২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আছেন ‘সি আর সেভেন’, নেই ‘এমএসএন’


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবলের গ্রুপ পর্ব শেষ হয়েছে। ড্রও সম্পন্ন হয়েছে শেষ ষোলোর। গ্রুপ পর্বের পারফর্মেন্সের ভিত্তিতে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেরা একাদশ গঠন করেছে। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, এই তালিকায় ঠাঁই হয়নি ‘এমএসএন’ খ্যাত বার্সিলোনার তিন সুপারস্টার লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ ও নেইমারের।

তবে সেরার তালিকায় ঠিকই আছেন রিয়াল মাদ্রিদ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সিলোনা। দলটির মেসি ও নেইমার আছেন ফিফা ব্যালন ডি’অরের সংক্ষিপ্ত তিনজনের তালিকাতেও। অথচ তাদেরই ঠাঁই হয়নি চ্যাম্পিয়ন্স লীগের গ্রুপ পর্বের সেরা একাদশে। বার্সিলোনার নকআউট পর্বে ওঠার পথে বড় অবদান আছে উরুগুয়ের স্ট্রাইকার সুয়ারেজের। দলের সর্বোচ্চ ৫ গোল করেন তিনি। তারও জায়গা হয়নি তালিকায়। গ্রুপ পর্বের ছয় ম্যাচে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ মিলে মোট ১০ গোল করেন। চার জয় ও দুটি ড্রয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে সেরা ষোলোতে ওঠে বার্সিলোনা। গত মৌসুমে বার্সাকে ঐতিহাসিক ট্রেবল জেতানো এই আক্রমণত্রয়ী এবারও খেলছে দুর্দান্ত। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এখন পর্যন্ত তারা তিন জন মিলে ৪৬ গোল করেছেন। এরপরও বিচারকদের মন ভরাতে পারেননি তারা।

সবচেয়ে অবাক ব্যাপার চ্যাম্পিয়ন বার্সার কেউ এই তালিকায়। সর্বোচ্চ দু’জন করে খেলোয়াড় আছেন জার্মান চ্যাম্পিয়ন বেয়ার্ন মিউনিখ ও ফরাসী চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেন্ট জার্মেইনের (পিএসজি)। বাকি ৭ জন সাতটি ভিন্ন ক্লাবের। রোনাল্ডো জায়গা পেয়েছেন প্রত্যাশিতভাবেই। গ্রুপ পর্বে প্রথম কোন খেলোয়াড় হিসেবে দুই অঙ্কের গোলের রেকর্ড গড়েছেন তিনি। তাকে না রাখার কোন উপায়ই হয়ত ছিল না! ৪-৩-৩ ফরমেশনে আক্রমণে সি আর সেভেনের সঙ্গী হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে বেয়ার্ন ফরোয়ার্ড টমাস মুলার (৫ গোল, দুই এ্যাসিস্ট) ও জেনিত সেন্ট পিটার্সবার্গের ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার হাল্ককে (৩ গোল, ৪ এ্যাসিস্ট)। একাদশে মেসির না থাকাটা অনুমিতই ছিল। চোটে দুই মাস মাঠের বাইরে থাকার কারণে গ্রুপপর্বে ম্যাচই খেলেছেন মাত্র তিনটি। অবশ্য মেসি-নেইমার-সুয়ারেজের চেয়েও বেশি চমক জাগার কথা রবার্ট লেভানডোস্কির বাদ পড়া। এবার বেয়ার্নের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ৭ গোল করেছেন এই পোলিশ স্ট্রাইকার, গোলদাতার তালিকায় রোনাল্ডোর পর তার অবস্থান। মিডফিল্ডে ইপিএলে ধুঁকতে থাকা চেলসিকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে গ্রুপ শীর্ষে ওঠানোর পুরস্কার পেয়েছেন উইলিয়ান। ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের ৫ গোলে ভর করে আরও বড় লজ্জা থেকে বেঁচে গেছে ব্লুজরা। মিডফিল্ডে উইলিয়ানের সঙ্গী ম্যানচেস্টার সিটির রাহিম স্টার্লিং ও জেন্টের সভেন কুমস। জুভেন্টাসকে টপকে সিটির গ্রুপ শীর্ষে ওঠার পেছনে স্টার্লিংয়ের তিন গোল ও এক এ্যাসিস্টের অবদান অনেক। রক্ষণে পিএসজির দাপট বেশি। দলটির অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা ও গোলরক্ষক কেভিন ট্র্যাপ আছেন সেরা একাদশে।

অবশ্য উয়েফার বিবেচনায় সেরা একাদশে জায়গা না হলেও বার্সিলোনা ডিফেন্ডার জ্যাভিয়ের মাশ্চেরানোর দৃষ্টিতে বর্তমানের সেরা তিন ফুটবলার হলেন, মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ। সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, এটাই আমার দেখা সেরা ত্রয়ী। বলা যায়, আমরা এ রকম কিছু আর দেখতে পারব না। সবচেয়ে বিস্ময়কর বিষয় হলো, খুব ভালভাবে তারা পরস্পরের পরিপূরক এবং তাদের প্রত্যেকে আমাদের জন্য ভিন্ন কিছু নিয়ে আসে।

চ্যাম্পিয়ন্স লীগের গ্রুপ পর্বের একাদশ

গোলরক্ষক-কেভিন ট্র্যাপ (পিএসজি), ডিফেন্ডার-থিয়াগো সিলভা (পিএসজি), দিয়াগো গডিন (এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ), ডেভিড এ্যালবা (বেয়ার্ন মিউনিখ), আন্দ্রে বারজাগলি (জুভেন্টাস), মিডফিল্ডার- সভেন কুমস (জেন্ট), উইলিয়ান (চেলসি), রাহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি), ফরোয়ার্ড-টমাস মুলার (বেয়ার্ন মিউনিখ), হাল্ক (জেনিট) ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (রিয়াল মাদ্রিদ)।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: