ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

শীতের অতিথি রাইসা আফরিন

প্রকাশিত: ০৫:৫৫, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭

শীতের অতিথি রাইসা আফরিন

প্রতিবছর শীতকাল এলেই জলাশয়, বিল, হাওড়, পুকুর ভরে যায় নানা রং-বেরঙের পাখিতে। আদর করে আমরা সেগুলোকে বলি অতিথি পাখি। মূলত এই অতিথি পাখিরা ঝাঁকে ঝাঁকে আমাদের দেশে হাজির হয় নিজেদের জীবন বাঁচাতে। অতিথি পাখিরা মূলত সুদূর সাইবেরিয়া থেকেই বেশি আসে। সাইবেরিয়ায় তখন প্রচুর শীতের আর্দ্রতা থাকে। ঠিক তাই তারা উষ্ণতার খোঁজে হাজার হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে আসে। পৃথিবীতে প্রায় ৫ লাখ প্রজাতির পাখি আছে। তবে শুধু ইউরোপ আর এশিয়ায়ই আছে প্রায় ৬০০ প্রজাতির পাখি। এদের মধ্যে আমাদের দেশে বেশি দেখা যায় বালি হাঁস, খয়রা চকাচকি, কার্লিউ, বুনো হাঁস, ছোট সারস পাখি, বড় সারস পাখি, ধূসর ও গোলাপি রাজহাঁস, বালি হাঁস, পাতিহাঁস, বুটিহাঁস, বৈকাল, নীলশীর পিয়াং, চীনা, পান্তামুখি, কালোহাঁস, রাজহাঁস, জলপিপি, পানি মুরগি ইত্যাদি। শীতপ্রধান এলাকায় খাবারেও দেখা যায় প্রচ* অভাব। কারণ শীতপ্রধান এলাকায় এ সময় তাপমাত্রা থাকে অধিকাংশ সময় শূন্যেরও বেশ নিচে। সেই সঙ্গে রয়েছে তুষারপাত। তাই কোন গাছপালা জন্মাতেও পারে না। তাই শীত এলেই উত্তর মেরু, সাইবেরিয়া, ইউরোপ, এশিয়ার কিছু অঞ্চল, হিমালয়ের আশপাশের কিছু অঞ্চলের পাখিরা ঝাঁকে ঝাঁকে চলে আসে কম ঠা-া অঞ্চলের দিকে। আবার শীত কমলে নিজ দেশে ফিরে যায়। ভিকারুননিসা নুন স্কুল এ্যান্ড কলেজ শ্রেণি-১০ম
monarchmart
monarchmart