মঙ্গলবার ৪ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পটিয়ায় মনগড়া বিদ্যুত বিলে দিশাহারা গ্রাহক

পটিয়ায় মনগড়া বিদ্যুত বিলে দিশাহারা গ্রাহক

বিকাশ চৌধুরী, পটিয়া ॥ মনগড়া বাড়তি বিদ্যুত বিল দিয়ে চট্টগ্রামের পটিয়ায় পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহক হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। করোনার সুযোগ নিয়ে এবং মিটার রিডিং না দেখে গত কয়েক মাস ধরে গ্রাহকদের বিদ্যুত বিল দেয়া হচ্ছে। উপজেলা ও পৌর সদরের বিভিন্ন এলাকার গ্রাহকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। গ্রাহকের চাপে পড়ে পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুত সমিতি কিছু কিছু গ্রাহকের বিল সমন্বয় ও কিস্তিতে পরিশোধ করার সুযোগ করে দিয়েছেন। পটিয়া লকডাউনের আওতায় ছিল। বিদ্যুতের গ্রাহকদের এক হাজার টাকার বিল দেয়া হয়েছে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। এভাবে প্রতিটি গ্রাহককে মনগড়াভাবে বিদ্যুত বিল দেয়া হয়েছে। পটিয়া উপজেলা যুবলীগের প্রাক্তন সহ-সম্পাদক কাজী আবদুল কাদের পিডিবির হাইদগাঁও ইউনিয়নের একজন গ্রাহক। ১ হাজার ৬শ’ টাকার বিল দেয়া হলেও বর্তমানে তাকে ৬ হাজার ৬৭১ টাকা দেয়া হয়েছে। উদ্ভূত সমস্যা ও মনগড়া বিল নিয়ে ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ এখন দিশেহারা। অভিযোগ ওঠেছে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœœ করতে পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতের কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশ রয়েছে। শুধু তা নয়, বিভিন্ন শিল্প কারখানা, গ্যারেজ ও কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পটিয়াতে অবৈধ বিদ্যুত সংযোগও রয়েছে। এসব অবৈধ বিদ্যুত সংযোগের বিল মানুষের কাঁধে তুলে দেয়া হচ্ছে বলে গ্রাহকদের অভিযোগ। বিদ্যুত অফিস ও গ্রাহক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পটিয়াতে পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতের লক্ষাধিক গ্রাহক রয়েছে। করোনার সময় ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতের বিরুদ্ধে বাড়তি বিল নেয়ার অভিযোগ রয়েছে। গ্রাহক হয়রানির কারণে পটিয়াতে এক সময় আন্দোলন সংগ্রামও হয়েছে। গ্রাহক সমিতির তৎপরতা না থাকার সুযোগে বিদ্যুত অফিস পুনরায় বাড়তি বিল দেয়াসহ বিভিন্ন হয়রানি করছে। উপজেলার ভাটিখাইন ইউনিয়নের বাসিন্দা ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা আবু ছালেহ মোঃ শাহরিয়ার ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি জানিয়েছেন, তাদের ঘরে পল্লী বিদ্যুতের দু’টি মিটার রয়েছে। তার মধ্যে গত মার্চ মাসে একটি মিটারে ৬০৬ টাকা এবং অন্যটি ৫৫৫ টাকা বিল দেয়া হয়। এপ্রিল মাসে ১ হাজার ২৩১ টাকা এবং অন্যটি ১ হাজার ৩৫০ টাকা। মে মাসে ৩ হাজার ১৯৮ এবং অন্যটি ১ হাজার ৭১৯ টাকা। মনগড়া বিল করা হয়েছে। মিটার ভাড়া ১০ টাকা হলেও গত কয়েকমাস ধরে ৪০ ও ৩০ টাকা পর্যন্ত নেয়া হচ্ছে। বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হবে। পটিয়া পৌরসভা ছাড়াও উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে লক্ষাধিক গ্রাহক বিদ্যুত ব্যবহার করছে। বিদ্যুতের গ্রাহক হয়রানি বন্ধ করা জরুরী। পটিয়া পল্লী বিদ্যুত সমিতির জেনারেল ম্যানেজার আবু বকর ছিদ্দিকী জানিয়েছেন, বাড়তি বিল দিয়ে গ্রাহক হয়রানির বিষয়টি সঠিক নয়। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের ৫৫ হাজার গ্রাহক রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
ইসি গঠনে আইন হচ্ছে ॥ সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         সংলাপে আওয়ামী লীগের ৪ প্রস্তাব         নেতিবাচক রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে ॥ কাদের         আগামী সংসদ নির্বাচনও চমৎকার হবে ॥ তথ্যমন্ত্রী         ইভিএমে ভোট দ্রুত হলে জয়ের ব্যবধান বাড়ত ॥ আইভী         পন্ডিত বিরজু মহারাজ নৃত্যালোক ছেড়ে অনন্তলোকে         উত্তাল শাবি ॥ ভিসির পদত্যাগ দাবিতে বাসভবন ঘেরাও         দুর্নীতি মামলায় ওসি প্রদীপের সাক্ষ্যগ্রহণ পেছাল         আমিরাতে ড্রোন হামলায় নিহত ৩         কখনও ওরা মন্ত্রীর আত্মীয়, কখনও নিকটজন         সোনারগাঁয়ে পিকআপ ভ্যান খাদে পড়ে দুই পুলিশের এসআই নিহত         ইসি গঠন : রাষ্ট্রপতিকে আওয়ামী লীগের ৪ প্রস্তাব         ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতির সংলাপে বসেছে         দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১০, নতুন শনাক্ত ৬,৬৭৬         সংক্রমণের হার ২০ শতাংশ ছাড়িয়েছে : স্বাস্থ্য মহাপরিচালক         স্বাস্থ্যবিধি মানাতে ‘অ্যাকশনে’ যাবে সরকার         না’গঞ্জে নেতিবাচক রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে ॥ কাদের         সিইসি ও ইসি নিয়োগ আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন