২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ইতিহাস বদলাতে চান অধিনায়ক মেসি


ইতিহাস বদলাতে চান অধিনায়ক মেসি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বফুটবলের বিস্ময় মেসি। অসাধারণ সব পারফর্ম করে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। নিউজার্সিতে শুক্রবার সতীর্থ ও ভক্তদের নিয়ে ২৯তম জন্মদিন পালন করেছেন লিওনেল মেসি। তবে জন্মদিনের উৎসব-আনন্দের মাঝেও যেন আর্জেন্টিনা শিবিরে বিরাজ করছিল হতাশা! ১৯৯৩ সালের পর ফুটবলে আর কোন শিরোপাই যে জিততে পারেননি তারা। দীর্ঘ দুই যুগ কোন শিরোপা জিততে না পারার আক্ষেপ-হতাশা প্রতিনিয়তই আঘাত করে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে। তাই এবার সেই শিরোপা খরা ঘুচাতে মরিয়া এলএম টেন। এবার কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনাকে চ্যাম্পিয়ন করে তুলতে চান তিনি।

এ প্রসঙ্গে বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি বলেন, ‘আমি জানি না যে, আর্জেন্টিনার জার্সিতে এটাই আমার শেষ সুযোগ কি না। তবে এই ট্রফিটা জেতার মতো সবধরনের সামর্থ্যই আমাদের রয়েছে। যে করেই হোক কোপার শিরোপা জিততে চাই।’ আর্জেন্টিনার জাতীয় দলের হয়ে এর আগেও তিনটি ফাইনাল খেলেছেন মেসি। শিরোপার খুব কাছে গিয়েও দুইবারই স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় ডুবে ছিলেন এলএম টেন। ২০১৪ সালে জার্মানির কাছে হেরেছিলেন তারা। গতবছর কোপা ফাইনালে মেসিদের হারিয়ে প্রায় শত বছর পর প্রথম শিরোপা জয়ের উল্লাসে ভেসেছিল চিলি। এবার সেই চিলিকে হারিয়েই উৎসবের জোয়ারে ভাসাতে চান নিজেদের সমর্থকদের। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘জাতীয় দলের হয়ে এটি আমার চতুর্থ ফাইনাল। আগের ওই গল্পের পরিবর্তন চাই। এবার আমরাই চ্যাম্পিয়ন হব।’ বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন যাদুকর এ সময় আরও বলেন, ‘কোপা আমেরিকার গত টুর্নামেন্টের পর এক বছর কেটে গেছে। আমি মনে করি এই সময়ের মধ্যে একটি দল হিসেবে আমরা আরও বেশি শক্তিশালী হয়েছি। শিরোপা জয়ের ক্ষেত্রে এবার যা আমাদের সহায়তা করবে।’

দল হিসেবে লাতিন আমেরিকার সেরাদের একটি হলো চিলি। এ্যালেক্সিস সানচেজ, আতুরো ভিদালের মতো অনেক তারকা খেলোয়াড় রয়েছে তাদের। তাই টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচটির আগে চিলিকে সমীহ করছেন মেসি। সেইসঙ্গে সতীর্থদের সেরাটা ঢেলে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এলএম টেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা এখন কোপার ফাইনালে আছি। এটি রোমাঞ্চকর ব্যাপার। ওই ম্যাচে এমন একটা দলের বিপক্ষে খেলব, যারা অনেক ভাল খেলছে। সেরাটা উজাড় করে দিতে হবে আমাদের। কারণ ফাইনালের ম্যাচটি কঠিন হবে। তবে আমরা দারুণ আত্মবিশ্বাসী।’

কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক গোল করে অনন্য কীর্তি গড়েন মেসি। এটি ছিল জাতীয় দলের হয়ে তার ৫৫তম গোল। এর মধ্য দিয়ে আর্জেন্টিনার সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি। সেইসঙ্গে ছাড়িয়ে যান ৫৪ গোল করা গ্যাব্রেইল বাতিস্তুতাকে। স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সার হয়ে ২৮টি ট্রফি জিতেছেন মেসি। যার মধ্যে রয়েছে ৪টি উয়েফা চ্যাম্পিয়নশিপ, ৮টি লা লিগা। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে এখন পর্যন্ত মাত্র দুটি ট্রফি জিতেছেন তিনি। ২০০৫ সালে অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা আর ২০০৮ সালে অলিম্পিকের স্বর্ণপদক। তবে মেসি এখনও দুর্দান্ত ফর্মে। তার কাছ থেকে আর্জেন্টিনার প্রত্যাশাটাও অনেক বেশি। তবে আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো মনে করেন, মেসির আর প্রমাণ করার মতো কিছু নেই। আর্জেন্টাইন প্রাণভোমরা ইতোমধ্যেই নিজেকে প্রমাণ করেছেন। এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাতকারে রোমেরো বলেন, ‘আমরা তাকে নিয়ে গর্বিত। সে নিজেকে বিশ্বসেরা হিসেবে প্রমাণ করেছে। আমাদের সামনে মেসির আর প্রমাণ করার কিছু নেই। কারণ, আমরা সবাই জানি যে সে বিশ্বসেরা। সে আমাদের ১০ নাম্বার জার্সিধারী এবং আমাদের নেতা।’

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: