ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

১৯৯১ সালের পর সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতির কবলে আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত: ১৫:১৮, ১৫ মার্চ ২০২৩

১৯৯১ সালের পর সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতির কবলে আর্জেন্টিনা

সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতির প্রভাব বাজারে 

আর্জেন্টিনায় মূল্যস্ফীতি ১০০ শতাংশেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে ১৯৯১ সালের পর এত বেশি মাত্রার মূল্যস্ফীতি দেখেনি এ দেশ। 

দেশটির সর্বশেষ ভোক্তামূল্য সূচকে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

দেশটির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব স্ট্যাটিস্টিকস অ্যান্ড সেন্সাস (আইএনডিইসি) মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) ফেব্রুয়ারি মাসের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেখানে আর্জেন্টিনার বার্ষিক মূল্যস্ফীতি ১০২ দশমিক ৫ শতাংশ চিহ্নিত হয়েছে। গত কয়েক দশক ধরে চরম অর্থনৈতিক সংকটে ভুগতে থাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে জানায় আইএনডিইসি।

সংস্থাটির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, শুধু চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতেই মূল্যস্ফীতি বেড়েছে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। এর প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়েছে দেশটির খাদ্য ও পানীয়পণ্যের ওপর। তাছাড়া, দেশটির খাদ্যসংক্রান্ত খরচ ৯ দশমিক ৮ শতাংশ বৃদ্ধির জন্য ডিম, মাংস ও দুগ্ধজাতপণ্যের অত্যাধিক মূল্যবৃদ্ধিকে দায়ী করছে আইএনডিইসি।

এদিকে, গত ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ খরা ও উত্তর কোরিয়েন্তেস প্রদেশে ভয়ংকর দাবানলে কৃষিজমির ব্যাপক ক্ষতি এ মূল্যস্ফীতিকে আরও উসকে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পাশাপাশি ভুট্টা, গম ও সয়াবিনের শীর্ষস্থানীয় রপ্তানিকারক দেশ আর্জেন্টিনা। কিন্তু পাম্পাস নামে পরিচিত উর্বর তৃণভূমিতে কৃষিকাজ ব্যাহত হওয়ায় জাতীয় পর্যায়ে শস্য উৎপাদনের পরিমাণ ব্যাপকভাবে কমে গেছে।

দক্ষিণ আমেরিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ আর্জেন্টিনা। কিন্তু গত শতাব্দী থেকেই দেশটি ব্যাপক অর্থনৈতিক অস্থিরতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। ১৯৮০’র দশকে সৃষ্ট ঋণসংকটের ফলে আর্জেন্টিনায় চরম ও দীর্ঘস্থায়ী মূল্যস্ফীতি দেখা দিয়েছিল। তবে এ সংকট সবচেয়ে বেশি ঘনীভূত হয় ১৯৮৯ সালে। ক্ষেত্রবিশেষে সেসময় দেশটির মূল্যস্ফীতি তিন হাজার শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পায়।

সূত্র: আল-জাজিরা

টিএস

×