ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

মন্ত্রিপরিষদ সচিবের ব্রিফিং

পদ্মা সেতুতে ঈদের আগে বাইক চলবে না

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ৩ জুলাই ২০২২

পদ্মা সেতুতে ঈদের আগে বাইক চলবে না

.

ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চালু হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই পদ্মা সেতুতে হাঁটলে দেয়া হবে কঠোর শাস্তি পাশাপাশি পদ্মা সেতুর স্ক্রু খোলার বিষয় ব্যাখ্যা দিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ ছাড়া নতুন পারিবারিক আদালত আইন, ২০২২’-এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা একই সঙ্গে মন্ত্রিসভা দেশে উপাদিত দুধ সংরক্ষণে প্রতি জেলায় সংরক্ষণাগার তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাই করার নির্দেশ দিয়েছে

রবিবার মন্ত্রিসভা বৈঠকে এই অনুমোদন ও নির্দেশ দেয়া হয় মন্ত্রিসভা বৈঠকের পর সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি মন্ত্রিসভা বৈঠক হয় প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে এবং মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলার বিষয়ে কী সিদ্ধান্ত- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটা নিয়ে কর্তৃপক্ষ কাজ করছেন পদ্মাতে কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তার ক্যামেরা বসবে, স্পিডগানও বসানো হচ্ছে এগুলো বসলে তারপর ওনারা সুবিধা অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেবেন, কী করা যায়

ঈদের আগে চালু হতে পারে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদের আগে হওয়া খুব ডিফিকাল্ট, আমার মনে হচ্ছে ঈদের আগে মনে হয় না

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পদ্মা ব্রিজে মানুষের হাঁটার কোন স্কোপ নেই কোন ফুটপাথ রাখা হয়নি এখানে চলাফেরার কোন সিস্টেমও নেই নিচের রেলব্রিজে একটা ট্র্যাক রাখা হয়েছে ওপরে একটা সার্ভিস লেন আছে, দুই পাশে যখন মেইনটেন্যান্সের কাজ করবে, যারা করবেন তারা এসে তাদের গাড়িটা সাইডে রেখে ওই সার্ভিস লেনে চলাফেরা করতে হবে

তিনি বলেন, ওপরে যদি কেউ যায়, কেউ থামে, এরই মধ্যে পরশুদিন রাতেও আমাকে ফোন করেছে, তিন-চারজনকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ধরে নিয়ে গেছে গাড়ির জরিমানা দিতে পারেনি, এগুলো কিন্তু আরও কঠোরভাবে দেখা হবে

গত ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী পরদিন ২৬ জুন ভোর থেকে সব ধরনের যানবাহনের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে পদ্মা সেতু এরপর সেতু পার হওয়া যানবাহনের মধ্যে মোটরসাইকেলের উপস্থিতি দেখা গেছে সবচেয়ে বেশি ওই দিনই পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটে এতে দুজন মারাত্মক আহত হন, পরে তারা হাসপাতালে মারা যান পরে ২৭ জুন থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করে সরকার

পদ্মা সেতুর নাটবল্টু খুলে টিকটক ভিডিও বানিয়ে ভাইরাল হওয়া যুবক পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন সেতুর ঢিলা নাট-বল্টু নিয়ে হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা রবিবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের ব্রিফিংয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, স্ক্রু খোলার কথাটা আসছে, ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ডে আমাদের যে ওয়ালটুকু আছে অতটুকু দিয়েই গাড়ি চলে কিন্তু আমাদের রোডস এ্যান্ড হাইওয়ের স্ট্যান্ডার্ড চার ফুট সেজন্য আরও এক ফুট উঁচু করে রেলিং দেয়া হয়েছে এটা মানুষের সেফটির জন্য নয়, এটা আমাদের স্ট্যান্ডার্ডটাকে কাভার করার জন্য

তিনি বলেন, দুই-তিন মাস আগে আমি এবং পদ্মার কয়েকজন কনসালটেন্ট ও পিডিসহ লেটেস্ট সবচেয়ে বড় ব্রিজ যেটা কুয়েতে উদ্বোধন করা হয়েছে, সেটা সাগরের মধ্যে ৩৬ কিলোমিটার, সেটা আমরা দেখে এলাম, আমাদের যেটুকু ওয়াল ওদের অতটুকু গ্রিল দিয়ে প্রটেকশন দিয়েছে ওয়ালের মধ্যে গাড়ি ধাক্কা খেলে ফেরত আসবে কিন্তু ওরা গ্রিল দিয়ে প্রটেকশন দিয়েছে ওদের প্রটেকশনটা আমাদের ওয়াল যতটুকু ততটুকুই

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন বিকেলে কোরিয়ান এক্সপ্রেস কর্পোরেশন টেকওভার করেছে, পরের দিন থেকে তারা টোল ম্যানেজমেন্ট ও মেইনটেনেন্স দেখবে কোরিয়ান এক্সপ্রেস কর্পোরেশন হলো ওয়ার্ল্ডের বেস্ট কোম্পানি, যারা হাইওয়ে ও ব্রিজ ম্যানেজমেন্ট করে ওরা ১৭ কিলোমিটার দীর্ঘ ব্রিজের ডিজাইনার ও টোল ম্যানেজমেন্ট করে ওদের ওই ব্রিজে লোকজন হাঁটতে পারে না এখন তারা অডিট করবে প্রত্যেকটা জয়েন্ট আছে, নাট আছে অডিট করে নিজেরা ঠিক করতে পারে, টাইট করে দেবে

সুতরাং বিভিন্ন জায়গায় যে কনফিউশন আছে, এটার সঙ্গে সেফটি-সিকিউরিটির কোন সম্পর্ক নেই

