১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ঈশ্বরদীতে রেলওয়ে বিদ্যুতের অবৈধ ব্যবহার


তৌহিদ আক্তার পান্না, ঈশ্বরদী ॥ ঈশ্বরদীর পাকশীতে রেলের বাসায় ও প্রতিষ্ঠানে রেলওয়ের অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীরা। এতে প্রতিবছর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে মোটা অংকের লোকসান গুনতে হচ্ছে এবং অসাধু কর্মকর্তারা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছে। পাকশী রেলওয়ে বৈদ্যুতিক প্রকৌশলী অফিসের একাধিক সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীদের দেওয়া অভিযোগ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্রমতে, ১৯১০ সালে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে অফিস ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য বাসা বাড়ি নির্মাণ করা হয়। কালের পরিক্রমায় সেসব বাসা বাড়িতে রেলের কর্মকর্তা কর্মচারীরা থাকে না বললেই চলে। প্রায় ৮শ‘ বাসার প্রত্যেকটিতেই বিদ্যুৎ সংযোগ থাকলেও ২’শ ৯১টি বাসায় বৈধ সংযোগ রয়েছে। অবশিষ্ট বাসায় মাসিক চুক্তিভিত্তিতে অবৈধ সংযোগ দিয়েছে বৈদ্যুতিক পাওয়ার হাউজের একজন কর্মকর্তা। এর সাথে সহযোগিতায় রয়েছে একজন মিটার রিডার। এই দু’জনকে অবৈধ কাজে সহযোগিতা করে থাকে বৈদ্যুতিক অফিস,ডিটিও অফিস,বিআরআই অফিস,হাসপাতালের কর্মচারী ও হিসাব রক্ষণ অফিসের ৫/৬ কর্মচারী।

অবৈধ বিদ্যুত সংযোগকৃত প্রতিটি বাসাতেই ফ্রিজ,রঙ্গিন টেলিভিশন এবং হিটার ব্যবহার করা হচ্ছে। অবৈধ বাসা ব্যবহারকারীদের পাশাপাশি ইপিজেডের শ্রমিকরা রেলওয়ের জায়গাতে ঘরবাড়ি তুলে রেলওয়ের বিদ্যুৎ অবৈধভাবে ব্যবহার করছে।

এসব বিষয়ে পাকশী পাওয়ার হাউজের (এসএসএই) আব্দুল জব্বার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযান চলছে। সংযোগ বিচ্ছিন্নের পরই সংযোগ লাগানো হয়। অবৈধ বসবাসকারীরা সরকারী বাসা দখলের পাশাপাশি সরকারী জায়গা দখল করে প্রতিদিনই ঘরবাড়ি নির্মাণ করছে। এতে অবৈধ সংযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

নেত্রকোনায় জমি নিয়ে সংঘর্ষ ॥ নিহত ১ আহত ৯

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা, ৫ মে ॥ বিরোধপূর্ণ জমির ধান কাটাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত এবং ৯ জন গুরুতর আহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের পাঁচকাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম দানু মিয়া (৫৫)। তিনি কৃষক।

জানা গেছে, পাঁচকাটা গ্রামের দানু মিয়ার দখলে ৩২ শতক জমি নিয়ে তার সঙ্গে একই গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আমির হোসেনের বিরোধ চলছে। মঙ্গলবার ভোরে আমির হোসেন ও তার ছেলেরা ওই জমির ধান কাটতে গেলে দানু মিয়া এবং তার ছেলেরা বাধা দেয়। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে প্রতিপক্ষের রামদার কোপে দানু মিয়া ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এছাড়া দু’পক্ষের ৯ জন আহত হয়। গুরুতর আহত দানু মিয়ার স্ত্রী খোদেজা খাতুন, ছেলে রহম আলী ও আমছর আলীকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এবং আবুল হাসেম, মনছুর আলী, ফারুক মিয়া, শরাফত আলী, হেলাল ও বশির আহমেদকে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। কলমাকান্দা থানার ওসি বশির আহমেদ জানান, নিহতের লাশ নেত্রকোনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আমির হোসেনের ভাই আবুল হাসেমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রাজশাহীতে নারীসহ আহত ১০

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে জানান, জেলার তানোর উপজেলা সদরের গোল্লাপাড়ায় বিরোধপূর্ণ জমির দখলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। সোমবার রাতের ঘটনায় আহতদের মধ্যে মাহাবুর ম-ল ওরফে ফটিককে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।