বৃহস্পতিবার ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সমাজ ভাবনা ॥ বিষয় ॥ আলোচনায় যখন রেইন ট্রি

  • বৃষ্টিবৃক্ষ নাকি বিষবৃক্ষ!;###;অরুণ কুমার বিশ্বাস

নামখানা চমৎকার- রেইন ট্রি। স্বদেশী গাছ কিন্তু বিদেশী নাম। এহেন বৃষ্টিবৃক্ষের নিচে শুধু পানীয় নয়, আরও অনেক কিছুই খাওয়া হয়। পকেটে যেহেতু টাকার হাহাকার নেই, বরং কড়কড়ে নোটের বাহারি গন্ধে অনেককেই তারা ভুলিয়ে-ভালিয়ে নিয়ে যায় সেই সরাইখানায়। সেখানে পানের পাশাপাশি নারীর সম্ভ্রম নিয়েও টানাটানি করে ওরা। বিদেশী নাটক-নভেলে ‘পাব’ বা রাস্তার পাশের পানশালার চিত্র দেখেছি। সেখানে পানটান হয়, কিন্তু কারও পরনের পোশাক নিয়ে টানাটানি করে না কেউ। একটা সময় ছিল, যখন দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করি বলে আক্ষেপের অন্ত ছিল না। অথচ এখন চরিত্রসীমার নিচে বাস করেও এতটুকু লাজলজ্জার বালাই নেই!

ঘটনার কয়েকদিন পর রেইন ট্রি কর্তৃপক্ষ এই মর্মে বগল বাজাতে শুরু করে, সেখানে আদতে তেমন কিছুই ঘটেনি। যা কিছু ঘটেছে স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার ভিত্তিতে। একেই বলে শুঁড়ির সাক্ষী মাতাল। বা বলা যায়, এটা একটা চক্র। মিলেমিশে এসব দুষ্কর্ম করে বেড়ায় দুর্ধর্ষ এই সিন্ডিকেট সদস্যরা। সোনার ছেলেরা বাপের পকেট কেটে বা তার সদয় প্রশ্রয়ে বৃষ্টিবৃক্ষের তলায় এসে মিলিত হয়। তারপর এককাট্টা হয়ে ড্রাইভার, বডিগার্ড নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে নারীর ওপর। মানবতাকে নস্যাৎ করে লুটে নেয় নারীর সম্ভ্রম।

প্রশ্ন হলো, এমন বিষবৃক্ষ কি শুধু একটি বা দুটি! বাস্তবে এ জাতীয় সরাইখানা শহরে আরও অনেক আছে। সেখানে নিত্য রাতে ওরা লুকোচুরি খেলে। টাকার মোড়কে ঢেকে দেয় ছোট-খাট অন্যায়-অপরাধ। মিডিয়া তা জানতে পারে না, ফলে লোকলজ্জার ভয়ে, বা নিরুপায় হয়ে অসহায় নারী মুখ বুজে সব মেনে নিতে বাধ্য হয়।

এই সিন্ডিকেটে শুধু নারী নয়, ধরা দেয় আরও অনেক কিছু। চোরাকারবার তার অন্যতম। নইলে এমন অবলীলায় টাকা ওড়াবার সময় ওদের আসে কোত্থেকে! এরা কি ঠিকঠাক আয়কর দেয়! প্রশ্নই আসে না। অবৈধ ইনকাম ছাড়া কি অন্যায় সুযোগ নেয়া যায়! এখন সময় এসেছে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এসব অশুভ আস্তানা ভেঙ্গে ফেলার। কেবল মিডিয়া নয়, এই দায়িত্ব আমাদের সবার। বিশেষ করে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের। দেশের প্রায় অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারীই যদি মুক্তবাক কিংবা মুক্তপ্রাণ চলাচল করতে না পারে, তাহলে উন্নয়ন কীভাবে হবে!

কাউকে সাপে কাটলে মিছে রোগীর দোষ না দিয়ে ওঝা ডাকার ব্যবস্থা করা ভাল। সেই সঙ্গে সাপ যাতে তার সদন্ত বের করে পুনর্বার কাউকে আহত করতে না পারে, তাই সবাই মিলে সাপটিকে জনসমক্ষে এনে তার বিষদাঁত উপড়ে ফেলতে হবে। আমরা আর কোন রেইন ট্রি দেখতে চাই না। বিষবৃক্ষগুলোকে অচিরেই উপড়ে ফেলা হোক।

মোহাম্মদপুর, ঢাকা থেকে

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২৪৫৪০৪৪৯৬
আক্রান্ত
১৫৬৮৫৬৩
সুস্থ
২২২৪৫৬৫৬৯
সুস্থ
১৫৩২৪৬৮
শীর্ষ সংবাদ:
সেনাবাহিনী বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে         ইংল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হার বাংলাদেশের         নীলনক্সা লন্ডনে         ‘গরিবের আইনজীবী’ বাসেত মজুমদারের ইন্তেকাল         পাটুরিয়ায় তলদেশ দিয়ে পানি ঢুকে ফেরিডুবি         দেশে প্রতি চারজনে একজন স্ট্রোকে আক্রান্ত         মূল্যস্ফীতি সরকারের নিয়ন্ত্রণে ॥ অর্থমন্ত্রী         প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা প্যাকেজে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়িয়েছে         জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর চিন্তা ॥ জনজীবনে চাপ পড়ার শঙ্কা         বাবুলের মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে নারাজির শুনানি         কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করা হচ্ছে         হামলা করে সার্বভৌমত্ব হুমকির মধ্যে ফেলে দেয়া হয়েছে         ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পে কোন ফাটল সৃষ্টি হয়নি         বৃহস্পতিবার গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ         ১ ফেব্রুয়ারিতে হচ্ছে না এসএসসি পরীক্ষা : শিক্ষামন্ত্রী         বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প পুরস্কার পাচ্ছে ২৩ প্রতিষ্ঠান         করোনা: গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৭, নতুন শনাক্ত ৩০৬         কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে ১৮ দিন         গুলশানে ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণ, শিশুসহ দগ্ধ ৪         টেকসই উন্নয়নের জন্য চাই ঐক্যবদ্ধ সামাজিক শক্তি