মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

পরিবেশবান্ধব সবুজ শিল্পায়নের ধারা জোরদারে গুরুত্বারোপ

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬, ০৫:২৪ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টেকসই নগরায়নের জন্য পরিবেশবান্ধব সবুজ শিল্পায়নের ধারা জোরদারে বিশ্ব সম্প্রদায়ের ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা পালনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার উলসান শহরে ‘টেকসই শহরের জন্য সবুজ শিল্প’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের দুই-তৃতীয়াংশ জনগণ নগরে বসবাস করবে। এ বিশাল জনগোষ্ঠীর জন্য পরিবেশবান্ধব শিল্পপণ্যের চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন দেশের মধ্যে কার্যকর সবুজ প্রযুক্তি স্থানান্তর জরুরি বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। আমির হোসেন আমু বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ দেশ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ নিজস্ব অর্থায়নে জলবায়ুর ঝুঁকি মোকাবেলা করে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জনের পাশাপাশি পরিকল্পিত নগরায়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের বৈরি প্রভাব মোকাবেলা করে বাংলাদেশ কৃষি উত্পাদন বৃদ্ধি, উপকূলীয় এলাকায় পরিবেশ সুরক্ষায় সবুজ বেষ্টনী স্থাপন, সামাজিক বনায়নসহ বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে চলেছে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা শিল্প ও নগরের মধ্যকার পারস্পরিক সম্পর্ক, দক্ষতা সম্পদ, সবুজ প্রযুক্তি এবং ইকো-উদ্ভাবনের বিষয়ে আলোচনা করেন। তারা পরিবেশগত ভারসাম্য বজায় রেখে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি জোরদার, উচ্চ উত্পাদনশীলতা অর্জন এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির ক্ষেত্রে অভিন্ন শিল্প ও নগরনীতি প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্ব দেন। তারা শিল্পোন্নত দেশগুলোর অতিমাত্রায় কার্বন দূষণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর ক্ষতিপূরণ আদায়ের লক্ষ্যে সম্মিলিত দাবি জোরদারের সুপারিশ করেন। কোরিয়া সরকারের বাণিজ্য, শিল্প ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়, জাতিসংঘের শিল্প উন্নয়ন সংস্থা, দক্ষিণ কোরিয়ার উলসান মেট্রোপলিটন সিটি এবং কোরিয়ান আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা যৌথভাবে এই সম্মেলনের আয়োজন করে।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬, ০৫:২৪ পি. এম.

২৮/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: