ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মার্কিন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিজিএমইএর বৈঠক

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৩৩, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের দাবি

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের দাবি

তৈরি পোশাক কারখানায় কাজের পরিবেশ ও শ্রমিকের স্বার্থ সুরক্ষা নিয়ে উদ্বেগের প্রেক্ষিতে ২০১৩ বাংলাদেশী পণ্যের ওপর জিএসপি (পণ্যের অবাধ বাজার) সুবিধা স্থগিত করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এক দশকের ওপর হয়ে গেলেও এখনো এ স্থাগিতাদেশ বহাল রয়েছে। দেশীয় পণ্য রপ্তানির সুবিধার্থে এ সুবিধা পুনর্বহাল করার দাবি জানিয়েছে তৈরি পোশাক কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

সংগঠনটির সভাপতি এসএম মান্নান (কচি) মার্কিন প্রশাসনের কাছে এ সুবিধা পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে তৈরি পোশাকের জন্য ন্যায্য ন্যূনতম মূল্য প্রদান এবং সামাজিক নিরীক্ষার জন্য একটি সমন্বিত আচরণবিধি (কোড অব কন্ডাক্ট) নিশ্চিত করতে মার্কিন সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন।
সোমবার রাজধানীর উত্তরায় বিজিএমইএ কমপ্লেক্সে ইউএস ট্রেড রিপ্রেজেন্টেটিভ (ইউএসটিআর) এর দক্ষিণ ও সেন্ট্রাল এশিয়া অঞ্চলের সফররত প্রতিনিধি দল এবং বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) মধ্যে এক বৈঠকে এ দাবি করেন তিনি। সফররত প্রতিনিধি দলটি দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য এবং শ্রমিকদের অধিকার বিষয়ে বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে এ বৈঠকটি করেন।

বিজিএমইএ নেতারা জানান, উচ্চ-পর্যায়ের এই বৈঠকের লক্ষ্য ছিল দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য এবং শ্রমিকদের অধিকার, কল্যাণ এবং বাজার প্রবেশাধিকার সংক্রান্ত নীতিগুলোসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করা।
দক্ষিণ ও  সেন্ট্রাল এশিয়া অঞ্চলের সহকারী ইউএসটিআর, ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে ইউএসটিআর প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন, দক্ষিণ ও সেন্ট্রাল এশিয়া অঞ্চলের ইউএসটিআর পরিচালক এমিলি অ্যাশবি এবং শ্রমবিষয়ক ইউএসটিআর পরিচালক জেনিফার ওটকেন। ঢাকার মার্কিন দূতাবাসের অর্থনৈতিক ইউনিটের প্রধান জোসেফ গিবলিন এবং লেবার অ্যাটা শেলীনা খানও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে আলোচনায় বিজিএমইএ এর পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিজিএমইএ এর সভাপতি এস এম মান্নান (কচি)। আলোচনায় আরও অংশ নেন বিজিএমইএ এর সিনিয়র সহসভাপতি খন্দকার রফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি (অর্থ) মো. নাসির উদ্দিন এবং সহ-সভাপতি আবদুল্লাহ হিল রাকিব।
বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ এর পরিচালক আসিফ আশরাফ, পরিচালক শোভন ইসলাম, পরিচালক মোহাম্মদ সোহেল সাদাত, পরিচালক মো. আশিকুর রহমান (তুহিন), পরিচালক শামস মাহমুদ, পরিচালক নুসরাত বারী আশা এবং বিজিএমইএ এর আইএলও ও শ্রমসংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান আনম সাইফুদ্দিন।

আলোচনাকালে বিজিএমইএ এর সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে কর্মক্ষেত্রের নিরাপত্তা, শ্রমিকদের অধিকার এবং চলমান শ্রম আইন সংস্কারের বিষয়ে শিল্পের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতিগুলো তুলে ধরেন বলেন, শ্রমিকদের অধিকার ও কল্যাণ ইস্যুতে আরও অগ্রগতি অর্জনের জন্য বাংলাদেশ সরকার এবং শিল্পের প্রতিশ্রুতি এবং চলমান প্রচেষ্টাগুলোর বাস্তবায়ন করতে হবে। 
তিনি এক্ষেত্রে মার্কিন প্রশাসনের সহযোগিতা চান।
ইউএসটিআর এর প্রতিনিধি দল শ্রমখাতে কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশকালে মার্কিন সরকারের শ্রম কর্মপরিকল্পনা এবং বিএলএ-তে সংশোধনীসহ আরও উন্নতির প্রয়োজন  রয়েছে বলে সভাকে অবহিত করেন। 
সভায় তৈরি পোশাক শিল্পকে আরও টেকসই করার জন্য আরও পারস্পরিক সহযোগিতা এবং এক সঙ্গে কাজ করার ওপর গুরুত্বপ্রদান করা হয়।

×