ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

চেপে ধরার সময় এসেছে: সেনাবাহিনীর বার্তা

প্রকাশিত: ১১:৩৫, ৮ জুন ২০২৩

চেপে ধরার সময় এসেছে: সেনাবাহিনীর বার্তা

সেনাপ্রধান অসিম মুনির ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

রাষ্ট্র ও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ঘৃণাসম্পন্ন ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত বিদ্রোহের পরিকল্পনাকারী ও মূলহোতাদের ‘চেপে ধরার সময় এসেছে বলে এক হুঁশিয়ারি বার্তায় বলেছেন পাকিস্তানের সেনাবাহিনী।

বুধবার (৭ জুন) রাওয়ালপিন্ডিতে ফরমেশন কমান্ডার্সের বার্ষিক বৈঠকে মিলিত হন সেনাপ্রধানসহ বাহিনীর অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। এরপর আন্তঃবাহিনীর জনসংযোগ দপ্তরের (আইএসপিআর) পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়।

এই বিবৃতিতে মূলত ইমরান খানকে ইঙ্গিত করা হয়েছে। পরোক্ষভাবে হুমকি দেওয়া হয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তার দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফকে (পিটিআই) দমিয়ে দেওয়া হবে।

গত ৯ মে আল-কাদির ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওই গ্রেপ্তারের পর রাওয়ালপিন্ডিতে সেনাবাহিনীর সদরদপ্তর, লাহোরের কর্পস কমান্ডারের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। যার পেছনে ইমরান খানের সমর্থকদের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করে আসছে সেনাবাহিনী। আর এসব ঘটনায় যারা জড়িত তাদের কঠোর শাস্তি দেওয়ার হুমকিও দিয়েছে তারা।

বিবৃতিতে আইএসপিআর বলেছে, ‘এ ব্যাপারে আরও জোর দেওয়া হয়েছে, যখন নাশকতাকারী এবং উস্কানিদাতের বিচার কার্যক্রম শুরু হয়েছে, তখন রাষ্ট্র ও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহকারী ও তাদের মূল হোতাদের চেপে ধরার সময় এসেছে। যারা এর মাধ্যমে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জঘন্য উদ্দেশ্য হাসিল করতে চেয়েছিল।’

গত বছরের নভেম্বরে সেনাপ্রধান হন জেনারেল অসিম মুনির। ইমরান খান যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তখন অসিম মুনিরের সঙ্গে তার দূরত্ব ছিল। এরপর অসিম সেনাপ্রধান হওয়ার পর বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসে। ইমরান খান দাবি করেছেন, তিনি যেন পুনরায় ক্ষমতায় না আসতে পারেন সেজন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

সূত্র: দ্য ডন, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

টিএস

×