ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

এ সময়ে ত্বকের যত্ন

প্রকাশিত: ২২:১৩, ২৬ মার্চ ২০২৩

এ সময়ে ত্বকের যত্ন

.

পুরো এক মাস সিয়াম সাধনায় ত্বক পানিশূন্য হয়ে পড়ে। রমজানে সারাদিন রোজা রাখার পর ত্বক কিছুটা প্রাণহীন নিস্তেজ হয়ে পড়ে। পানির অভাবে ত্বক আর্দ্রতা হারায়। সিয়াম সাধনার পাশাপাশি সহজেই ঘরোয়া যত্নে কিছু কার্যকরী টিপস দিয়েছেনসাবরিনা মেহেদী অ্যান্ড মেকওভার- এর স্বত্বাধিকারী সাবরিনা মাহবুব

ব্রণ দূর করতে করণীয় : সারাদিন রোজা রেখে ইফতারিতে ভাজা তৈলাক্ত খাবার খেয়ে থাকে। ফলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। এর ফলে ব্রণ হয়। ত্বক হয়ে পরে নিস্তেজ প্রাণহীন।

কাঁচা হলুদ চন্দন কাঠের গুঁড়া ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। সমপরিমাণ কাঁচা হলুদ বাটা চন্দনের গুঁড়া একসঙ্গে নিয়ে সামান্য মধু গোলাপজল দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে মুখে লাগাতে হবে। এই মিশ্রণটি নিয়মিত ব্যবহারে ব্রণ তো দূর হবেই, সঙ্গে ব্রণের দাগও দূর করতে সাহায্য করবে।

রোজা রাখার পরেও ত্বকের জেল্লা বাড়বে : রোদে শুকানো কমলা লেবুর খোসা মসুরডাল একসঙ্গে বেটে মধু মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে মুখে ব্যবহার করলে ত্বকের জেল্লা বাড়বে।

আপনি চাইলে এই মিশ্রণের সঙ্গে চামচ কাঁচা দুধও ব্যবহার করতে পারেন। কিছু পর উষ্ণ গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।

মুখের পাশাপাশি হাত-পায়ের যত্ন : ত্বকের কালো দাগ বা পোড়া দাগ দূর করতে তিন ধাপ অবলম্বন করতে হবে। প্রথমে ভালো কোনো ক্রিম দিয়ে ম্যাসেজ করতে হবে। দ্বিতীয়ত ত্বকে হালকা ভাপ নিতে হবে। শেষ ধাপে চালের গুঁড়া, বেসন, সামান্য লেবুর রস এবং টক দই মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে ত্বকে লাগিয়ে আস্তে আস্তে ম্যাসেজ করতে হবে। ১০-১৫ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলে ময়শ্চারাইজার লাগাতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের জেল্লা বাড়বে।

ত্বক ফেটে যাওয়া থেকে যেভাবে রক্ষা পাবেন : সারাদিন রোজা রাখার ফলে শরীর পানিশূন্য হয়ে যায়। সময় ত্বকের আর্দ্রতা কমে গিয়ে ত্বক প্রাণহীন শুষ্ক হয়ে পড়ে।

যাদের ত্বক শুষ্ক তারা লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করবেন। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা ওয়াটার বেইজড ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। ত্বকের শুষ্কতায় সহজ ঘরোয়া প্যাক : টমেটো, কলা, শসা একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ইফতারের ঘণ্টাখানেক পর ত্বকে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটি নিয়মিত করলে দেখবেন ত্বকের শুষ্কতা কেটে যাবে।

×