালিয়ে নিজ বসতবাড়ি থেকে ওই এলাকার শিরিন বেগমকে ২৫ পুড়িয়া হেরোইনসহ আটক করে পুলিশ। এঘটনায় তৎকালীন কোতোয়ালি থানার এস আই কুমকুম নাজমুন নাহার বাদী হয়ে শিরিন ও তার স্বামী একই এলাকার রব পকেটমারের ছেলে শহিদুল ইসলামকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। ২০১৬ সালের ৯ আগস্ট অতিরিক্ত দায়রা জজ মঞ্জুরুল ঈমাম রায় ঘোষণা করেন। এ রায়ে শিরিনা বেগমকে দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো চার মাসের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন এবং অপর আসামি শিরিনের স্বামী শহিদুলকে এ মামলা থেকে অব্যহতি প্রদান করে আদালত। পরে শিরিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরয়ানা জারি করে আদালত। পরে গত ২০ মার্চ থানার এস আই আমিরুজ্জামান ওয়ারেন্ট মুলে এই আসামি ধরে এনে আদালতে সোপর্দ করেন। ওই আসামি শিরিন না তিনি রেখা মর্মে বলে আদালতকে জানান। একই সাথে নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের অনুলিপি প্রদান করার পর আদালত আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরের দিন এসআই আমিরুজ্জামান ও আসামিকে তলব করে ২৪ মার্চ পরবর্তী আদেশের দিন দেন আদালত। এদিন আসামি রেখার পক্ষথেকে জানানো হয়, সাজাপ্রাপ্ত আসামি শিরিন পুলিশের ভয়ে বিদেশে অবস্থান করছেন। রেখা ঝিনাইদহ শহরের মশিউর রহমান সড়কের লাল্টু শেখের মেয়ে ও আলমগীর হোসেনর স্ত্রী বলে আদালতকে জানানো হয়। রেখাকে হয়রানি করতে পুলিশ ধরে এনে শিরিন বলে সাজানো হয়েছে এবং এ মামলার দায় থেকে অব্যাহতির আবেদন জানানো হয়। এদিকে এদিন রাষ্টপক্ষের কৌশুলী দাবি করেন, আসামি পক্ষ শিরিন খাতুনকে রেখা খাতুন হিসেবে প্রমাণের চেষ্টা চালাচ্ছে। এই রেখা খাতুনই মূলত শিরিন খাতুন বলে রাষ্টপক্ষের কৌশুলী দাবি করেন। পরে আদালত সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য পুলিশ সুপারের তদন্ত প্রতিবেদন ৪ এপ্রিলের মধ্যে দাখিলের জন্য আদেশ দেন এবং আসামি রেখাকে পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদন না আসা পর্যন্ত জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। বর্তমানে শিরিন তথা রেখা যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের মহিলা ওয়ার্ডে বন্দি রয়েছেন।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২৪৩৮৫১৮০৫
আক্রান্ত
১৫৬৭৪১৭
সুস্থ
২২০৯৪৬৭৫৬
সুস্থ
১৫৩০৯৪১
শীর্ষ সংবাদ:
‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টকারীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি’         ‘সাম্প্রদায়িক হামলার দায় এড়াতে পারে না ফেসবুক কর্তৃপক্ষ’         নারীরা উদ্যোক্তা হিসেবেও অনেক ভূমিকা রাখছেন ॥ শিল্পমন্ত্রী         কৃষিপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে সারা বছরই আম পাওয়া সম্ভব ॥ কৃষিমন্ত্রী         শেখ হাসিনার সরকার হলো সবচেয়ে বেশি নারীবান্ধব ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         আবরার হত্যা মামলা ॥ ২৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড চায় রাষ্ট্রপক্ষ         বিপর্যস্ত তিস্তা অববাহিকা পরিদর্শনে বাপাউবোর প্রতিনিধি দল         অপরাধী যেই দলেরই হোক তার বিচার হবে ॥ আইনমন্ত্রী         বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সহায়তায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো ঘুরে দাঁড়াবে ॥ শিক্ষামন্ত্রী         পায়রা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী         আমিরাত গেলেন অর্ধলক্ষাধিক যাত্রী         নোয়াখালীতে মন্দিরে হামলা ॥ ৩ আসামির ‘স্বীকারোক্তিমূলক’ জবানবন্দি         চাঁদা না দেওয়ায় মোটরসাইকেল শো-রুমে ডাকাতি করেন চক্রটি         শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তাইওয়ান         যুক্তরাষ্ট্রসহ ১০ দেশের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করল তুরস্ক         কলম্বিয়ার মাদক সম্রাট অ্যাতোনিয়েল অবশেষে আটক         যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে গোলাগুলিতে নিহত ১         ভিডিও মিউট চালু হল গুগল মিটে