শুক্রবার ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জানা-অজানা ॥ আত্মঘাতী ড্রোন!

প্রায় সাত দশক আগে কালাশনিকভ রাইফেল এনেছিল যে রুশ সংস্থা, এবার তাদের হাত ধরেই বিশ্বের অস্ত্রবাজারে আসছে আত্মঘাতী ড্রান।

আবু ধাবির এক অস্ত্র প্রদর্শনীতে চলতি সপ্তাহে প্রথম এই আত্মঘাতী ড্রোন বা কেইউবি-এর একটি ছোট সংস্করণ হাজির করেছে কালাশনিকভ গোষ্ঠী। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ‘অগ্রজ’ কালাশনিকভের মতোই ‘দক্ষ ও অল্প দামি’ কেইউবি-এর যুদ্ধের ধরন বদলে দেয়ার ক্ষমতা রয়েছে।

যুদ্ধক্ষেত্রে আত্মঘাতী ড্রোনের ব্যবহার যদিও নতুন কিছু না। ইসলামিক স্টেট ঢের আগেই বিস্ফোরক ভরা ড্রোন পাঠিয়ে হামলা চালিয়েছে ইরাকের মসুল বা সিরিয়ার রাকার শত্রু ঘাঁটিতে। যদিও সে সবই বাণিজ্যিকভাবে তৈরি সাধারণ ড্রোন। ‘জিপিএস গাইডেন্স সিস্টেম’-এর সাহায্যে যা নিয়ন্ত্রণ করা হয়। গত বছর এভাবেই সিরিয়ায় রুশ বায়ুসেনা ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছিল ওই জঙ্গীগোষ্ঠী। মার্কিন ও ইসরাইলী সেনাবাহিনীর অস্ত্রভাণ্ডারেও নতুন সংযোজন আত্মঘাতী ড্রোন। পেন্টাগন নিজেই এই ধরনের ড্রোন তৈরি করছে। তবে তা খুব অল্প সংখ্যায়। কালাশনিকভের এক প্রতিনিধির মতে, সেই ড্রোনগুলোর তুলনায় তাদের কেইউবি অনেক সস্তা ও দ্রুতগতির।

কম দাম, সহজসরল ব্যবহারের প্রক্রিয়া, সর্বোপরি তুখোড় দক্ষতার জন্য খুব দ্রুত বিশ্বের অস্ত্রবাজার দখল করে নিয়েছিল কালাশনিকভ। কখনও সরকারের বিরুদ্ধে লড়তে, কখনও সরকারের হয়ে লড়তে এক কথায় বেছে নেয়া হয়েছে একে৪৭। মার্কিন প্রযুক্তিতে তৈরি অস্ত্রের বদলে সিরিয়া ও আফগানিস্তানের সেনাদের জন্য সেকেন্ডহ্যান্ড কালাশনিকভ কিনেছে পেন্টাগনও। প্রস্তুতকারক সংস্থা জানাচ্ছে, একে ৪৭-এর মতোই কালাশনিকভ ড্রোন বা কেইউবি-ও নিয়ন্ত্রণ করা খুব সহজ। চার ফুট চওড়া এই ড্রোনের আকার অনেকটা কফি টেবিলের মতো। ৮০ মিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে ৩০ মিনিট উড়তে পারবে প্রায় ৩ কেজি বিস্ফোরক সঙ্গে নিয়ে। ৪০ মাইল দূরে নিশানায় আঘাত করতে পারবে এটি। ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্কের অধ্যাপক ও ‘ড্রোনস এ্যান্ড টেররিজম’ বইয়ের লেখক নিকোলাস গ্রসম্যানের মতে, ‘এই অস্ত্র হাতে পেলে বড় আধুনিক সামরিক বাহিনী ও ছোট মাপের বাহিনীর মধ্যে ফারাক মুছে যাবে।’

সন্ত্রাসবাদীদের হাতে এই ড্রোন-বোমা গেলে তা কতটা মারাত্মক হতে পারে ভাবাচ্ছে বিশেষজ্ঞদের। সম্প্রতি ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর উপরে হামলার জন্য এই ধরনের ড্রোন ব্যবহার করা হয়েছিল। কিছু দিন আগে লন্ডন, ডাবলিন, নিউইয়র্ক বিমানবন্দরের আশপাশে সন্দেহজনকভাবে ড্রোনের ঘোরাফেরা দেখে তড়িঘড়ি বন্ধ করে দেয়া হয় বিমানবন্দর। যা দেখে মনে করা হচ্ছে, ড্রোনের সাহায্যে হামলার হুমকি রুখতে প্রস্তুত নয় পশ্চিমী সেনা।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

শীর্ষ সংবাদ:
১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ॥ আমিনবাজারে ছয় ছাত্র হত্যা         যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত         এইচএসসি পরীক্ষা শুরু, ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী         ১৬ ডিসেম্বর শপথ করাবেন শেখ হাসিনা         আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা         প্রয়োজনে ফের বন্ধ হতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ॥ দীপু মনি         কোটি কোটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যের বই         যানজটে বাজেটের ২০ শতাংশ ক্ষতি হচ্ছে         পাহাড় ও সমতলের ব্যবধান ক্রমেই কমছে         এবার বন্দুকযুদ্ধে প্রধান আসামি নিহত         খালেদাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে দেয়া হোক ॥ ফখরুল         একটি মহল শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে ফায়দা লুটতে চায়         ময়লার ট্রাকের ধাক্কায় এবার বৃদ্ধা আহত, চালাচ্ছিল হেলপার         ৭০ কারাকর্মকর্তা ও কর্মচারীর অর্থের খোঁজে দুদক         অভিবাসীরা বাংলাদশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে         বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী         দাম কমল এলপি গ্যাসের         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৩ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১         ‘ওমিক্রন’: বিমানবন্দরে ল্যাবের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         ঢাকার যানজটে বছরে জিডিপির ক্ষতি আড়াই শতাংশ