ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সাপ নাকি প্রিয় প্রাণী তার! দেখলেই ঝাঁপিয়ে পড়েন 

প্রকাশিত: ১৪:৩২, ১৮ মে ২০২৪

সাপ নাকি প্রিয় প্রাণী তার! দেখলেই ঝাঁপিয়ে পড়েন 

সাপ প্রেমী রাজু

সাপ এক ধরনের বিষধর প্রাণী। সাপ দেখলেই মানুষ ভয় পাবে এটাই স্বাভাবিক। তবে রাজু নামের এক ব্যক্তি সাপ দেখলে ভয় না পেয়ে বরং হেসে খেলে সময় পার করেন। 

রাজুর কাছে প্রিয় প্রাণী হয়ে উঠেছে সাপ। কোনোরকম ভয়ভীতি ছাড়াই অনবরত সাপের সঙ্গে সময় পার করেন দিন। মানুষের হাতে ধরা পড়া বিপদগ্রস্ত সাপগুলো উদ্ধারের পর অবমুক্ত করেন বনে।

এলাকায় কোনো বিষধর সাপ দেখা গেলে খবর দেওয়া হয় তাকে। রাজু সেখানে গিয়ে উদ্ধার করে বিপদে পরা বিষধর সাপকে। আরব এভাবেই এলাকায় তার নিত্যদিনের সঙ্গী এখন বিভিন্ন প্রজাতির সাপ। 

রাসেলস ভাইপার, শঙ্খিনী, খৈয়া গোখরা, পদ্ম গোখরার মতো বিষধর সাপ রাজুর কাছে কিছুই না। বন্ধুর মতো হাতে নিয়ে করছেন খেলা। 

যেখানেই সাপের খবর পান, সেখানেই হাজির হয় রাজু। কখনো জালে আটকানো সাপ, কখনো মানুষের বাসস্থানে ঢুকে যাওয়া সাপকে বিপদমুক্ত করেন এই তরুণ। পাশাপাশি এ বিষয়ে সবাইকে করেন সচেতন। আবার মাঝেমাঝে তাকে শুনতে হয় কটু কথা।

গ্রামে কৃষিনির্ভর পরিবারে বেড়ে ওঠেন রাজু। বিল এলাকা হওয়ায় সাপের আনাগোনা দেখেছেন। সাপের প্রতি তার ভালোবাসার গল্পটা ছোটবেলা থেকে। যখন দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়েন তখন একদিন দেখছিলেন সাপুড়ে খেলা। তার গলায় সাপুড়ে পেঁচিয়ে দিয়েছিলেন দুটি সাপ। কিন্তু সাপগুলো তাকে দংশন করেনি। 

এর পর থেকেই সাপের প্রতি ভয় ভেঙে যায় তার। পরবর্তীতে শিখে নেন সাপ ধরার কৌশল। বই পড়ে চেষ্টা করেন সাপের চরিত্র বোঝার। সেই থেকে এ পর্যন্ত বিষহীন ও বিষধর মিলিয়ে প্রায় আড়াই শতাধিক সাপকে উদ্ধার করে বাঁচিয়েছেন রাজু। বর্তমানে তিনি স্নেক রেসকিউ টিম বাংলাদেশের সভাপতি ।

পড়ালেখা শেষে ময়মনসিংহের ভালুকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছেন রাজু। কর্মজীবনের শত ব্যস্ততার মধ্যেও বিনা পারিশ্রমিকে সাপ রেসকিউ করছেন।

সাপের প্রতি ভালোবাসা থেকে সাপকে অবমুক্ত করার এ উদ্যোগকে স্বাগত জানান ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক নজরুল ইসলাম।

প্রকৃতিতে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপের রয়েছে ব্যাপক ভূমিকা । তাই সাপকে ভয় না পেয়ে একটু সচেতন থেকে রক্ষা করা প্রয়োজন এ প্রাণিকে। এমনটাই প্রত্যাশা রাজুদের মতো জীববৈচিত্র্য প্রেমীদের।
 

শিলা

×