ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

এয়ার কুলার ব্যবহারে বিদ্যুৎ বিল আসবে কম ঘর হবে এসির মত ঠান্ডা

প্রকাশিত: ১২:৫৫, ১৮ মে ২০২৪

এয়ার কুলার ব্যবহারে বিদ্যুৎ বিল আসবে কম ঘর হবে এসির মত ঠান্ডা

এয়ার কুলার

আবহাওয়ার অত্যাচারে জনজীবন অতিষ্ঠ। এই গরম তো এই বৃষ্টির জন্য ঠান্ডা। ঠান্ডা মেনে নেয়া গেলেও গরম মানা যাচ্ছে না। অনেকেই কিনছে এসি আবার  যাদের বাজেট আরেকটু কম তারা প্রচণ্ড গরমে স্বস্তি পেতে অনেকেই ভরসা রাখছেন এয়ার কুলারে।

এয়ার কন্ডিশনারের চেয়ে কম খরচ হওয়ায় এটি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এসির মতো এয়ার কুলারে ঘর ঠান্ডা হয় না। কিছু টিপস জানা থাকলে এয়ার কুলারেই এসির মতো ঠান্ডা হবে ঘর। সেই সঙ্গে বিদ্যুতের বিলও আসবে অনেক কম।

দেখা যায়, কুলার চালাতে গিয়ে ছোটখাটো ভুল করে ফেলেন ব্যবহারকারীরা। আর সেই কারণেই সেখান থেকে নির্গত হয় গরম হাওয়া, এমনকি কখনো কখনো দুর্গন্ধও বেরোতে শুরু করে। তা-ই নয়, কুলারের পাখা থেকে ধুলাবালি আসারও আশঙ্কা থাকে।

আসলে কুলার চালানো সময় অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ব্যবহারকারীরা একইসঙ্গে এর পাম্প এবং ফ্যান চালু করে দেন। আর এমনটা হলে যেটা ঘটে সেটাই দেখে নেওয়া যাক।

এদিকে ঘাস দীর্ঘ সময় ধরে শুষ্ক হয়ে থাকে। ফলে পাম্পটি চালু করার সঙ্গে সঙ্গেই তার উপর পানি পড়তে থাকে। আর একসঙ্গে কুলারের ফ্যান চালু করলেই সামনের দিক থেকে যে হাওয়া আসে, তা শুরুর দিকে বেশ গরম থাকে। আর এখানেই শেষ নয়, হাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটা অদ্ভুত গন্ধও আসতে থাকে। এছাড়া কুলারের ফ্যান এবং পাম্প একসঙ্গে চালু করলে দ্রুত ধুলোবালি আসার আশঙ্কাও থেকে যায়।

ঠান্ডার সঙ্গে বাতাসেও ছড়িয়ে পড়বে সুগন্ধ: কেউ যদি কুলার চালু করার সঙ্গে সঙ্গেই ঠান্ডা বাতাস চান, তাহলে তাকে একটি সহজ কাজ করতে হবে। 

জেনে নিন কী করবেন-

যখনই কুলার চালু করা হবে, প্রথমে ৪-৫ মিনিট সময়ের জন্য পাম্প চালু রাখতে হবে। কুলারের ঘাস যতক্ষণ না পুরোপুরি ভিজছে, ততক্ষণ পাম্পটি চালিয়ে রাখতে হবে। এরপর ঘাস সম্পূর্ণ রূপে ভিজে গেলে তবেই কুলারের ফ্যানটি চালু করতে হবে। আসলে যখন ফ্যানের থেকে বাতাসটা টেনে নেবে, তখন তা সামনে দিয়ে শীতল এবং সুগন্ধি বাতাস নিক্ষেপ করবে।

শিলা

×