পদ্মার ওপরে মানুষ যাওয়ার কোন সিস্টেম রাখা হয়নি বলে জানান সেতু বিভাগের সাবেক সচিব খন্দকার আনোয়ারুল তিনি আরও বলেন, উদ্বোধনের দিন আমরা বললাম, এটা এক শবছরের গ্যারান্টি আছে সেজন্য সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে আমাদের আবেগ আছে, আবেগকে আমরা অবশ্যই সাধুবাদ জানাই কিন্তু সবার আগে নিরাপত্তার জন্য সহযোগিতা করতে হবে

পারিবারিক আদালত আইন নতুন পারিবারিক আদালত আইন, ২০২২’-এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আগের আইনটি সামরিক শাসনামলের ১৯৮৫ সালে একটি ফ্যামিলি কোর্ট অর্ডিন্যান্স হয়, সেই অর্ডিন্যান্সে পারিবারিক বিষয়গুলো দাম্পত্য কলহ, তালাক, ম্যারিজ রেস্টোরেশন, শিশুদের ভরণপোষণ- এ বিষয়গুলো ছিল এর আগে এ বিষয়গুলো ফৌজদারি কার্যবিধির ৪(৮৮)-তে বিবেচ্য হতো হাইকোর্টের বিধি-বিধান অনুযায়ী এটিকে (সামরিক শাসনামলের অধ্যাদেশ) আইনে পরিণত করতে হবে, তাই এ আইনের খসড়াটি নিয়ে আসা হয়েছে

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আগে যেটা ছিল মোটামুটি সেটাই আছে এখানে ৩১টি ধারা আছে বিবাহবিচ্ছেদ, দম্পত্য অধিকার পুনরুদ্ধার, দেনমোহর, ভরণপোষণ এবং শিশু সন্তানদের অভিভাবকত্ব ও তত্ত্বাবধান সংক্রান্ত বিষয়গুলো এ আদালত বিবেচনায় নেবে

একটাই মূল পরিবর্তন আনা হয়েছে সেটা হলো- আগে ছিল যে আদালতে রায় হবে সেটার আপীল কর্তৃপক্ষ ছিলেন জেলা জজ এখন সংশোধন এনে বলা হচ্ছে, জেলাপর্যায়ে আরও জজ আছেন, নারী-শিশু বা শ্রম আদালত শুধু জেলা জজ বললে ওনার ওপর একটু বেশি চাপ পড়ে যায় সরকার যদি মনে করে কোন জেলাতে আপীলের জন্য অতিরিক্ত মামলা আছে, সেক্ষেত্রে জেলা জজপর্যায়ের অন্যান্য যে জজরা রয়েছেন, তাদেরও আপীল আদালত হিসেবে বিবেচনা করা যাবে

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, আবার মামলার ক্ষেত্রে ফি যেটা ৫০ টাকা ছিল, সেটাকে ২০০ টাকা করা হয়েছে কারণ ১৯৮৫ সালে কোর্টে মামলা করলে ৫০ টাকা দিতে হতো যদিও বাড়িয়ে এখন যেটা করা হয়েছে, সেটাও অনেক কম কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে একটু অসহায় মেয়েরা এসে মামলা দায়ের করে সেটা বিবেচনা করে ফি বাড়ানো হয়নি

সব জেলায় দুধ সংরক্ষণাগার তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের নির্দেশ দেশে উপাদিত দুধ সংরক্ষণে প্রতি জেলায় সংরক্ষণাগার তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাই করার নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘বাংলাদেশ ডেইরি উন্নয়ন বোর্ড আইন-২০২২এর নীতিগত অনুমোদনের জন্য নিয়ে এসেছে মস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় দেশে যে পরিমাণ দুধ উপাদন হয় গরু বা ছাগলের সেগুলো মনিটরিং করা হচ্ছে না, গুণগতমান নির্ধারণ করা হচ্ছে না বা টেকনিক্যাল সাপোর্ট আমরা দিতে পারছি না

তিনি বলেন, আমরা যদি কম্প্রিহেনসিভভাবে মানুষকে টেকনোলজি দিতে পারি, আরও উন্নত গাভী বা খাদ্যের ব্যবস্থা যদি করতে পারি এবং এগুলোকে প্রক্রিয়া করতে পারি, একইসঙ্গে দুধগুলো যদি স্টোর করা যায়, যেভাবে খাদ্যদ্রব্য কোল্ডস্টোরে আমরা রাখি, এভাবেই যদি প্রতিটি জেলায় রক্ষণাগার সুবিধা করা যায়, তাহলে আমাদের উপাদনকারীদের সুবিধা হবে এতে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে প্রোটিন গ্রহণের ক্ষেত্রে

তিনি আরও বলেন, আলোচনা করে দেখা গেলো, মিল্কভিটাও প্রায় একই কাজ করছে তবে মিল্কভিটারটা সমবায়ের ভিত্তিতে হচ্ছে এটা কিভাবে হবে, যারা পৃথকভাবে দুধ উপাদন করে, তাদের ওপর কঠোর কোন ইমপোজিশন আসে কিনা- সেজন্য আইনটা সম্মতি না দিয়ে দুই মাস সময় দেয়া হয়েছে

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, সমবায় বিভাগ, মিল্কভিটা, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বসে বিশেষ করে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, ক্যাবের সঙ্গে বসে যেন কোনভাবেই এই জিনিস বার বার না আসে, এজন্য আইনটা আবার নিয়ে আসবেন এটা অবজারভেশন দিয়ে খসড়াটি ফেরত দেয়া হয়েছে

ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২