ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

নুসরাত হত্যা মামলা

২৭ কার্যদিবসে ৫৮ সাক্ষীর সাক্ষ্যদান

প্রকাশিত: ১১:০৬, ৩০ জুলাই ২০১৯

২৭ কার্যদিবসে ৫৮ সাক্ষীর সাক্ষ্যদান

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফেনী, ২৯ জুলাই ॥ বহুল আলোচিত ফেনীর সোনাগাজী মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলার বিচার শুরুর ২৭ কার্যদিবসে ৫৮ সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রদান ও জেরা শেষ হয়েছে। সোমবার নুসরাতের বাবাসহ তিনজন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন। সারাদেশের মানুষ এ মামলার বিচারের রায় দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। এ বিষয়ে বাদীর আইনজীবীরা আশা করছেন আগামী এক/দেড় মাসের মধ্যে মামলার বিচার নিষ্পত্তি হতে পারে। বহুল আলোচিত ফেনীর সোনাগাজী মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলার ধার্য তারিখ সোমবার ফেনী কারাগার থেকে ১৬ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়েছে । দুপুরে নারী ও শিশু নিযাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ মামুনুর রসিদের আদালতে আসামিদের হাজির করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট আক্রামুজ্জামান বলেন, ট্রাইব্যুনালে ১৮০ দিনের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির বাধ্যবাধকতা থাকায় বিচার শুরুর পর থেকে প্রতি কার্যদিবসে আদালতে সাক্ষ্যগ্রহন ও জেরার কাজ অব্যাহত রয়েছে। সোমবার মামলার ২৮তম কার্য দিবসে আদালতে মামলার সাক্ষী নুসরাতের বাবা মাওলানা একে এম মুছা, নুসরাতের মামা সৈয়দ সেলিম ও নুসরাতের চাচাত ভাই মোহাম্মদ আলী ফরহাদ সাক্ষ্য দিয়েছেন। এদের সাক্ষ্য প্রদানের পর ১৬ আসামির আইনজীবীগণ তাদের জেরা করেন। এ মামলার চার্জশীটে পিবিআই ৯২ সাক্ষীর নাম উল্লেখ করেছেন। সোমবার পর্যন্ত বিচার শুরুর ২৮ কর্মদিবসে ৬১ জনের সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হয়েছে। আদালত মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত মুলতবি ঘোষণা করে সকল আসামিকে জেলহাজাতে পাঠানোর আদেশ দেন আদালতের বিচারক মামুনুর রসিদ। বাদীর আইনজীবী এ্যাডভোকেট শাহজাহান সাজু বলেন মামলার কার্যক্রমের যেভাবে অগ্রগতি হচ্ছে তাতে আশা করা যাচ্ছে আগামী এক দেড় মাসের মধ্যে মামলার বিচার নিষ্পত্তি হবে। রবিবার সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও জেরার কাজ শেষে আদালতের কাজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত মুলতবি করেছিলেন বিচারক মামুনুর রসিদ।