ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

গ্রীষ্মে ত্বকের যত্ন

নারমিন জারিয়া

প্রকাশিত: ২১:২৫, ৪ জুন ২০২৩

গ্রীষ্মে ত্বকের যত্ন

.

গ্রীষ্মকালে গরম পড়বে এটাই স্বাভাবিক। আর জ্যৈষ্ঠ মাস হলে তো কথাই নেই। কিন্তু সময় যত যাচ্ছে, গরম যেন অসহনীয় হয়ে উঠছে। বেশি সমস্যায় পড়ছেন যাদের বাইরে যেতে হচ্ছে। আর কমবেশি সবাইকে ঘরের বাইরে যেতেই হয়। কি রোদ আর কি বৃষ্টি। প্রয়োজন মানে না কিছু। তবে এই গরমে রোদের আঁচে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ত্বক। গ্রীষ্মকালের তীব্র গরমে ত্বক হয়ে পড়ে শুষ্ক নিষ্প্রাণ। ধুলাবালিতে লোমকূপ বন্ধ হয়ে যায়। ত্বক পুড়ে কালো হয়ে যায়, ব্রণ হয়। সময় সবাইকেই তাই ত্বকের একটু বাড়তি যত্ন নিতে হয়। বাজারে আজকাল চাহিদা অনুযায়ী ত্বকের উপযোগী অনেক ধরনের উপাদান পাওয়া যায়। তবে অনেকে বাজারের জিনিসে বিশ্বস্ত না হওয়ায় নিজেই ঘরে তৈরি করে নেন ত্বকের সঙ্গে মানানসই প্যাক। আবার কেউ দাম দিয়ে বাজার থেকে এসব কিনতেও চান না। তারা হাতের কাছে পাওয়া যায় এমন কিছু ঘরোয়া উপকরণ দিয়ে ত্বকের যত্ন নিতে পারেন।

. প্রথমত : প্রচুর পানি পান করতে হবে। পানি শুধু ত্বক না, শরীরের জন্যও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ত্বকের সুস্থতার জন্য দরকার আর্দ্রতা বজায় রাখা। ব্রণের উপদ্রব আর কোষ্ঠকাঠিন্য থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়। বাহির থেকে এসে বেশি করে চোখে মুখে পানির ঝাপটা দেবেন।

. অ্যালোভেরা এখন খুব সহজলভ্য। একটি অ্যালোভেরা ছোট ছোট টুকরো করে ফ্রিজে রেখে বেশ কয়েকদিন ব্যবহার করা যায়। পাতার দুপাশের কাটা আর উপরের সবুজ চামড়া ফেলে দিয়ে ভিতরের জেলটা আলতোভাবে মুখে ঘষে নিতে হবে। বাইরে থেকে এসেই এই জেল লাগিয়ে ১০ মি বসলেই তা শুকিয়ে যাবে। পরে ঠান্ডা পানি দিয়ে আলতো করে ঘষে ঘষে মুখ ধুয়ে নেবেন। এতে রোদে পোড়া সারাদিনের ধুলাবালি দূর হবে। নিয়মিত ব্যবহারে মুখের দাগও চলে যায়।

. দাগ দূর করার জন্য রাতে ঘুমানোর আগে নিয়মিত দাগের মধ্যে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে ঘুমালে ভালো ফল পাওয়া যায়। তবে অ্যালোভেরা সবার ত্বকের জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে। সেক্ষেত্রে সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। কারও এলার্জি সমস্যা থাকলে এটি ব্যবহার না করাই ভালো।

. ঘরে বিভিন্ন রকম ফল থাকে। যেমন- কমলা, মালটা, তরমুজ, পাকা পেঁপে, পাকা আম, টমেটো ইত্যাদি লাগাতে পারেন। মুখে লাগিয়ে না শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপর আলতোভাবে ঘষে ধুয়ে নিন। ত্বকের পরিবর্তন খুব সহজেই চোখে পড়বে। খাদ্য তালিকায়ও রাখতে হবে মৌসুমি ফল শাক-সবজি। এতে ত্বক শুষ্কতা রুক্ষতা থেকে সুরক্ষিত থাকবে। লেবুপানিও পান করতে পারেন, এটি ত্বক উজ্জ্বল প্রাণবন্ত রাখবে।

. নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার রাখতে হবে। বাইরের ধুলোবালি, ঘাম, ত্বকের মৃত কোষ পরিষ্কার করতে ত্বকের ধরন অনুযায়ী ভালো ফেসওয়াশ বেছে নিন। বাইরে বের হওয়ার আগে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে ১৫/২০মি আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

. গ্রীষ্মে ত্বক পরিচর্যায় ভারি কোনো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন না। হালকা ময়েশ্চারাইজার আপনার ত্বকের জন্য হতে পারে দারুণ বন্ধু। ব্রণ দূর করতেও এটি অনেক উপকারী।

অনেকেই অলসতা করে ত্বকের যত্ন নেন না। এতে ত্বক কুঁচকে যাওয়াসহ অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই একটু সচেতন হোন। বাহির থেকে এসে বিশ্রাম নিতে নিতেই অন্তত উল্লেখ্য, ঘরোয়া উপকরণের মাধ্যমে হলেও ত্বকের যত্ন নিন। ত্বকের যত্ন শুধু মেয়েদের জন্যই নয়, একইভাবে ছেলেরাও ত্বকের যতœ নিতে পারেন। শুধু খেয়াল করবেন কোন উপকরণটি আপনার ত্বকের জন্য উপযুক্ত।

×