ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

গ্রীষ্মের শেষ বেলায় খেয়ালি প্রকৃতি

রোদের ছাতায় বৃষ্টি, বৃষ্টির ছাতায় রোদ

জনকণ্ঠ ফিচার

প্রকাশিত: ২৩:৩৭, ৩০ মে ২০২৩

রোদের ছাতায় বৃষ্টি, বৃষ্টির ছাতায় রোদ

প্রখর রোদে ঢাবি ক্যাম্পাসে ছাতা মাথায় দুই শিক্ষার্থী

প্রকৃতি ভালোই খেলছে এখন। কখনো বৃষ্টি। দমকা হাওয়া। কখনো প্রখর রোদ। ক’দিন না গরম, না শীত। ক’দিন আবার ভ্যাপসা গরম। সব মিলিয়ে বিচিত্র হয়ে উঠেছে গ্রীষ্মের প্রকৃতি। প্রথম মাস বৈশাখে গরমই ছিল মুখ্য। মাঝে মধ্যে কালবৈশাখীও আঘাত হানার চেষ্টা করেছে। আর দ্বিতীয় মাস জ্যৈষ্ঠে এসে অনেক বেশি খেয়ালি প্রকৃতি। রোদ ও বৃষ্টি পালাক্রমে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করছে। কয়েকদিন আগে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে টানা বৃষ্টি হয়েছে। রাস্তাঘাট তরু লতা সে বৃষ্টির জলে ধুয়ে পরিষ্কার হয়েছে। ঘোলাটে আকাশ, বৃষ্টি আর দমকা হাওয়া দেখে কখনো কখনো মনে হয়েছেÑ এ যেন বর্ষার কাল। উষ্ণতাও এ সময় অনেক কমে গিয়েছিল।

তার পরপরই অন্যরূপ। অর্থাৎ বাড়াবাড়ি রকমের তাপপ্রবাহ। ক’দিন ধরে সূর্যের প্রভাবই বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ফলে গরম অনুভূত হচ্ছে খুব। মঙ্গলবার সকালে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ২৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাঙ্গামাটিতে, ৩৮ দশমিক ০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় ছিল ৩৬ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 
রাজধানীতে গরম বাড়ায় বেড়েছে দুর্ভোগও। খেটে খাওয়া মানুষ তীব্র গরমের মধ্যে জীবিকার সন্ধান করছেন। রিক্সা চালকের গায়ের জামা ঘামে ভিজে যাচ্ছে। গণপরিবহনে যাতায়াত করা যাত্রীও স্বস্তিতে নেই। পথচারীরা ছায়া পেলেই একটু জিরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছেন। পার্ক বা উদ্যানের বেঞ্চে শুয়ে তপ্ত দুপুর পার করছেন, কোথাও ঠাঁই হয় না এমন মানুষেরা। 
তবে গ্রীষ্মের প্রকৃতির খেয়াল খুশি বেশি বোঝা যাচ্ছে ছাতার ব্যবহার দেখে। হ্যাঁ, অনেকেই এখন ছাতা সঙ্গে নিয়ে বের হচ্ছেন। বিশেষ করে মেয়েরা ছোট্ট ব্যাগে একটি ছোট্ট ছাতাও পুড়ে নিচ্ছেন। কখনো এটি বৃষ্টির বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হচ্ছে। কখনো রোদের বিরুদ্ধে। কেউ হয়ত রোদের কথা ভেবে ছাতা সঙ্গে নিচ্ছেন, দেখা যাচ্ছে, বৃষ্টি পেয়ে বসছে
তাকে। একইভাবে বৃষ্টি ভেবে ছাতা সঙ্গে নিলে কামড়ে ধরছে রোদ। রোদ থেকে বাঁচতে ব্যবহার হচ্ছে বৃষ্টির ছাতা! 
অবশ্য আপাতত কয়েকদিন রোদের সম্ভাবনাই বেশি। মঙ্গলবার আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঢাকাসহ দিনাজপুর নীলফামারী সিলেট সন্দ্বীপ সীতাকুন্ড রাঙ্গামাটি কুমিল্লা চাঁদপুর মাইজদিকোর্ট ফেনী ও বান্দরবান অঞ্চলসহ ময়মনসিংহ, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এটি আরও বিস্তার লাভ করতে পারে। পূর্বাভাসে আরও জানানো হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। 
অবশ্য কমতেও সময় নেবে না। আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ বলছেন,  আগামী তিন দিনে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই পূর্বাভাস ঢাকার বেলায়ও হয়তো কার্যকর হবে। না হলেও অসুবিধা নেই। শুধু ছাতা সঙ্গে রাখুন!

×