ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

পশুর প্রতি যত্নশীলতা

জান্নাতুল ফেরদৌস বিজলী

প্রকাশিত: ২০:৪৯, ১২ জুন ২০২৪

পশুর প্রতি যত্নশীলতা

আর তো মাত্র কয়েকটি দিন বাকি তারপরই ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা

আর তো মাত্র কয়েকটি দিন বাকি তারপরই উদযাপিত হবে ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। ইতোমধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় পশুর হাটগুলো জমে উঠেছে। সামর্থ্যবান মুসলিমরা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী বিভিন্ন পশু (গরু, ছাগল, দুম্বা/মেষ) কোরবানি দেবেন। সকলেরই উদ্দেশ্য আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভ করা। এরই মধ্যে অনেকে কোরবানির পশু কিনে ফেলেছেন কেউ বা দু-তিনদিনের মধ্যে কিনবেন।

তবে পারিপার্শ্বিক অবস্থা ও বিভিন্ন সুযোগ -সুবিধার কথা বিবেচনা করে অনেকেই আগেভাগেই কোরবানির পশু কিনে ফেলেন। যার ফলে পশুর সঙ্গে কোরবানিদাতার সখ্য ও হৃদ্যতার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে সেই সঙ্গে কোরবানিদাতাকে কোরবানির পশু কেনার সময় থেকে শুরু করে পশু জবাই করা পর্যন্ত কোরবানির পশুর প্রতি নিতে হবে সঠিক যতœ ও পরিচর্যা। 
১. হাট থেকে পশু কেনার পর বাসা দূরে হলে পশুকে হাঁটিয়ে না এনে পিকআপ ভ্যানে করে আনা ভালো। এতে প্রচণ্ড গরমে পশুটির কষ্ট অনেকটা লাঘব হবে।
২. হাটে পশুদের পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবার দেওয়া হয় না। এ সময় পশুরা অনেক ক্ষুধার্ত থাকে। তাই গন্তব্যে ফিরে তাদের পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবারের ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়াও খৈল, ভুসি, গাছের পাতা, খড়, ঘাস ইত্যাদি খাবার আগে থেকে প্রস্তুত করে রাখতে হবে। 
৩. পশুর গায়ে ময়লা লেগে থাকলে তা পরিষ্কার করে ভালোভাবে গোসল করাতে হবে। 
৪. পশুর থাকার জন্য অস্থায়ী, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, শান্ত শীতল ও শুষ্ক আবাসস্থলের ব্যবস্থা করতে হবে। পশুর থাকার জায়গায় যেন ভেজা, স্যাঁতসেঁতে, অপরিচ্ছন্ন ও নোংরা না থাকে সেই দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। 
৫. দিনের বেলায় পশুকে উন্মুক্ত বা খোলা জায়গায় রাখতে হবে এবং রাতের নিরাপদ আশ্রয়ে রাখতে হবে। 
৬. পশুকে যত্নসহকারে খাওয়াতে ও গোসল করাতে হবে। তাছাড়া পশুর গায়ে হাত বুলিয়ে আদর করতে হবে। তাদের প্রতি অসদাচরণ না করে হতে হবে সহানুভূতিশীল ও অধিক যত্নশীল।
সরকারি তিতুমীর কলেজ, ঢাকা থেকে

×