ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

জমি বরাদ্দে দেশের চার গ্রুপের ৬ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বেজার চুক্তি

অর্থনৈতিক অঞ্চলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন আগামী মাসে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২১:৪২, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

অর্থনৈতিক অঞ্চলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন আগামী মাসে

বুধবার বেজা কার্যালয়ে জমি বরাদ্দে দেশের চার গ্রুপের ৬ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সই অনুষ্ঠিত হয়

 আগামী মাসে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) আওতাধীন বিভিন্ন অর্থনৈতিক অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকা-সহ আনুষ্ঠানিকভাবে বেশ কয়েকটি শিল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন উদ্বোধন করা হবে জানিয়েছেন বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন। তিনি বলেন, আগামী ২৪ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেশ কয়েকটি শিল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন উদ্বোধন করবেন বলে সম্মতি দিয়েছেন। বুধবার বেজা কার্যালয়ে জমি বরাদ্দে দেশের ৪টি গ্রুপের ৬ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সই অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেশের ৪টি স্ব^নামধন্য গ্রুপের ৬ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর ও সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে মোট ১৭ একর জমি বরাদ্দে চুক্তি সই করেছে। বুধবার বেজা কার্যালয়ে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রতিষ্ঠানসমূহ হল- হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, ইফাদ মোটর্স, ডার্ড গ্রুপ এবং ইস্ট ওয়েস্ট ট্যুরস এ্যান্ড ট্রাভেলস (প্রাইভেট) লিমিটেড। অনুষ্ঠানে বলা হয়, হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে প্রথম পর্যায়ে ৩০ একর জমিতে তাদের দ্বিতীয় শিল্প স্থাপনের কাজ শুরু করেছে।

নতুন করে আরও ১০ একর জমি যুক্ত হওয়ার ফলে সামগ্রিকভাবে ৪০ একর জমিতে প্রায় ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হবে বলে প্রতিষ্ঠানটি আশা করছে। এ সার্বিক কর্মকা-ে প্রায় ৭০০০ মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। বরাদ্দকৃত জমিতে প্রশাসনিক ভবন, ওয়্যারহাউস, লজিস্টিক এলাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানি শোধনাগার, সড়ক, ডরমিটরি, স্বাস্থ্য সেবা, প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং সবুজায়ন করা হবে।
এছাড়া সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে ৩৭০ কক্ষ বিশিষ্ট একটি ১০ তলা ৩-তারকা হোটেল নির্মাণ ও পরিচালনা, বিনোদন ও কনভেনশন সেন্টার নির্মাণের জন্য ইফাদ মোটরস লিমিটেডের বিনিয়োগ প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে। তাদের বিনিয়োগ প্রস্তাব থেকে জানা যায়, এতে প্রায় ১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করা হবে এবং ৩ শতাধিক কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। ইতোমধ্যে ইফাদ গ্রুপ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরেও ১০ একর জমিতে বিনিয়োগ করেছে।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ডার্ড গ্রুপ সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে গ্রুপটির তিনটি প্রতিষ্ঠান মোট ৫ একর জমিতে তিনটি প্লটে হোটেল, মোটেল, কটেজ ও রিসোর্ট স্থাপন করবে। সামগ্রিকভাবে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৩৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এতে প্রায় ৭০০ কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। এছাড়া ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেলস এ্যান্ড ট্যুরস (প্রাইভেট) লিমিটেড সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে হোটেল ১ একর জমিতে হোটেল স্থাপনের জন্য বিনিয়োগ প্রস্তাব জমা দেয়। এতে প্রায় ২.৭২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ এবং ২০০ কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে মর্মে বিনিয়োগ প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন বলেন, মীরসরাইতে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চল ও শিল্প নগর নির্মিত হচ্ছে। এর ফলে এ দেশে শিল্পায়নের অভূতপূর্ব বিপ্লব সাধিত হবে এবং জনগণের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যসমূহ পূরণ হবে। তিনি বলেন, বিরানভূমি আজ শিল্পের পদচারণায় সমৃদ্ধ হয়ে উঠছে, সেই সঙ্গে দ্রুত শিল্প স্থাপনের জন্য গ্যাস, বিদ্যুতসহ সকল সেবা প্রদানের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম বেজা সাধ্যমতো সম্পন্ন করছে। তিনি আরও বলেন, সাবরাং ট্যুরিজম পার্কটিকে একটি বিশ্বমানের পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের জন্য বেজা ইতোমধ্যে বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৪ অক্টোবর বেজার আওতাধীন বিভিন্ন অর্থনৈতিক অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকা-সহ আনুষ্ঠানিকভাবে বেশ কয়েকটি শিল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন উদ্বোধন করার সম্মতি দিয়েছেন।
হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ হালিমুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশে ওষুধশিল্পে হেলথকেয়ার একটি বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড হিসেবে সুনামের সঙ্গে কাজ করে চলেছে এবং এশিয়া, আফ্রিকা ও পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে তা রফতানি হচ্ছে। মীরসরাইতে শিল্প স্থাপন প্রতিষ্ঠানটির জন্য একটি মাইলফলক বলে তিনি উল্লেখ করেন। পর্যটন শিল্পের বিকাশে এবং দেশে আন্তর্জাতিকমানের বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের ট্যুরিজম পার্ক নির্মাণের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান ইফাদ মোটর্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমদ।
ডার্ড গ্রুপের পরিচালক সেঁজুতি দৌলাহ বিনিয়োগের এই নতুন উদ্যোগে বেজার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, ট্যুরিজম পার্কে বেজার এই কার্যক্রম অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে একটি কার্যকরী পদক্ষেপ। ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেলস এ্যান্ড ট্যুরস (প্রাইভেট) লিমিটেডের পরিচালক মাহমুদুল হোসাইন শুভ বলেন সুদীর্ঘ বালুকাময় সৈকতে অবস্থিত সাবরাং-এর মতো নয়নাভিরাম স্থানে পর্যটনের বিকাশে তার প্রতিষ্ঠান লব্ধ অভিজ্ঞতা নিয়ে কাজ করতে চায়।