ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

সংস্কৃতি সংবাদ

মামুনুর রশীদের জন্মদিনে ‘আলোর আলো নাট্যোৎসব’

সংস্কৃতি প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:২১, ১ মার্চ ২০২৪

মামুনুর রশীদের জন্মদিনে ‘আলোর আলো নাট্যোৎসব’

শিল্পকলা একাডেমিতে মামুনুর রশীদকে জন্মদিনে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান শিল্পীর স্বজন ও শুভানুধ্যায়ীরা

প্রবেশদ্বার থেকে মূল মিলনায়তন পর্যন্ত ফুলে ফুলে সজ্জিত। চারদিকে ব্যানার, ফেস্টুন আর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ব্যবহৃত বল্লম, মাথালি, লাঠিসহ নানা উপকরণ দিয়ে সাজানো হয়েছে মিলনায়তনের প্রবেশদ্বার। এলাকাজুড়ে প্রিয়জনদের উপস্থিতি এক ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে রাজধানীর সেগুনবাগিচার শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা চত্বরে বৃহস্পতিবার বিকেলে। প্রিয় মানুষের জন্মদিন বলে কথা। বলছি জীবন্ত কিংবদন্তি নাট্যজন মামুনুর রশীদের জন্মদিনের আয়োজনের কথা। 
স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের মঞ্চ আন্দোলনের পথিকৃৎ মামুনুর রশীদ। শ্রেণিসংগ্রাম, ক্ষুদ্র জাতিসত্তার অধিকার আদায়ের নানা আন্দোলনসহ বিভিন্ন সামাজিক ইস্যু নিয়ে নাটক লিখে ও নির্দেশনা দিয়ে বাংলাদেশের নাট্যজগতে মামুনুর রশীদ হয়ে উঠেছেন অপরিহার্য। বরেণ্য নাট্যকার, অভিনেতা, নির্দেশক মামুনুর রশীদের ১৯তম জন্মদিন ছিল বৃহস্পতিবার। বয়স ৭৬, অথচ ১৯তম জন্মদিন! শুনলে গোলমেলে লাগে, হিসাবটা কি ভুল হলো? কিন্তু এটাই সত্য। অধিবর্ষে জন্ম নেওয়া এই শিল্পীর জন্মদিন আসে চার বছর পর পর। এই প্রতীক্ষিত জন্মদিন রাঙাতে তাই আয়োজন হলো উৎসবের, আনন্দ মিলনমেলার। 
হারমোনিয়াম আর তবলার সুরলহরীতে মাইকে ভেসে আসছে দরবারি রাগ, অন্যদিকে মানুনুর রশীদ তার সৃজনশীল কর্মকা-ের নিদর্শনস্বরূপ ক্যানভাসে রাখছেন নিজের আঙুলের ছাপ। এক দারুণ উৎসবমুখর পরিবেশে এই জীবন্ত কিংবদন্তির জন্মদিন উদ্যাপন হয় এদিন।
বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনের অগ্রসৈনিক, নাট্যকার, নির্দেশক ও অভিনেতা মামুনুর রশীদের জন্মদিন উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী নাট্যোৎসবের আয়োজন করেছে তারই হাতেগড়া নাট্যসংগঠন আরণ্যক। ‘আলোর আলো নাট্যোৎসব’ শীর্ষক এ আয়োজন শিল্পকলা একাডেমি ও মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে শুরু হয় এদিন।

উৎসবে রয়েছে মামুনুর রশীদ রচিত ও নির্দেশিত নাটকের মঞ্চায়ন, সংগীত, নৃত্য, সেমিনার, প্রদর্শনী ও থিয়েটার আড্ডা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় তিন দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করেন অভিনেত্রী আরেক জীবন্ত কিংবদন্তি অভিনেত্রী ফরদৌসী মজুমদার।
জাতীয় নাট্যশালার প্রধান মিলনায়তনে মামুনুর রশীদের রচনা ও নির্দেশনায় নাটকের অংশবিশেষ মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে শুরু হয় জন্মদিনের আয়োজন। অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী অনিমা মুক্তি গোমেজ, অনিমা রায়, চঞ্চল চৌধুরী, ফজলুর রহমান বাবু ও রাহুল আনন্দ। বাঁশি বাজিয়ে শোনান উত্তম চক্রবর্তী। ওয়ার্দা রিহাবের পরিচালনায় নৃত্য পরিবেশন করে ধৃতি নর্তনালয়।
বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি পর্যায়ে মামুনুর রশীদকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানানো হয়। চার বছর পর আসে জন্মদিন এবং দিনটি ঘিরে উৎসব, এ বিষয়ে মামুনুর রশীদ বলেন, এটা এক ধরণের সৌভাগ্য। চার বছর পর পর আসে আমার জন্মদিন। বন্ধু, শুভানুধ্যায়ীরা অপেক্ষা করে, কখনো কখনো উৎসবের আয়োজন করে। এটা আনন্দের বিষয়। তা ছাড়া বয়স যে বাড়ছে না, এটাই বা কম কিসে!
মামুনুর রশীদের জন্মদিনকে ঘিরে আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে সেমিনার এবং নাটক মঞ্চায়ন। ‘একজন দায়বদ্ধ সৃজনশীল নাট্যপরিভ্রমণ’ শীর্ষক সেমিনার রয়েছে শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার রুমে সকাল ১০টায়। আলোচনার ধারণাপত্র পাঠ করবেন মলয় ভৌমিক। বিকেল সাড়ে ৪টা এবং সন্ধ্যা ৭টায় বাংলাদেশ মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হবে আরণ্যক প্রযোজিত ‘রাঢ়াঙ’ নাটকের পরপর দুটি প্রদর্শনী।

নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন মামুনুর রশীদ। এ ছাড়া আগামীকাল শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে হবে থিয়েটার আড্ডা ‘নাট্যকর্মীদের মুখোমুখি মামুনুর রশীদ’। সন্ধ্যা ৭টায় একই হলে মঞ্চায়ন হবে আরণ্যক প্রযোজিত নাটক ‘কহে ফেসবুক’। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন মামুনুর রশীদ।

×