ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

৬ দফা দাবীতে কমলাপুরে অবস্থান কর্মসূচী পালন রেলওয়ে শ্রমিকদের

প্রকাশিত: ১৯:৫১, ১৬ অক্টোবর ২০২২

৬ দফা দাবীতে কমলাপুরে অবস্থান কর্মসূচী পালন রেলওয়ে শ্রমিকদের

রেলওয়ে শ্রমিক

আউটসোর্সিং খাত বাতিল করে অস্থায়ী ভিত্তিতে লোক নিয়োগ পদ্ধতি চালুসহ ৬ দফা দাবী জানিয়েছেন রেলওয়ের শ্রমিক কর্মচারিরা। 

তাদের দাবীগুলো হলো- 

১. বাংলাদেশ রেলওয়েতে কর্মরত অস্থায়ী শ্রমিকদের স্থায়ী করতে হবে। 

২. নিয়োগবিধি ২০২০ সংশোধন করে আগের মতো ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারীদের ৮ম শ্রেণি পাস বহাল রাখতে হবে। 

৩. আউটসোর্সিং খাত বাতিল করে অস্থায়ী খাত চালু রাখতে হবে। 

৪. কর্মচারীদের সব বকেয়া বেতন অতি দ্রুত পরিশোধ করতে হবে। 

৫. অস্থায়ী কর্মচারীদের ক্ষমতার বলে অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুত করা যাবে না। 

৬. রেলওয়েতে প্রচলিত আইনানুযায়ী দৈনিক ৮ ঘণ্টা ডিউটি নির্ধারণ করতে হবে এবং নিরাপদ কর্মস্থল নিশ্চিত করতে হবে।  

রবিবার কমলাপুরে রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় প্রশাসন ভবনের সামনে এক অবস্থান কর্মসূচী তারা এই দাবী জানায়। 

রেলওয়ের অস্থায়ী শ্রমিক পরিষদের নেতা দেলোয়ার হোসেন বলেন, এখানে দারোয়ান, রেলওয়েত ব্রিটিশ আমল থেকেই অস্থায়ী শ্রমিকরা ছিলেন। পরবর্তিতে তাদেরকে শ্রম আইনের ভিত্তিতে স্থায়ীকরণ করা হতো। কিন্তু বর্তমানে তা কার্যকর হচ্ছে না। শ্রম আইনে বলা আছে, অস্থায়ীভাবে তিন বছর কাজ করার পরে রাজস্ব খাতে চাকরি স্থায়ী হবে। 

বাংলাদেশ রেলওয়ে ২০১৭ সালে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে। কিন্তু বিষয়টি এখন পর্যন্ত কার্যকর হয়নি। রেলের ইঞ্জিনসহ বিভিন্ন পদে অস্থায়ীভাবে মোট ৭ হাজার শ্রমিক কর্মরত আছেন। আমাদের ৪ মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে। অবিলম্বে তা পরিশোধ না করলে আমরা কঠোর আন্দোলনে যাব।

রেলওয়ে শ্রমিকরা বলেন, গত ৩০ জুন’ ২০২২ রেলের সব স্থায়ী শ্রমিককে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য একটি চিঠি জারি করে। এসময় রেলের চট্টগ্রাম ও লালমনিরহাট বিভাগের ক্যারেজ শ্রমিকদের কাজ থেকে বাইরে রাখা হয়। ধীরে ধীরে সব অস্থায়ী শ্রমিককে বাদ দেওয়ার পরিকল্পনা চলছে। 

গত জুন মাস থেকে আমাদের কাজের কোনো বাজেট নেই। আমরা রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, সচিব হুমায়ুন কবির, মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদারের কাছে চিঠি দিয়েছি। রেলের মহাপরিচালক আমাদের বলেছেন, আগামী ডিসেম্বরের পর তোমাদের চাকরি নেই’। তাই ছয় দফা দাবী বাস্তবায়ন না হলে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালনের হুশিয়ারী দেয় শ্রমিকরা।

এ বিষয়ে কমলাপুর রেলওয়ের স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারোয়ার বলেন, ‘বিভিন্ন দাবী নিয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে রেলওয়ে অস্থায়ী শ্রমিকরা আন্দোলন করছে।’ তবে এতে রেলওয়ে চলাচলে কোন সমস্যা হচ্ছে না বলে জানান তিনি।

 

আকাশ/এমএস

সম্পর্কিত বিষয়:

×