ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে ন্যুক্যাম্পেই দেখছেন ব্রাজিলের সাবেক কিংবদন্তি রোনাল্ডো

বদনাম সইতে না পেরে বার্সিলোনা ছাড়ছেন মেসি!

প্রকাশিত: ২৩:৪৮, ২৪ আগস্ট ২০২০

বদনাম সইতে না পেরে বার্সিলোনা ছাড়ছেন মেসি!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লিওনেল মেসির বার্সিলোনা ছাড়ার গুঞ্জন নতুন নয়। তবে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে বেয়ার্ন মিউনিখের কাছে কাতালানরা ৮-২ গোলের লজ্জায় ডোবার পর বিষয়টি আরও গতি পেয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, যে কোন সময় ন্যুক্যাম্প ছেড়ে যেতে পারেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। ব্যর্থতার দায়ে কিকে সেতিয়েনকে ছাঁটাই করার পর বার্সিলোনার কোচ পদে এসেছেন ক্লাবটির সাবেক তারকা ফুটবলার রোনাল্ড কোম্যান। ইতোমধ্যে নতুন কোচের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন বার্সা ডায়মন্ড। বৈঠকের সব বিষয়বস্তুও নাকি সংবাদমাধ্যমে চলে এসেছে। সেখানে মেসির বক্তব্য ভুলভাবে তুলে ধরার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, মেসির নামে বদনাম রটিয়ে তাকে বার্সিলোনা থেকে চলে যাওয়ার ইন্ধন যোগানো হচ্ছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে খবর হয়েছে। এমন সময় ব্রাজিলের সাবেক তারকা ফুটবলার রোনাল্ডো জানিয়েছেন, যত ঝড় ঝাপটাই আসুক না কেন বার্সাতেই থেকে যাওয়া উচিত মেসির। স্পেনের এক সংবাদমাধ্যম মেসি ও কোম্যানের বৈঠকের সব তথ্য প্রকাশ করেছে। সংবাদমাধ্যমটি বার্সিলোনা প্রেসিডেন্ট জোশে মারিয়া বার্তোমেউ নিয়ন্ত্রিত বোর্ডের পক্ষে খোলামেলা প্রচার করে থাকে। ফুটবলবিষয়ক ব্লগ ‘ইএসপিএন’ দাবি করেছে, ওই রিপোর্টে প্রকাশিত মেসির বক্তব্যকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। বরং ক্লাবের বোর্ডের কয়েকজন সদস্য নাকি তাকে ক্লাব ছাড়তে বাধ্য করতেই কুৎসা রটাচ্ছেন। তারা চাইছেন, মেসির বদনাম ছড়াতে। যেন সবাই বিশ্বাস করে যে ডুবন্ত বার্সার পাশে থেকে লড়াই চালানোর চেয়ে পালিয়ে যাওয়া সঠিক মনে করেন মেসি। মেসির সঙ্গে বার্সার বোর্ডের এমন বিমাতাসুলভ আচরণ এবারই প্রথম নয়। গত বছর বার্সা প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মেসি ও দলের আরও কয়েকজন শীর্ষ তারকার বিরুদ্ধে অনলাইনে কুৎসা রটানোর অভিযোগ উঠেছিল। চলতি বছরের জানুয়ারিতে সাবেক কোচ আর্নেস্টো ভালভার্ডেকে বরখাস্ত করার পেছনে খেলোয়াড়দের অসহযোগিতাকে দায়ী করেছিলেন সদ্য সাবেক ক্রীড়া পরিচালক এরিক আবিদাল। করোনা মহামারী শুরুর পর খেলোয়াড়দের বেতন কমানো নিয়ে বোর্ডের পক্ষ থেকে উল্টাপাল্টা বিবৃতিও দেয়া হয়েছিল। পরে এসবের তীব্র প্রতিবাদ করেছিলেন মেসি। প্রায় একযুগ পর শিরোপাশূন্য মৌসুম পার করছে বার্সিলোনা। এমন ব্যর্থতার পরও আর্জেন্টাইন তারকার নুক্যাম্পে থাকা উচিত বলে মনে করেন রোনাল্ডো। এ প্রসঙ্গে ব্রাজিলের হয়ে ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ী ফরোয়ার্ড বলেন, মেসি বার্সিলোনা ছেড়ে যাবে এটা একরকম অসম্ভব। বিশেষ করে ইউরোপের বর্তমান অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে। পুরো দলের পরিচয়ই বলা যায় মেসিকে। আমি যদি বার্সিলোনার ম্যানেজর্মেন্ট হতাম তাহলে কোনভাবেই মেসিকে যেতে দিতাম না। রোনাল্ডো আরও বলেন, বার্সিলোনার সঙ্গে মেসির গভীর সম্পর্ক। আমার মনে হয় না সে কখনও দলকে ভালবাসা বন্ধ করে দেবে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ওভাবে হারের পর সে হতাশ এটা স্বাভাবিক। তবে এখন সতীর্থদের উচিত তাকে সাহায্য করা। পরের মৌসুমে বার্সাকে নতুন কিছু ভাবতে হবে। তবে দলের মূল খেলোয়াড়কে বিক্রি করে দেয়া কোন সমাধান নয়। এরমধ্যে দিনকয়েক আগে নেইমারের সাবেক এজেন্ট ওয়াগনার রিবেইরো অনেকটা বোমা ফাটানো খবর দিয়েছেন। তিনি এক সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন, ফরাসী ক্লাব পিএসজিতে নেইমারের সঙ্গে জুটিবদ্ধ হতে পারেন সময়ের অন্যতম দুই সেরা তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো ও লিওনেল মেসি। এটা সত্য হলে রোনাল্ডোকে ছাড়তে হবে জুভেন্টাস আর মেসি ছিন্ন করবেন বার্সিলোনার সঙ্গে বন্ধন। সুপার এজেন্ট তকমা পাওয়া রিবেইরো বলেন, নেইমার পিএসজিতে সুখে আছে। আমার মনে হয় প্যারিসে সে আরও দুই বছর থাকবে। এখন কোন সন্দেহ ছাড়া বলতে পারি, নেইমারের বার্সিলোনায় ফেরার চেয়ে মেসির পিএসজিতে যোগ দেয়া সহজ। শুধু তাই নয়, রোনাল্ডোও আসতে পারেন প্যারিসে। কারণ কাতারী মালিকানাধীন ক্লাবটির অর্থনৈতিক শক্তি সবারই জানা।