ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

তরুণ প্রতিভাবানদের পৃষ্ঠপোষকতা করবে এয়ারবাস

প্রকাশিত: ১৬:৪৮, ২৯ নভেম্বর ২০২০

তরুণ প্রতিভাবানদের পৃষ্ঠপোষকতা করবে এয়ারবাস

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের প্রথম এরোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন ও এ্যরোস্পেস ইউনিভার্সিটির (বিএসএমআরএএইউ) শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিক মানের পাইলট প্রশিক্ষন ও রক্ষনাবেক্ষনমুলক ইঞ্জিনিয়ারিং প্রশিক্ষণ প্রদান করবে এয়ারবাস। এ লক্ষ্যে রবিবার উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক চুক্তি (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তির ফলে এয়ারবাস বাংলাদেশের এভিয়েশন কাঠামোর সম্প্রসারনের দিকে দৃষ্টি দেবে, যাতে করে দেশের চলমান অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রাকে আরও ত্বরান্বিত করতে পারে। এ বিষয়ে এয়ারবাসের সাউথ এশিয়া অঞ্চলের প্রেসিডেন্ট রেমি মিল্লার্‌ড বলেন, এয়ারবাসের জন্য বাংলাদেশ শুধুই সম্ভাবনাময় একটি বাজার হিসেবে দেখছে না। বাংলাদেশের এ্যরোস্পেস শিল্পের সার্বিক আধুনিকায়ন ও বিকাশের সহায়তা করতে এয়ারবাস সদা প্রস্তুত। প্রতিভাবনাদের পৃষ্ঠপোষকতা এবং নতুন উদ্ভাবনকে সহায়তা করার জন্য বিএসএমআরএএইউ এর সাথে এক হয়ে কাজ করতে পেরে আমরা গর্বিত। এই সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে এয়ারবাস তাদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিগত অভিজ্ঞতা ও প্রশিক্ষনের দক্ষতা বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য সহজে গ্রহণ করার ব্যবস্থা করবে। এয়ারবাসের এই ট্রেনিং প্রোগ্রাম এর মধ্যে স্নাতক ও স্নাতক পরবর্তী ধাপের যে সব শিক্ষার্থীরা পাইলট ও রক্ষনাবেক্ষনমুলক ইঞ্জিনিয়ার হতে উৎসাহী, তারা সকলেই অন্তর্ভুক্ত। এয়ারবাস পড়াশোনার উপকরন ও সিলেবাস বিষয়ে এবং ক্লাসে প্রশিক্ষকরা ক্লাস নিবেন। এছাড়াও এয়ারবাস বছরে ৫ টি ইন্টার্নশিপ এর বাবস্থা করবে। এ বিষয়ে বিএসএমআরএএইউ এর প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য এয়ার ভাইস মার্শাল এ এইচ এম ফজলুল হক বলেন, “এ্যরোস্পেস শিল্পের একটি আন্তর্জাতিক পথপ্রদর্শক হিসেবে নতুন প্রতিভাবানদের প্রশিক্ষন দেওয়ার ব্যাপারে এয়ারবাসের যথেষ্ট দক্ষতা রয়েছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের এরোস্পেস জগতে শীর্ষস্থান অর্জনের যে লক্ষ্য, এই চুক্তি আমাদের সেই পথই দেখায়”। বিএসএমআরএএইউ তাদের প্রথম ব্যাচ শুরু করে ২০২০ এর জানুয়ারী তে। বাংলাদেশে এভিয়েশন ক্ষেত্রের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বিশ্ববিদ্যালয়টি তাদের শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করবে। এভিয়েশন ক্ষেত্রের উন্নতি দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে।