মঙ্গলবার ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অভ্যাস ৭ ॥ করাতটা ধার দাও

  • জাকারিয়া স্বপন

(চতুর্থ পর্ব)

‘করাত ধার দেয়া’ নিয়ে তিন সপ্তাহ ধরে লিখছি। আমার কাছে মনে হয়েছে এটাই সবচেয়ে অমূল্য অভ্যাস, যা আমাদের নতুন করে তৈরি করতে পারে, আমাদের শাণিত রাখতে পারে। আপনার জীবনের চারটি দিককে ব্যালেন্স করতে পারলে আপনি আপনার করাতটি আজীবন ধার দিয়ে রাখতে পারবেন। সেগুলো হলো শারীরিক, আধ্যাত্মিক, মানসিক এবং সামাজিক-আবেগ।

ড. স্টিফেন কোভের লেখা ‘দি সেভেন হ্যাবিটস অব হাইলি ইফেক্টিভ পিপল’ বইটিতে যে সাতটি অভ্যাসের কথা বলা হয়েছে তার সপ্তম অভ্যাসটি হলো ‘শার্পেন দি স’Ñ বাংলায় আমি যাকে বলছি ‘করাতটা ধার দাও’। গাছ কাটলে করাত ভোঁতা হবেই। এটার যে ধার চলে গেছে সেটা অনেকেই বুঝতে পারি না। কিন্তু সেই ভোঁতা করাত দিয়েই গাছ কাটার চেষ্টা করি। পরিশ্রম হয় বেশি, ফলাফল পাওয়া যায় কম। তাই করাত ধার দেয়াটা জরুরী।

করাত ধার দেয়ার অভ্যাসটি হলো সপ্তম অভ্যাস। এই অভ্যাসটি মূলত অন্য ছয়টি অভ্যাসকে কাজ করতে সাহায্য করে। এই অভ্যাসটি না থাকলে একটা সময়ে গিয়ে আপনার বাকি অভ্যাসগুলো ভেঙ্গে পড়বে। বাকি ছয়টি অভ্যাসকে সচল রাখার জন্য এই অভ্যাসটি গড়ে তুলুন।

গত সপ্তাহগুলোতে লিখেছিলাম শারীরিক, আধ্যাত্মিক, মানসিক এবং সামাজিক বিস্তার নিয়ে। আজকে লিখছি এর উপসংহারটুকু।

শীর্ষ সংবাদ:
নুর-মামুনদের গ্রেফতারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি         ভারতে দৈনিক করোনাভাইরাস সংক্রমণে বড়সড় পতন ঘটেছে         এমসি’তে গণধর্ষণ ॥ কলেজ কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা চ্যালেঞ্জ করে রিট         নকল মাস্ক সরবরাহ ॥ জেএমআই চেয়ারম্যান গ্রেফতার         এমসি কলেজে গণধর্ষণ ॥ আরও ৩ জন রিমান্ডে         সুনির্দিষ্ট আশ্বাস না পেলে রাজপথ ছাড়বেন না সৌদি প্রবাসীরা         এইচএসসি পরীক্ষা গ্রহণে বোর্ডের তিন প্রস্তাব         দুই আসামির জামিন বাতিলে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট         জাহালমের ক্ষতিপূরণের রায় পিছিয়ে বুধবার         এমসি কলেজে ধর্ষণ ॥ মামলার এজাহারভুক্ত শেষ আসামি গ্রেফতার         ওয়ানডে দিয়ে শুরু বাংলাদেশের নিউ জিল্যান্ড সফর         স্লোভেনিয়ায় বাংলাদেশিসহ ১১৩ অভিবাসী আটক         আজারবাইজানে আর্মেনীয় আগ্রাসনের নিন্দা ওআইসি-র         আজারবাইজান- আর্মেনিয়া যুদ্ধ ॥ নিহত বেড়ে ৯৫         বিশ্বে করোনায় প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ৫৪০০ জনের বেশি প্রাণহানি         জরুরি বৈঠকে বসছে নিরাপত্তা পরিষদ         মালির নতুন প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা         ফিলিস্তিনি কিশোরকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিল ইসরাইল!         আজারবাইজানে চার হাজার যোদ্ধা পাঠিয়েছে তুরস্ক : আর্মেনিয়া         পুঁজিবাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে