ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সিলেটে ৪ বিশেষায়িত হাসপাতালের প্রতিশ্রুতি আনোয়ারুজ্জামানের

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট অফিস

প্রকাশিত: ২৩:৫২, ২৭ মে ২০২৩

সিলেটে ৪ বিশেষায়িত হাসপাতালের প্রতিশ্রুতি আনোয়ারুজ্জামানের

সিটি নির্বাচনে প্রার্থীরা এখন প্রতীকের অপেক্ষা করছেন

সিটি নির্বাচনে প্রার্থীরা এখন প্রতীকের অপেক্ষা করছেন। প্রতিদিন পাড়া-মহল্লায় গণসংযোগে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন তারা। আওয়ামী লীগ প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর পক্ষে বিভিন্ন ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীরা পৃথক পৃথকভাবে গণসংযোগ করছেন। শনিবার আওয়ামী লীগ প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী সিলেট রাগিব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক পরিষদ, ডাক্তার ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে পৃথক পৃথক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। নির্বাচনে তাকে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে বলেন, নির্বাচিত হলে স্বাস্থ্যসেবায় নগরীতে চারটি বিশেষায়িত হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করব।

পেশাদারিত্ব ও মানবিকতার সঙ্গে মানুষের চিকিৎসাসেবা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, চিকিৎসাসেবা হলো সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা। একজন মানুষকে সেবা করার মাধ্যমে সুন্দর জীবনে ফিরিয়ে আনার মতো আনন্দ আর কি হতে পারে? তিনি বলেন, নিম্ন আয়ের মানুষের চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য আমাদের যে হাসপাতালগুলো আছে, তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। মূলত এ সব নাগরিকের কথা চিন্তা করে আমি চারটি বিশেষায়িত হাসপাতাল করার উদ্যোগ নেব। এ জন্য তিনি চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাগিব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আবেদ হোসেন, অধ্যাপক ডা. একেএম দাউদ, অধ্যাপক ডা. মো তারেক আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. রনজিত সরকার, পরিচালনা উপ-পরিচালক ডা. আরমান আহমদ শিপলু। 
স্বামীর জন্য দোয়া চাইলেন আনোয়ারুজ্জামানের স্ত্রী হলি চৌধুরী ॥ মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সহধর্মিণী হলি চৌধুরী মেয়র প্রার্থী স্বামীর জন্য দোয়া চেয়েছেন। শনিবার সকালে সিলেট রাগিব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ও চিকিৎসকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি দোয়া এবং সহযোগিতা চান। শুভেচ্ছা বিনিময়কালে হলি চৌধুরী একটি স্মার্ট ও বাসযোগ্য নগরী বিনির্মাণে সিলেট সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর জন্য দোয়া ও সমর্থন কামনা করেন। এ সময় তিনি বলেন, আপনাদের মহামূল্যবান ভোট দিয়ে উন্নয়নের স্বার্থে আমার স্বামীকে সহযোগিতা করুন। আমি জানি, আমার স্বামী একজন কাজের মানুষ, ইনশাআল্লাহ উনি নির্বাচিত হলে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এই পুণ্যভূমি সিলেট সিটির অভূতপূর্ব উন্নয়ন হবে।
সুনামগঞ্জবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় ॥ শুক্রবার রাতে নগরীর পাঠানটুলা এলাকার একটি অভিজাত হলে সিলেটে বসবাসরত সুনামগঞ্জবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, সিলেটকে একটি স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে প্রয়োজন পরিকল্পিত উন্নয়ন। সরকারের দেওয়া বরাদ্দ ও নগরবাসীর ট্যাক্সের টাকার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে পরিকল্পিত উন্নয়নের মাধ্যমে একটা আধুনিক ও স্মার্ট সিটি গড়ে তোলা সম্ভব। ২১ জুন নৌকায় ভোট দিয়ে আমাকে মেয়র নির্বাচিত করলে আমি সেই কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মিহির রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে সভায় আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী আরও বলেন, এখানে বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ অত্যন্ত শান্তিতে মিলেমিশে বসবাস করছেন। সবারই কিছু না কিছু সমস্যা আছে, এটা থাকেই। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে এ সব সমস্যা সমাধানে এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারেও কাজ করব, ইনশাআল্লাহ।  
এদিকে নগরীর মির্জাজাঙ্গালস্থ একটি অভিজাত হোটেলের হলরুমে নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সমর্থনে মধ্যাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত মহানগর ও জেলা আওয়ামী নেতৃবৃন্দের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়।  
স্বেচ্ছাসেবক লীগের গণসংযোগ ॥ নৌকার প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর পক্ষে ভোট চেয়ে ঘরে ঘরে গণসংযোগ করছেন সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাবেক ছাত্রনেতা বদরুল হোসেন খান কামরান। নগরীর ৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় ভোটারের ঘরে ঘরে আনোয়ারুজ্জান চৌধুরীর সালাম আদাব এবং নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে জুমার নামাজের পর ব্যাপক গণসংযোগ করেন।
জাতীয় পার্টির প্রার্থীর প্রতিশ্রুতি ॥ লাঙ্গল প্রতীকের মেয়র প্রার্থী, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগরের আহ্বায়ক মো. নজরুল ইসলাম বাবুল বলেছেন, সিলেট সিটির নতুন বর্ধিত ১৫টি ওয়ার্ডে কোনো ধরনের উন্নয়ন হয়নি। আপনাদের ভোটে লাঙল মার্কা বিজয়ী হলে ৩৮নং ওয়ার্ডসহ নগরীর বর্ধিত অংশের প্রতিটি ওয়ার্ড আধুনিকতার ছোঁয়া পাবে ইনশাআল্লাহ। এবার জাতীয় পার্টির লাঙল প্রতীককে বিজয়ী করুন। আমি ওয়াদা করছি, আগামী ৫ বছরে নগরীর উন্নয়ন করতে না পারলে এ মুখ আপনাদের আর দেখাব না। আগামী ২১ জুন নীরব ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে লাঙলকে বিজয়ী করে আপনাদের মেয়রকে নগরভবনে পাঠান। আপনাদের জন্যই আমি নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি। আপনাদের জন্যই কাজ করে যাব, ইনশাআল্লাহ।  
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের অঙ্গীকার ॥ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী হাফেজ মাওলানা মাহমুদুল হাসান বলেছেন, সিলেট নগরীকে সুন্দর ও শান্তিময় করে সাজাতে চাই। আদর্শ দিয়ে চুরি, দুর্নীতি দূর করে একটি মডেল নগরী বানাতে চাই। যে নগরী হবে নিরাপদ ও আদর্শ নগরী। তিনি নগরীর বাগমারা এলাকাবাসীর সঙ্গে সৌজন্যসাক্ষাৎকালে এ সব কথা বলেন। পরে তিনি নগরীর ৩৫নং ওয়ার্ড ও ১৪নং ওয়ার্ডে জনসাধারণের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেন।

×