ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

ডাইভিংয়ে শতবর্ষি আসকর

প্রকাশিত: ২০:২০, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ডাইভিংয়ে শতবর্ষি আসকর

ইরানের শতবর্ষী তাগি আসকর

শক্ত কিছুর ওপর দাঁড়িয়ে শূন্যে লাফ দিয়ে পানির ওপর ঝাঁপ। তবে ঝাঁপ দিলেই হবে না, লাফ দেওয়া অবস্থায় শরীরকে বিভিন্ন রকমভাবে চরকির আদলে ঘুরাতে হবে। বিশেষ এই খেলাটিকে বলা হয় ডাইভিং। অলিম্পিক গেমস কিংবা এশিয়ান গেমসের অন্যতম ইভেন্ট ধরা হয় যাকে। এই খেলাটিতে অংশগ্রহণকারীদের হতে হয় বিশেষ দক্ষতাসম্পন্ন ও শারীরিকভাবে অত্যন্ত ফিট।

আর কঠিন সেই খেলাটিতেই কিনা নেমে গেছেন ১০০ বছরের এক বৃদ্ধ। যা নিয়ে রীতিমতো হইচই পড়ে গেছে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে। শুক্রবার কাতারের দোহায় বিশ্ব অ্যাকুয়াটিকস চ্যাম্পিয়নশিপের ডাইভিং প্ল্যাটফর্মে নেমে সবাইকে অবাক করে দিয়েছেন ইরানের শতবর্ষী তাগি আসকর। যেই বয়সে সোজা হয়ে দাঁড়ানোটাই এক রকম কঠিন; সেই বয়সে কিনা ডাইভিং এর মতো কঠিন প্রতিযোগিতায় নামা! বয়স যেন নিছক একটি সংখ্যা মাত্র তার কাছে।

মানুষ নাকি ভালোবাসার জন্য সব জয় করতে পারে। ভালোবাসা ও লড়াইয়ের তীব্র মানুষিকতার কাছে পরাজিত হয় সবকিছু। যেন তারই এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেলেন আসকর। ১৯৫১ সালে ডাইভিংয়ে পা রাখা আসকর খেলতে নামলেন ২০২৪ সালে এসেও। ৭৩ বছর পর ১০০-তে পা দিয়ে ডাইভিং পুলে নামার এই অনুপ্রেরণা কি? সেটাও জানিয়েছেন আসকর।

‘কিশোর বয়সে ডাইভিংয়ের প্রেমে পড়লাম, সেই প্রেম এখনো আছে। ১৯৫১ ও বর্তমানের মধ্যে পারফরম্যান্স ছাড়া আর কোনো পার্থক্য দেখি না আমি। খেলাটির প্রতি ভালোবাসা ও নিজের স্বাস্থ্য ঠিক রাখা জরুরী।’

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে রূপ্য, ব্রোঞ্জ ও সোনা; সব পদকই জিতেছেন আসকর। এরপরও জীবনের পড়ন্ত বেলায় এসে পানিতে ঝাঁপ দেওয়ার লোভ সামলাতে পারেন না তিনি। সেই লোভেই মাস্টার্স চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেবেন এই ১০০ বছর বয়সী এই অ্যাথলেট। যেখানে কোনো পদক নয়; বরং মানুষের ভালোবাসা ও ইভেন্টটির প্রতি নিবেদনকে আরও একবার জানিয়ে যেতে চান তিনি।

 

এস

×