মঙ্গলবার ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নেত্রকোনা ট্রাজেডি দিবসে পাঁচ মিনিট নীরবতা পালন

নেত্রকোনা ট্রাজেডি দিবসে পাঁচ মিনিট নীরবতা পালন

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা ॥ কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, পুষ্পস্তবক অর্পণ, বিক্ষোভ মিছিল, রাস্তায় দাঁড়িয়ে পাঁচ মিনিট নীরবতা পালন, প্রতিবাদী সমাবেশ এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নেত্রকোনা ট্রাজেডি দিবস পালিত হচ্ছে আজ বুধবার। ২০০৫ সালের ৮ ডিসেম্বর নেত্রকোণার উদীচী কার্যালয়ে সংঘটিত জঙ্গী বোমা হামলায় নিহতদের স্মরণে প্রতিবছর স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালন করে আসছে এ দিনটি।

সকাল ৯টায় জেলা শহরের অজহর রোডে উদীচী কার্যালয়ের সামনে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালোব্যাজ ধারণের মধ্য দিয়ে ‘নেত্রকোনা ট্রাজেডি দিবস উদযাপন কমিটি’ আয়োজিত দিনব্যাপী কর্মসূচীর শুরু হয়। এরপর সকাল সাড়ে ৯টায় স্মৃতিস্তম্ভে করা হয় পুষ্পস্তবক অর্পণ।

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি, নেত্রকোনা ট্রাজেডি দিবস উদ্যাপন কমিটি, জেলা আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, যুব মহিলা লীগ, ছাত্র ইউনিয়ন, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠী, শতদল সাংস্কৃতিক একাডেমি, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম, স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতি, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ, নেত্রকোনা সাধারণ গ্রন্থাগার, হায়দার শেলী স্মৃতি সঙ্গীত বিদ্যানিকেতনসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

সকাল ১০টা ৪০ মিনিট থেকে ১০টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত (বোমা হামলার সময়টিতে) শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, তেরিবাজার, মোক্তারপাড়া সেতুসহ বিভিন্ন পয়েন্টে দাঁড়িয়ে পালন করা হয় ‘স্তব্ধ নেত্রকোনা’ কর্মসূচী। ওই পাঁচ মিনিট সময় থমকে ছিল গোটা শহর। কোনো যানবাহন চলেনি। পথচারীরাও দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন। এরপর সকাল ১১টায় বের করা হয় সন্ত্রাস, সাম্প্রদায়িকতা, মৌলবাদ ও জঙ্গীবাদবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল। শহীদ মিনারের সামনে থেকে বেরিয়ে মিছিলটি সারা শহর ঘুরে আবার একই স্থানে এসে শেষ হয়।

বিকেলে শহীদ মিনারের মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে সমাবেশ এবং দেশাত্ববোধক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

২০০৫ সালের ৮ ডিসেম্বর সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে উদীচীর জেলা সংসদ কার্যালয়ে জেএমবির আত্মঘাতী জঙ্গীদের শক্তিশালী বোমা হামলায় কেঁপে ওঠে নেত্রকোণা। প্রাণ হারান উদীচীর দুই শিল্পী খাজা হায়দার হোসেন ও সুদীপ্তা পাল শেলীসহ আটজন। নিহত অন্য ছয়জন হলেন: মোটর গ্যারেজ শ্রমিক যাদব দাস, গৃহিণী রানী আক্তার, মাছ বিক্রেতা আফতাব উদ্দিন, রিক্সাচালক রইছ উদ্দিন, ভিক্ষুক জয়নাল আবেদীন ও আত্মঘাতী কিশোর কাফি। আহত হন আরও অন্তত ৯০ জন। ওই হামলার পর নিহত মোটর গ্যারেজ শ্রমিক যাদব দাসকে ‘হিন্দু জঙ্গী’ হিসেবে শনাক্ত করে ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহের ষড়যন্ত্র করা হয়। কিন্তু আপামর জনতার প্রতিবাদের মুখে সে ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনায় মৃত্যু ১৮, শনাক্ত ১৬ হাজার         টিকার কারণে হাসপাতালে রোগী কম, মৃত্যুও কম : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         একনেকে ১০ প্রকল্প অনুমোদন         ডিবির জ্যাকেটে নতুন প্রযুক্তি         ওমিক্রনে শিশুদের ঝুঁকি বাড়ছে         ‘বিএনপি অগণতান্ত্রিক পথে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে’         ৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা শুরু         ক্রিপ্টো বাজারে ট্রিলিয়ন ডলার ধস         দুর্নীতি মামলায় জিকে শামীমের মা কারাগারে         ‘জাতিসংঘে চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না’         ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১৩তম         ঢাকায় শাবিপ্রবির সাবেক দুই শিক্ষার্থীকে আটকের অভিযোগ         ঝালকাঠিতে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ ৩০ জনকে নগদ সহায়তা         এবার র‌্যাবকে নিষিদ্ধ করতে ইইউতে চিঠি         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৫ হাজার ৯২২ জন         রাজশাহীতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, তবুও উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি         ফটিকছড়িতে ভারতের দেওয়া লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর         ব্রিটেনে পাঁচ বাঙালীর নামে পাঁচটি নতুন ভবন উৎসর্গ         ৪০২ দিন পর খেলতে নামলেন মাশরাফি         বুরকিনা ফাসোর প্রেসিডেন্ট কাবোরেকে পদচ্যুত করেছে সেনাবাহিনী